আজহার আলী পাকিস্তানের ওয়ানডে অধিনায়ক

১৪টি ওয়ানডের সর্বশেষটি খেলেছিলেন ২ বছরের বেশি আগে, ২০১৩ সালের জানুয়ারিতে। অথচ সেই আজহার আলীই পাকিস্তানের ওয়ানডে দলের অধিনায়ক।

১৪টি ওয়ানডের সর্বশেষটি খেলেছিলেন ২ বছরের বেশি আগে, ২০১৩ সালের জানুয়ারিতে। অথচ সেই আজহার আলীই পাকিস্তানের ওয়ানডে দলের অধিনায়ক।বিশ্বকাপ দলে জায়গা হয়নি। টেস্ট দলে নিয়মিত হলেও ওয়ানডেতে কখনোই পারেননি নিয়মিত হতে। ১৪টি ওয়ানডের সর্বশেষটি খেলেছিলেন ২ বছরের বেশি আগে, ২০১৩ সালের জানুয়ারিতে। অথচ সেই আজহার আলীই পাকিস্তানের ওয়ানডে দলের অধিনায়ক।

বিশ্বকাপ শেষে ওয়ানডেকে বিদায় জানিয়েছেন মিসবাহ-উল হক। মিসবাহ এর শূন্যস্থান পূরণের দায়িত্ব পেলেন ডানহাতি ব্যাটসম্যান।

গতকাল সোমবার আনুষ্ঠানিক এই ঘোষণা দেন দেশটির ক্রিকেট বোর্ডের চেয়ারম্যান শাহরিয়ার খান।

আসন্ন বাংলাদেশ সফরে পাকিস্তানকে ওয়ানডেতে নেতৃত্ব দেবেন আজহারই । টেস্ট দলের সহ-অধিনায়কও করা হয়েছে তাকে। টেস্টের নেতৃত্ব যথারীতি মিসবাহর কাঁধে। টি-টোয়েন্টির নেতৃত্বেও পরিবর্তন আসেনি।

টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে পাকিস্তানের অধিনায়ক থাকছেন শহীদ আফ্রিদিই। ওয়ানডে আর টি-টোয়েন্টির সহ-অধিনায়কের দায়িত্ব পেয়েছেন বিশ্বকাপে ব্যাটসম্যান-উইকেটরক্ষক দুই ভূমিকাতেই দুর্দান্ত পারফর্ম করা সরফরাজ আহমেদ।

পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) চেয়ারম্যান শাহরিয়ার খান জানিয়েছেন, ‘নেতৃত্ব দেওয়ার দক্ষতা আর মানসিক দৃঢ়তার কারণে আজহার আলীকে ওয়ানডে দলের অধিনায়ক করা হয়েছে। আমি জানি, গত ২ বছর আজহার আলী ওয়ানডে দলে ছিল না। তবে পেন্ট্যাঙ্গুলার কাপে তার পারফরম্যান্স প্রমাণ করেছে, অধিনায়কত্ব তারই প্রাপ্য।’

দায়িত্ব পেয়ে ৩০ বছর বয়সী আজহার আনন্দিত। আজহার জানান, ‘এটা বিশাল এক দায়িত্ব। আশা করি, দলের সবাই আমাকে সহযোগিতা করবে। তাকে (মিসবাহকে) অভিবাদন জানাই। তিনি যেভাবে দেশের সেবা করেছেন আর খেলেছেন, তা একেবারে অতুলনীয়। তার অবদানের কথা আমরা কখনোই ভুলতে পারব না। তার জায়গা নেওয়া খুব কঠিন কাজ। তার বিদায়ে ওয়ানডে ক্রিকেটে বিশাল শূন্যতার সৃষ্টি হবে।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *