এনবিএল টুইন টাওয়ারের নির্মাণস্থলে আবার ধস

এনবিএল টুইন টাওয়ারের নির্মাণস্থলে আবার ধস

এনবিএল টুইন টাওয়ারের নির্মাণস্থলে আবার ধসবুধ ও বৃহস্পতিবার পরপর দুইদিন দুই দফা ধসের পর রোববার রাতে পান্থপথের সুন্দরবন হোটেলের পাশে ন্যাশনাল ব্যাংক লিমিটেডের (এনবিএল টুইন টাওয়ার) নির্মাণস্থলে একটি অংশ আবার ধসে পড়েছে।

আগের দুবারের মতো এবারো কেউ হতাহত হয়নি এবং বন্ধ করে দেয়া হয়েছে হোটেলের পাশের সড়কটি।

কলাবাগান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. ইকবাল জানান, সন্ধ্যা ৭টার দিকে নির্মাণাধীন ভবনের পশ্চিম পাশে ১০ থেকে ১২ ফুট অংশ ধসে গেছে।

বুধবার সকালে প্রথম দফা ধসের পর বৃহস্পতিবার বিকেলে ন্যাশনাল ব্যাংকের ডিজিএমসহ ৪ জনের বিরুদ্ধে মামলা করে রাজউক। হোটেল সুন্দরবন কর্তৃপক্ষের অভিযোগ- পাইলিংয়ের জন্য যথাযথ নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হয়েছিল না। ধসের পর বুধবার বেলা ১১টায় সুন্দরবন কর্তৃপক্ষ বলেছে, আগেই এ ব্যাপারে নির্মাণাধীন প্রতিষ্ঠান দুটিকে (ম্যাম ইনটেক্স ও এম এক্স কন্সট্রাকশন লি.) বারবার তাগিদও দেয়া হয়েছে। কিন্তু তারা এসবের কোনো তোয়াক্কা না করেই কাজ চালিয়ে গেছে। ফলে এমন দুর্ঘটনা ঘটলো।

প্রথম দফা ধসের পর আবারো বিপদ এড়াতে ঘটনার পরপরই সেখানে বালু ফেলার কাজ শুরু হয়। ১৫শ ট্রাক বালু ফেলার উদ্দেশ্যে কাজ শুরু করার পর বৃহস্পতিবার রাতে আবার কিছুটা অংশ ধসে যায়।

ঢাকা দক্ষিণ সিটির প্রধান প্রকৌশলী মো. হাবিবুর রহমান বলেন, “পশ্চিম পাশে আবারো নতুন করে ধস শুরু হয়েছে। প্রায় ৫০ থেকে ৬০ ফিট ধসে গেছে। ওই দিকে একটি গ্যারেজ থাকায় তেমন ক্ষয়ক্ষতি হয়নি। তবে কয়েকটি অস্থায়ী ঘর ধসে পড়েছে।”

তিনি বলেন, “আগ থেকেই আমাদের ধারণা ছিল, যেকোনো সময় ওই পাশটিও ধসে পড়তে পারে। তাই আশপাশের বসবাসকারীদের সরিয়ে দেয়া হয়েছিল।”

হাবিবুর রহমান বলেন, “পশ্চিম পাশে নতুন করে ধস হলেও সুন্দরবন হোটেল ঝুঁকিমুক্ত।”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *