বাবরি মসজিদের মামলায় ২০ জনকে নোটিশ

ভারতের অযোধ্যায় ঐতিহাসিক বাবরি মসজিদ ধ্বংসের ঘটনায় বিজেপির জ্যেষ্ঠ নেতা এলকে আদভানিসহ ২০ জনের প্রতি জবাব চেয়ে মঙ্গলবার নোটিশ পাঠিয়েছে দেশটির সর্বোচ্চ আদালত।

ভারতের অযোধ্যায় ঐতিহাসিক বাবরি মসজিদ ধ্বংসের ঘটনায় বিজেপির জ্যেষ্ঠ নেতা এলকে আদভানিসহ ২০ জনের প্রতি জবাব চেয়ে মঙ্গলবার নোটিশ পাঠিয়েছে দেশটির সর্বোচ্চ আদালত।ভারতের অযোধ্যায় ঐতিহাসিক বাবরি মসজিদ ধ্বংসের ঘটনায় বিজেপির জ্যেষ্ঠ নেতা এলকে আদভানিসহ ২০ জনের প্রতি জবাব চেয়ে মঙ্গলবার নোটিশ পাঠিয়েছে দেশটির সর্বোচ্চ আদালত।

আদভানিসহ ওই নেতাদের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের মামলা বাতিলের ঘটনায় জবাব দিতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। হাজী মাহবুব আহমেদের দায়ের করা এক আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে প্রধান বিচারপতি এইচ এল দত্তের নেতৃত্বাধীন একটি বেঞ্চ এ নির্দেশ দেন।

আদভানির পাশাপাশি এমএম জোশি, কেন্দ্রীয় মন্ত্রী উমা ভারতী, রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী কল্যাণ সিংকেও জবাব দিতে বলা হয়েছে। এ জন্য তাদের চার সপ্তাহের সময় বেঁধে দেওয়া হয়েছে।

আবেদনে আহমেদ উল্লেখ করেছেন, কেন্দ্রীয় সরকারে বিজেপি আসায় সিবিআই (সেন্ট্রাল ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন) বাবরি মসজিদ ভাঙার ষড়যন্ত্রের অভিযোগ থেকে দলটির নেতাদের মুক্তি দিতে পারে।

২০১০ সালে এলাহাবাদের উচ্চ আদালত বাবরি মসজিদ ভাঙার ষড়যন্ত্রের অভিযোগ থেকে আদভানিসহ বিজেপির ২০ নেতাকে মুক্তি দেয়। পরবর্তী সময়ে সর্বোচ্চ আদালতে এ রায়ের বিরুদ্ধে অভিযোগ করা হয়।

১৯৯২ সালে অযোধ্যায় মুঘল আমলে নির্মিত ঐতিহাসিক বাবরি মসজিদ ভেঙে দেয় উগ্রপন্থী হিন্দুরা। ওই সময় সৃষ্ট দাঙ্গায় দুই হাজারেরও বেশি মুসলিম নিহত হয়েছিল। আদভানির বিরুদ্ধে ওই দাঙ্গায় নেতৃত্ব দানের অভিযোগ রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *