‘দেশের স্বার্থ বিসর্জনে বন্ধুত্ব নয়, হয় দাসত্ব’

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া ভারত-বাংলাদেশ সম্পর্ক নিয়ে বলেছেন, বন্ধুত্ব ভাল, কিন্তু দেশের স্বার্থ বিসর্জন দিয়ে নয়।

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া ভারত-বাংলাদেশ সম্পর্ক নিয়ে বলেছেন, বন্ধুত্ব ভাল, কিন্তু দেশের স্বার্থ বিসর্জন দিয়ে নয়।বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া ভারত-বাংলাদেশ সম্পর্ক নিয়ে বলেছেন, বন্ধুত্ব ভাল, কিন্তু দেশের স্বার্থ বিসর্জন দিয়ে নয়। বন্ধুত্ব হতে হবে সমানে সমানে, না হলে তা হবে দাসত্ব।

বঙ্গবন্ধুর পরিবারকে আজীবন রাষ্ট্রীয় সুবিধা দেয়ার সমালোচনা করে তিনি বলেন, ‘দেশে গণতন্ত্র নয় রাজতন্ত্র চলছে। এক পরিবার দেশ শাসন করছে। সাধারণ ভাত পাবে না। আর একটা পরিবার আজীবন সুবিধা পাবে। আওয়ামী লীগের ক্ষমতায় দেশ দিন দিন খারাপের দিকে যাবে।’

খালেদা জিয়া বলেন, আপনার যদি যমুনা সেতু পার হয়ে উত্তরবঙ্গে যান তাহলে টোল দিতে হবে কিন্তু কারো কারো ক্ষেত্রে সেই টোল দিতে হবে না।

ক্ষমতাসীনদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, পুলিশ, র‌্যাব বা আইন প্রয়োগকারী সংস্থা ছাড়া চললে সাধারণ জনগণ তাদের গণধোলাই দিয়ে চ্যাপ্টা করে দেবে। আর কারণেই তারা জনগণকে এত ভয় পায়।

এ সময় দলীয় আইনজীবীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, নিজেদের মতভেদ ভুলে দলের স্বার্থে কাজ করুন। যে যাই বলুক দল সুসংগঠিত রয়েছে। অতীতে যারা আন্দোলন-সংগ্রামে ছিল এবং যারা দলের জন্য কাজ করেছে তাদের এবার মূল্যায়ন করা হবে।

রোববার রাজধানীর গুলশানে চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে ময়মনসিংহ জেলা আইনজীবীদের সঙ্গে এক বৈঠকে তিনি এসব কথা বলেন। এতে সভাপতিত্ব করেন জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম ময়মনসিংহের সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট নুরুল ইসলাম।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *