‘যেকোনো উপায়ে জয় আসলে জয় নয়’

যেকোনো উপায়ে জেতা আসলে জেতা না- মন্তব্য করেছেন ঢাকাস্থ মার্কিন রাষ্ট্রদূত মার্শা বার্নিকাট।

যেকোনো উপায়ে জেতা আসলে জেতা না-  মন্তব্য করেছেন ঢাকাস্থ মার্কিন রাষ্ট্রদূত মার্শা বার্নিকাট।যেকোনো উপায়ে জেতা আসলে জেতা না- মন্তব্য করেছেন ঢাকাস্থ মার্কিন রাষ্ট্রদূত মার্শা বার্নিকাট।

মঙ্গলবার তার অফিসিয়াল টুইটবার্তায় তিনি এ মন্তব্য করেন বার্নিকাট। দুপুরে তিনি ঢাকা উত্তরের এক ভোট কেন্দ্র পরিদর্শনকালে বলেছেন, সুষ্ঠু নির্বাচন করার বিষয়ে সরকারের প্রতিশ্রুতি ছিল।

অপর এক টুইট বার্তায় মার্কিন এ রাষ্ট্রদূত বলেছেন, সিটি নির্বাচনে সহিংসতা হতাশাজনক। পাশাপাশি তিন সিটিতে বিএনপির নির্বাচন বয়কট করাও হতাশাজনক।

তিনি টুইট বার্তায় লিখেছিলেন অবাধ, সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন হল গণতন্ত্রের ভিত্তি। আশা করি আগামীকালের ভোট এই স্পিরিটের একটি উদাহরণ হবে।

মার্কিন রাষ্ট্রদূত মার্শা স্টিফেন্স ব্লুম বার্নিকাট মঙ্গলবার দুপুরে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন এলাকার বনানী বিদ্যানিকেতন স্কুল অ্যান্ড কলেজ ভোটকেন্দ্র পরিদর্শন করেন। পরিদর্শন শেষে উপস্থিত সাংবাদিকদের কাছে সিটি নির্বাচনের পরিস্থিতি নিয়ে হতাশা প্রকাশ করেন।

একই সাথে আইনের সীমার মধ্যে থাকার এবং যেকোনো মূল্যে সহিংসতা এড়ানোর জন্য সব দলের প্রতি আহ্বান জানানো হয়।

বিবৃতিতে বলা হয়, ‘আজ ভোটকেন্দ্রে ভোট জালিয়াতি, ভীতিপ্রদর্শন ও সংঘর্ষের ব্যাপক ও বিশ্বাসযোগ্য খবরে, এবং বিএনপির সিটি করপোরেশন ভোট বর্জনের সিদ্ধান্তে আমরা হতাশ।’

‘আমরা রাজনৈতিক স্বার্থ হাসিলের জন্য সহিংসতার ব্যবহারের কঠোর নিন্দা জানাই,’ বলা হয় বিবৃতিতে।

এর আগে আগে মঙ্গলবার সকাল থেকেই বাংলাদেশের সিটি করপোরেশন নির্বাচন নিয়ে ফেসবুক ও টুইটারে নিজেদের মন্তব্য প্রকাশ করে আসছিলেন ঢাকায় নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত মার্শা বার্নিকাট। এবার আনুষ্ঠানিকভাবে দূতাবাসের পক্ষ থেকে বিবৃতি দেওয়া হলো।

বেলা সাড়ে ৩টার দিকে টুইটার অ্যাকাউন্টে এক বার্তায় মার্কিন রাষ্ট্রদূত বলেন, ‘বাংলাদেশে আজকের সিটি নির্বাচনে ভীতিপ্রদর্শন, সংঘর্ষ এবং নির্বাচনের ওপর এর প্রভাবের খবর শুনে হতাশ।’

দুপুর ২টার দিকে বার্নিকাট এ মন্তব্য করেন। তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশে সিটি নির্বাচন থেকে বিএনপি সরে যাচ্ছে, এটা হতাশাজনক।’

ঢাকা উত্তর, দক্ষিণ ও চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের নির্বাচন বর্জন করেছেন বিএনপি সমর্থিত প্রার্থীরা। তাদের অভিযোগ, ভোটকেন্দ্র থেকে পোলিং এজেন্টদের বের করে দেওয়া বা প্রবেশে বাধা দেওয়া, ভোট কারচুপি, জালিয়াতি করেছে আওয়ামী লীগ সমর্থকরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *