অস্ট্রেলিয়াকে হারিয়ে ইংল্যান্ডের অ্যাশেজ পুনরুদ্ধার

অস্ট্রেলিয়াকে চতুর্থ টেস্টের তৃতীয় দিনেই ইনিংস ও ৭৮ রানের হারের লজ্জায় ডুবিয়ে অ্যাশেজ পুনরুদ্ধার করলো স্বাগতিক ইংল্যান্ড।

অস্ট্রেলিয়াকে চতুর্থ টেস্টের তৃতীয় দিনেই ইনিংস ও ৭৮ রানের হারের লজ্জায় ডুবিয়ে অ্যাশেজ পুনরুদ্ধার করলো স্বাগতিক ইংল্যান্ড।অস্ট্রেলিয়াকে চতুর্থ টেস্টের তৃতীয় দিনেই ইনিংস ও ৭৮ রানের হারের লজ্জায় ডুবিয়ে অ্যাশেজ পুনরুদ্ধার করলো স্বাগতিক ইংল্যান্ড।

স্টুয়ার্ট ব্রড আর বেন স্টোকসের দাপটে শনিবার ট্রেন্ট ব্রিজে বড় জয়ে এক ম্যাচ হাতে রেখেই ৩-১ এ সিরিজ জিতে নেয় ইংলিশরা।

অবশ্য ট্রেন্ট ব্রিজে চতুর্থ টেস্টের প্রথম সকালে অস্ট্রেলিয়াকে ১৮.৩ ওভারে মাত্র ৬০ রানে গুটিয়ে দিয়ে আগেই জয়ের পথ করে রেখেছিলেন ইংলিশ পেসার স্টুয়ার্ট ব্রড। ব্রড ১৫ রানে নিয়েছিলেন ৮ উইকেট।

প্রথম ইনিংসে সর্বোচ্চ ১৪ রান আসে অতিরিক্ত থেকে। ব্যাটসম্যানদের মধ্যে মিচেল জনসন সর্বোচ্চ ১৩ আর অধিনায়ক মাইকেল ক্লার্ক করেন দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ১০ রান। প্রথম চার ব্যাটস্যমানের তিনজনই ডাক মেরেছিলেন।

ইংল্যান্ড জো রুটের ১৩০ আর জনি বাইরস্টোউর ৭৪ রানের সুবাদে ৯ উইকেটে ৩৯১ রান করে নিজেদের প্রথম ইনিংস ঘোষণা করে। অধিনায়ক অ্যালিস্টার কুক ৪৩ আর মঈন আলি ৩৮ (২৪) রান করেন। অজিদের হয়ে মিচেল স্টার্ক ১১১ রানে ক্যারিয়ার সেরা ৬ উইকেট নেন।

অবশ্য দ্বিতীয় ইনিংসে ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা করে অস্ট্রেলিয়া। দুই ওপেনার ক্রিস রজার্স আর ডেভিড ওয়ার্নার শতরানের জুটিও গড়েন। তবে বেন স্টোকসের কাছে ফের ধরাশায়ী হন অজিরা। দুই ওপেনারের বিদায়ে ১৩৪ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে বসে সফরকারীরা।

শেষ পর্যন্ত ২৫৩ রানে অস্ট্রেলিয়ার ইনিংস গুটিয়ে গেলে ইনিংস ও ৭৮ রানের হার নিশ্চিত হয়। একই সঙ্গে ৩-১ এ সিরিজ নিশ্চিত হয় ইংল্যান্ডের। অজি ব্যাটসম্যানদের মধ্যে ডেভিড ওয়ার্নার ৬৪ এবং ক্রিস রজার্স ৫২ রান করেন। আর অ্যাডাম ভজেস ৫১ রানে অপরাজিত ছিলেন। অতিরিক্ত থেকে এসেছে চতুর্থ সর্বোচ্চ ৪০ রান।

দ্বিতীয় ইনিংসে ইংলিশদের হয়ে স্টোকস ৩৬ রানে ৬ উইকেট আর মার্ক উড ৬৯ রানে ৩টি উইকেট নেন।

ম্যাচ সেরা হন স্টুয়ার্ট ব্রড।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *