কোয়ার্টার ফাইনালে অস্ট্রেলিয়া

শ্রীলংকাকে ৬৪ রানে হারিয়ে বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালের টিকিট পেয়েছে মাইকেল ক্লার্ক বাহিনী।

শ্রীলংকাকে ৬৪ রানে হারিয়ে বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালের টিকিট পেয়েছে মাইকেল ক্লার্ক বাহিনী।শ্রীলংকাকে ৬৪ রানে হারিয়ে বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালের টিকিট পেয়েছে মাইকেল ক্লার্ক বাহিনী। সিডনি ক্রিকেট গ্রাউন্ডে শেষ হাসি হেসেছেন গ্লেন ম্যাক্সওয়েল আর জেমস ফকনাররা।

৩৭৬ রানের লক্ষ্যে শুরুটা তেমন ভালো হয়নি শ্রীলঙ্কার। দলীয় ৫ রানে জনসনের বলে উইকেটের পেছনে ক্যাচ দিয়ে ফিরে গেছেন লাহিরু থিরিমান্নে (১)।

এরপরই দারুণ জবাব দেন তিলকরত্নে দিলশান ও কুমার সাঙ্গাকারা। দুজনের ১৩০ রানের জুটি ভাঙেন ফকনার। এলবিডব্লিউ হওয়ার আগে দিলশান করেন ৬০ বলে ৮ চারে ৬২ রান।

দলীয় ১৮৮ রানে নিজের ভুলে রান আউট হন মাহেলা জয়াবর্ধনে। মিশেল স্টার্কের বলে ঠেলে দিয়েই রান নিতে যান জয়াবর্ধনে। কিন্তু অধিনায়ক ক্লার্কের সরাসরি থ্রোতে স্ট্যাম্প ভেঙে যায়। লাফিয়ে পড়েও নিজেকে রক্ষা করতে পারেননি দারুণ শুরু করে ১৯ রান করা মাহেলা।

এরপর দলীয় ২০১ রানে সাঙ্গাকারাকে ফেরান ফকনার। অ্যারন ফিঞ্চের হাতে ক্যাচ দেয়ার আগে সাঙ্গাকারা (১০৪) করেন অনন্য এক রেকর্ড। তিনিই বিশ্বকাপের প্রথম ব্যাটসম্যান যিনি টানা তিন ম্যাচে শতক করলেন। এর আগের দুই ম্যাচে বাংলাদেশ ও ইংল্যান্ডের বিপক্ষে শতক করেন সাঙ্গাকারা।

দলীয় ২৮১ রানে অসুস্থ হয়ে দিনেশ চান্দিমাল ফিরে গেলে খেলায় ছেদ পড়ে লঙ্কানদের। চান্দিমাল মাত্র ২৪ বলে ৫৪ রান করেন। এরপরই আসল আঘাত আসে অধিনায়ক অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুসের বিদায়ে। ২৮৩ রানে ওয়াটসনের বলে উইকেটের পেছনে ক্যাচ দিয়ে ফেরার আগে তিনি করেন ৩৫ রান।

আর ২৯৩ রানে থিসারা পেরেরাকে ডোহার্টির ক্যাচে পরিণথ করে উত্তেজনার ম্যাচে জল ঢালেন মিশেল জনসনের। এরপর একে একে থারাঙ্গা, প্রসন্ন আর সেনানায়েক ফিরে গেলে ২২ বল বাকি থাকতেই ৩১২ রানে থেমে যায় লঙ্কানদের ইনিংস।

এর আগে সিডনিতে টস জিতে অস্ট্রেলিয়া ৯ উইকেট করে ৩৭৬ রান। গ্লেন ম্যাক্সওয়েল ১০২, স্টিভেন স্মিথ ৭২, অধিনায়ক মাইকেল ক্লার্ক ৬৮ ও শেন ওয়াটসন করেন ৬৭ রান।

৪টি ছক্কা আর ১০টি চারে ৫৩ বলে ১০২ রানের টর্নেডো ইনিংসের জন্য ম্যাচ সেরা হয়েছেন গ্লেন ম্যাক্সওয়েল।

সাঙ্গাকারার টানা ৩ সেঞ্চুরি

কুমার সাঙ্গাকারা রোববার যে কীর্তি গড়েছেন সেটি এর আগে কেউ করে দেখাতে পারেনি, ভবিষ্যতে কেউ পারবে কী-না সেটা নিয়েও রয়েছে সন্দেহ। প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে বিশ্বকাপে টানা তিন সেঞ্চুরির রেকর্ড গড়লেন শ্রীলংকার সাবেক এই অধিনায়ক।

সাঙ্গাকারার কৃতিত্বটা আরো বড় হয়ে যাচ্ছে- কারণ হলো এই তিনটি সেঞ্চুরির দুটিতেই তিনি অপরাজিত থেকে মাঠ ছেড়েছেন। বাংলাদেশের বিপক্ষে হার না মানা ১০৫ রানের ইনিংস খেলার পর ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ১১৭ রানের অনবদ্য ইনিংস খেলে দলকে জিতিয়েই মাঠ ছাড়েন তিনি।

রোববার অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে জয়ের জন্য ৩৭৭ রানের পাহাড় সমান লক্ষ্যের পেছনে ছুটতে গিয়ে দারুণ প্রতিরোধ গড়ে তোলেন কুমার সাঙ্গাকারা। ১০০ বলে তুলে নেন সেঞ্চুরি।

ওয়ানডে ক্রিকেটের ইতিহাস বিবেচনায় আনলে টানা তিন ইনিংসে সেঞ্চুরি করার এটি সপ্তম ঘটনা। এর আগে ৬ জন এই অসাধারণ মাইলফলক স্পর্শ করেন।

১৯৮৩-৮৩ সালে পাকিস্তানের ব্যাটিং কিংবদন্তী জহির আব্বাস প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে ওয়ানডেতে টানা তিন ইনিংসে সেঞ্চুরি করে বিশ্বরেকর্ড গড়েন। তারই স্বদেশী সাঈদ আনোয়ার ১৯৯৩ সালে এই কৃতিত্ব দেখান। এরপর হার্শেল গিবস, এবি ডি ভিলিয়ার্স, কুইন্টন ডি কক ও রস টেলর এই অসাধারণ কৃতিত্ব অর্জন করেন।

সাঙ্গাকারার ১৪ হাজার রানের মাইলফলক

দ্বিতীয় ক্রিকেটার হিসেবে ওয়ানডে ক্রিকেটে ১৪ হাজার রানের মাইলফলক স্পর্শ করলেন কুমার সাঙ্গাকারা। প্রথম লংকান তারকা হিসেবে তিনি এই মাইলফলক স্পর্শ করলেন। রোববার অস্ট্রেলীয় পেসার গ্লেন ম্যাক্সওয়েলের বলে সিঙ্গেল নিয়ে তিনি এই ক্লাবে পা রাখেন।

সর্বোচ্চ ১৮ হাজার ৪২৬ রান নিয়ে সবার ওপরে রয়েছেন ভারতের সাবেক তারকা শচীন টেন্ডুলকার। দুইয়ে থাকা কুমার সাঙ্গাকারার রান এখন ১৪ হাজার ৫৮। ৩৭৮ ওয়ানডেতে ২৪টি সেঞ্চুরি ও ৯৩টি হাফ সেঞ্চুরির সাহায্যে সাঙ্গাকারা এই রান করেন। ওয়ানডেতে সর্বোচ্চ ৯৬ হাফ সেঞ্চুরি নিয়ে সবার ওপরে রয়েছেন শচীন টেন্ডুলকার। ভারতের এই কিংবদন্তিকে স্পর্শ করা সাঙ্গাকারার জন্য এখন সময়ের ব্যাপার মাত্র।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

অস্ট্রেলিয়া : ৩৭৬/৯, ওভার ৫০ (ম্যাক্সওয়েল ১০২, স্মিথ ৭২, ক্লার্ক ৬৮; মালিঙ্গা ২/৫৯, পেরেরা ২/৮৭)

শ্রীলঙ্কা : ৩১২/১০, ওভার ৪৬.২ (সাঙ্গাকারা ১০৪, দিলশান ৬২, চান্দিমল ৫২; ফকনার ৩/৪৮, স্টার্ক ২/২৯, জনসন ২/৬২)

ফল : অস্ট্রেলিয়া ৬৪ রানে জয়ী

পয়েন্ট : অস্ট্রেলিয়া ২, শ্রীলঙ্কা ০

ম্যাচ সেরা : গ্লেন ম্যাক্সওয়েল (অস্ট্রেলিয়া)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *