হার্ট অ্যাটাক হলে রোগীর প্রাথমিক চিকিৎসা যেভাবে

হার্ট অ্যাটাক হলে রোগীর প্রাথমিক চিকিৎসা যেভাবে

রাস্তায়, অফিসে অথবা বাড়িতেই হঠাৎ হার্ট অ্যাটাক! হাসপাতালে নেওয়ার আগেই, একটু করে নির্জীব হয়ে পড়ছেন আপনার সামনের মানুষটি। কী করবেন ভেবে পাচ্ছেন না? ভয় পাবেন না।

সামান্য কয়েকটি বিষয় জানা থাকলে আপনিই বাঁচাতে পারেন জীবন।

হঠাৎ ঘাম দিয়ে তীব্র বুকে ব্যথা? শ্বাস কষ্ট আর তার পরেই কেমন অচৈতন্য হয়ে পড়ছেন আপনার সামনের মানুষটি। এ সবই কিন্তু হার্ট অ্যাটাকের লক্ষণ। কী করে বুঝবেন হার্ট অ্যাটাক?

রোগীর গলায় শ্বাসনালীর পাশেই রয়েছে ক্যারোটিড পালস বা সেন্ট্রাল পালস। প্রথমেই কম পক্ষে পাঁচ সেকেন্ড ওই পালস দেখুন। হার্ট অ্যাটাক হলে পালস পাওয়া যাবে না।

চিকিৎসকরা বলছেন, লাইফ টেভিং টেকনিক জানা থাকলে রোগীকে এই অবস্থা থেকে বাঁচানো সম্ভব। কী করবেন? আক্রান্তকে ঝিমিয়ে পড়তে দেওয়া চলবে না।

তার সঙ্গে কথা বলে যেতে হবে। ৩০-৪৫ ডিগ্রি মাথা উঁচু করে শুয়ে রাখতে হবে রোগীকে। যাতে তার শ্বাস নিতে সুবিধা হয়। এর পর আপনিই শুরু করে দিতে পারেন রোগীর প্রাথমিক চিকিৎসা।

হার্ট অ্যাটাক হলে রোগীর প্রাথমিক চিকিৎসা যেভাবে নিবেন জেনে নিন।

১. প্রথমে বুকে পাম্প, মাউথ টু মাউথ রেসপিরেশন, রোগীকে শুইয়ে দিন। দুটো হাতের তালু ইন্টারলক করে ঠিকের বুকের মাঝখানে পাম্প করুন। পুরো শরীরের চাপ দিয়ে পাম্প করবেন।

২. ১৬-১৮ সেকেন্ডের মধ্যে ৩০ বার পাম্প করুন। এর পরে মাউথ টু মাউথ রেসপিরেশন করুন। এই সময় রোগীর নাক বন্ধ রাখতে হবে। থুতনি উঁচু করে ধরে রাখতে হবে।

৩. এই ভাবে দুবার মাউথ টু মাউথ রেসপিরেশন করতে হবে। এর পর ফের বুকে পাম্প করতে হবে। পুরো সাইকেলটা কম পক্ষে ৫ বার করতে হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *