মধ্যবর্তী নির্বাচন অনুষ্ঠানে হাসিনাকে চাপ দেয়ার দাবি

বাংলাদেশ-ভারতের বিদ্যমান সম্পর্কে বিএনপির পূর্ণ আস্থা থাকার কথা জানিয়ে মধ্যবর্তী নির্বাচন অনুষ্ঠানে শেখ হাসিনাকে চাপ দেয়ার দাবি জানিয়েছেন বেগম খালেদা জিয়া।

বাংলাদেশ-ভারতের বিদ্যমান সম্পর্কে বিএনপির পূর্ণ আস্থা থাকার কথা জানিয়ে মধ্যবর্তী নির্বাচন অনুষ্ঠানে শেখ হাসিনাকে চাপ দেয়ার দাবি জানিয়েছেন বেগম খালেদা জিয়া।ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সাথে বৈঠকে বাংলাদেশ-ভারতের বিদ্যমান সম্পর্কে বিএনপির পূর্ণ আস্থা থাকার কথা জানিয়ে দ্রুত সময়ে মধ্যবর্তী নির্বাচন অনুষ্ঠানে শেখ হাসিনাকে চাপ দেয়ার দাবি জানিয়েছেন দলটির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া।

তবে বাংলাদেশে গণতান্ত্রিক স্থিতিশীলতা বজায় রেখে পূর্ণ গণতন্ত্রে উত্তরণে নিয়মতান্ত্রিক রাজনীতির চর্চা করতে খালেদা জিয়ার প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী।

বৈঠকে বিএনপির ইসলামপন্থী দলগুলোর সম্পর্ক থাকা নিয়ে ভারতের অস্বস্তির কথা খোলামেলাভাবেই জানানো হয়েছে। বিশেষ জামায়াতের সাথে সম্পর্ক ছেদ করার পরামর্শ দেয়া হয়েছে বলেও দাবি বৈঠক সংশ্লিষ্ট বিএনপির একটি সূত্রের।

হোটেল সোনারগাঁওয়ে রোববার বিকাল ৪টা থেকে ৪টা ৪৫ মিনিট পর্যন্ত খালেদা জিয়া ও নরেন্দ্র মোদির বৈঠক শেষে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আবদুল মঈন খান গণমাধ্যমের কাছে ব্রিফিংকালে বলেন, অত্যন্ত চমৎকার পরিবেশে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে বিএনপির চেয়ারপারসনের বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৈঠকে বিএনপির পক্ষ থেকে বেগম খালেদা জিয়া তার বক্তব্য উপস্থাপন করেছেন। অন্যদিকে ভারতের পক্ষ থেকে নরেন্দ্র মোদি তার বক্তব্য উপস্থাপন করেছেন।

সাবেক এই মন্ত্রী বলেন, “আমরা যেটা বলেছি, দুটি দেশের মানুষের সঙ্গে মানুষের সম্পর্ক চাই। কারণ একটি দেশের সরকার আসবে, আবার যাবে। দুই দেশের মানুষের মধ্যে মানুষের পারস্পরিক সম্পর্ক অটুট থাকা প্রয়োজন।”

রাজনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে কথা হয়েছে জানিয়ে মঈন খান বলেন, “বাংলাদেশের গণতন্ত্র অনুপস্থিত। সেই বিষয়টি নিয়ে কথা হয়েছে। এখন যদি আমরা সার্কের আঞ্চলিক উন্নয়নকে বাস্তবে রূপ দিতে চাই, তাহলে গণতন্ত্রের ওপর অবশ্যই জোর দিতে হবে।”

মঈন খান বলেন, “আগে উন্নয়ন পরে গণতন্ত্র- এ বিষয়টি বাস্তবসম্মত নয়। কারণ উন্নয়ন কাজে আসবে না যদি না মানুষের কথা বলার স্বাধীনতা, নির্বাচন কমিশনের নিরপেক্ষতা, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী নিরপেক্ষ না থাকে। গণতন্ত্র ছাড়া সেই পরিবেশ বজায় রাখা সম্ভব হবে না।”

বৈঠকে খালেদা জিয়ার সঙ্গে ছিলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য তরিকুল ইসলাম, ড. আব্দুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা রিয়াজ রহমান ও সাবিহ উদ্দিন আহমেদ।

৩৬ ঘণ্টার সফরে শনিবার সকালে ঢাকায় পৌঁছান ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। তার এই সফরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, রাষ্ট্রপতি এ্যাডভোকেট আবদুল হামিদ, পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী, বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদের সঙ্গেও দ্বি-পাক্ষিক ইস্যুতে বৈঠক করেন। রোববার রাতে মোদি দিল্লির উদ্দেশে ঢাকা ত্যাগ করবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *