সরকারবিরোধী আন্দোলনে ৩০০ জনকে হত্যা ও ৬৫ জনকে গুম করা হয়েছে বলে অভিযোগ করে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ‘এ সব হত্যা-গুমের জবাব আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনাকে দিতে হবে।’
জাতীয়

‘হত্যা-গুমের জবাব শেখ হাসিনাকে দিতে হবে’

সরকারবিরোধী আন্দোলনে ৩০০ জনকে হত্যা ও ৬৫ জনকে গুম করা হয়েছে বলে অভিযোগ করে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ‘এ সব হত্যা-গুমের জবাব আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনাকে দিতে হবে।’সরকারবিরোধী আন্দোলনে ৩০০ জনকে হত্যা ও ৬৫ জনকে গুম করা হয়েছে বলে অভিযোগ করে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ‘এ সব হত্যা-গুমের জবাব আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনাকে দিতে হবে।’

জাতীয় প্রেস ক্লাব মিলনায়তনে রবিবার সকালে এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। ফ্যাসিস্ট, স্বৈরাচার, অবৈধ আওয়ামী সরকারের প্রত্যাক্ষ মদদে ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি প্রহসনমূলক নির্বাচনের পূবে এবং পরবর্তী সময়ে গুম-খুন অত্যাচারের প্রতিবাদে সিঙ্গাপুর বিএনপি এ আলোচনা সভার আয়োজন করে।

এ সময় মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর গুম-খুনের শিকার এমন ২৪ পরিবারকে ৫০ হাজার টাকা করে আর্থিক অনুদানের চেক তুলে দেন।

তিনি বলেন, ‘নারায়ণগঞ্জের খুনের ঘটনায় প্রমাণিত হয়েছে এর সঙ্গে কারা জড়িত। আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতাকে দীর্ঘস্থায়ী করতে রাষ্ট্রযন্ত্র ও প্রশাসনকে ব্যবহার করছে। অবৈধ সরকার র‌্যাব ও ডিবি পুলিশ দিয়ে লড়াকু সৈনিকদের তুলে নিয়ে গেছে।’

বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব বলেন, ‘বিগত কয়েক বছর ধরে নিদারুণ যন্ত্রণর মধ্য দিয়ে অতিক্রম করছি। দানব সরকার বাংলাদেশের সমস্ত অর্জনকে ধ্বংস করে দিয়েছে। গুম একটি জঘন্যতম অপরাধ। আর এ অপরাধের জন্য সরকার দায়ী।’

তিনি বলেন, ‘জনগণকে সঙ্গে নিয়ে লড়াই করে এই স্বৈরাচারীদের পতন ঘটিয়ে যারা গুম-খুনের সঙ্গে জড়িত তাদের খুঁজে বের করব এবং বিচারের মুখোমুখি করব।’

সরকার একে একে গণতন্ত্রের সমস্ত প্রতিষ্ঠানকে বন্ধ করে দিচ্ছে উল্লেখ করে ফখরুল বলেন, ‘সরকার জনগণের ওপর দানবের মতো বসে আছে। ক্ষমতাসীনদের কথা শুনলে মনে হয় তারা এ দেশর রাজা আর সকলে প্রজা। কিন্তু তারা ভুলে গেছে জনগণই সকল ক্ষমতার উৎস।’

সরকার সব জায়গায় ব্যর্থ মন্তব্য করে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান বলেন, ‘রাজধানীর শাহজাহানপুরে পাইপের ভেতরে সরকার মানুষ খুঁজে পায় না, খুঁজে পায় টিকটিকি।’

তিনি বলেন, ‘আমরা কোনো গণতান্ত্রিক দেশে বাস করছি যেখানে প্রতিনিয়ত গুম-খুন হচ্ছে। এটা কোনো সভ্য দেশ হতে পারে না। এই গুম-খুন হওয়ার জন্যই কী মানুষ জীবন দিয়ে দেশ স্বাধীন করেছিল।’

তিনি আরও বলেন, ‘যারা স্বাধীনতা যুদ্ধে জীবন দিয়ে গেছেন তারা অনেক ভাল আছেন আজ আমাদের স্বাধীনদেশে গুম হতে হয় এর চেয়ে বেদনার আর কি আছে।’

বিএনপির এ স্থায়ী কমিটির সদস্য বলেন, ‘বেগম খালেদা জিয়ার আহ্বানে গণতন্ত্রের জন্য লড়াই করতে হবে। লড়াইয়ে জয়ী হতে পারলে গুম হওয়া ব্যক্তিদের খুঁজে বের করা যাবে।’

আয়োজক সংগঠনের সভাপতি আব্দুল কাদেরের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক আসাদুজ্জামান রিপন, মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদক শিরিন সুলতানা প্রমুখ।

শিরোনাম ডট কম
শিরোনাম ডট কম । অনলাইন নিউজ পোর্টাল Shironaam Dot Com । An Online News Portal
http://www.shironaam.com/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *