ক্যান্সারের সাথে লড়াইয়ে হার মানলেন মার্টিন ক্রো

ক্যান্সারের সাথে লড়াইয়ে হার মানলেন মার্টিন ক্রো

ক্যান্সারের সাথে লড়াইয়ে হার মানলেন মার্টিন ক্রোক্যান্সারের সঙ্গে দীর্ঘ লড়াই শেষে না ফেরার দেশে চলে গেলেন নিউজিল্যান্ডের সর্বকালের সেরা ব্যাটসম্যান মার্টিন ক্রো। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৫৩ বছর।

মার্টিন ক্রো’র পরিবারের দেয়া এক বিবৃতিতে বলা হয়, আমরা দুঃখ ভারাক্রান্ত হৃদয়ে জানাচ্ছি যে মার্টিন ক্রো মারা গেছে। সেপ্টেম্বর ২০১৪ থেকে টার্মিনাল ডাবল হিট লিম্ফোমায় ভোগার পরে বৃহস্পতিবার ৩ মার্চ শান্তিপূর্ণভাবে না ফেরার দেশে চলে গেছে। সেই সময় পরিবারের সদস্যরা তার পাশে ছিল।

১৯৮২-৯৫ এই ১৩ বছরের আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারে ৭৭ টেস্টে ৪৫.৩৬ গড়ে ৫ হাজার ৪শ ৪৪ রান করেছেন। সেঞ্চুরি করেছিলেন ১৭ টি, ফিফটি ১৮ টি। টেস্টে তার ২৯৯ রান ছিল দীর্ঘদিন নিউজিল্যান্ডের ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ। এখনো তার সমান টেস্ট সেঞ্চুরি নিউজিল্যান্ডের কারো নেই। কিউইদের হয়ে অধিনায়কত্বও করেছেন চার বছর। এছাড়া ১৪৩টি ওয়ানডে খেলে ৩৮.৫৫ গড়ে করেছেন ৪ হাজার ৭শ চার রান। সেঞ্চুরি চারটি।

বর্তমানে বিশ্ব মাতানো টি টোয়েন্টির প্রথম ধারণাটাও এসেছিল ক্রোর কাছ থেকে। অবসরের পরে স্কাই টেলিভিশনের জন্য ক্রিকেট ম্যাক্স নামে একটা পরিকল্পনা তৈরি করেছিলেন যেটা আধুনিক টি টোয়েন্টির ভিত্তিভূমি।

নিউজিল্যান্ড ক্রিকেটের ফেসবুক পেজে দেয়া এক বিবৃতিতে ক্রোর মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করে বলা হয়, নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট তার সর্বকালের সেরা ব্যাটসম্যানকে হারিয়ে শোকে আচ্ছন্ন। মার্টিনের পরিবার ও বন্ধুর পাশাপাশি যারা মার্টিন ডেভিড ক্রোকে ভালোবেসেছিল তাদের জন্য আমাদের ভালোবাসা।

২০১৫ সালের মার্চে মেলবোর্নে বিশ্বকাপের ফাইনালে অস্ট্রেলিয়া- নিউজিল্যান্ড লড়াইয়ের আগে ক্রিকইনফোয় এক কলামে ক্রো লিখেছিলেন, অনিশ্চিত এই জীবন নিয়ে আমি আগামীতে আর হয়তো খুব বেশি ম্যাচ দেখার এবং উপভোগ করার মতো বিলাসিতা দেখাতে পারব না। তাই এটাই হয়তো শেষ হতে যাচ্ছে। এটাই শেষ, হয়তো, এবং আমি এটা নিয়েই বাকিটা জীবন আনন্দে বাঁচতে পারব।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *