একদিনে সারাদেশে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১৭

রাজধানী ঢাকা, মানিকগঞ্জ, সিরাজগঞ্জ, বগুড়া, টাঙ্গাইল ও সিলেটে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় ১৭ জন নিহত হয়েছেন।

রাজধানী ঢাকা, মানিকগঞ্জ, সিরাজগঞ্জ, বগুড়া, টাঙ্গাইল ও সিলেটে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় ১৭ জন নিহত হয়েছেন।রাজধানী ঢাকা, মানিকগঞ্জ, সিরাজগঞ্জ, বগুড়া, টাঙ্গাইল ও সিলেটে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় ১৭ জন নিহত হয়েছেন।

ঢাকা জেলার ধামরাই উপজেলায় সড়ক দুর্ঘটনায় সাত জন নিহত হয়েছেন। ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের বাড়বাড়িয়া এলাকায় শনিবার দুপুর সোয়া ২টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

ওভারটেক করতে গিয়ে একটি প্রাইভেটকারের সঙ্গে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এ সময় আরেকটি বাসও দুর্ঘটনার কবলে পড়ে। ঘটনাস্থলেই প্রাইভেটকারের ৪ যাত্রী নিহত হন। হাসপাতালে নেওয়ার পর আরও ৩ জন নিহত হন।এ ঘটনায় বাসের কমপক্ষে ১০ যাত্রী আহত হয়েছেন।

নিহতরা হলেন, মানিকগঞ্জ সদর উপজেলার নারীকুল গ্রামের শমসের আলীর ছেলে মনোয়ার হোসেন মানু মিয়া (৩৫), তার স্ত্রী ফরিদা বেগম (২৫), ছেলে তাওহীদ (২), মেয়ে তোহা (৪), প্রাইভেট কারচালক ফারুক হোসেন (৪৫), তাদের আত্মীয় দিলারা বেগম (৩০) ও শাম্মী আক্তার (৫)।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, দুপুরে মানিকগঞ্জ থেকে ছেড়ে আসা পদ্মা লাইন পরিবহনের একটি বাস মহাসড়কের বারবাড়িয়া এলাকায় পৌঁছলে একটি প্রাইভেটকার বাসটিকে অতিক্রম করার চেষ্টা করে। এ সময় বিপরীতদিক থেকে আসা সোহাগ পরিবহনের একটি বাসের সঙ্গে প্রাইভেটটির মুখোমুখি মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। একই সময় পদ্মা লাইন পরিবহনের মানিকগঞ্জগামী আরও একটি বাস প্রাইভেট কারটিকে দ্বিতীয়বার ধাক্কা দিয়ে দুর্ঘটনার কবলে পড়ে।

এতে ঘটনাস্থলেই মারা যান প্রাইভেটকারের ৪ যাত্রী। আহতদের উদ্ধার করে মানিকগঞ্জ সদর হাসপাতালে নেওয়া হলে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আরও তিনজনের মৃত্যু হয়।

গোলড়া হাইওয়ে পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এনামুল হক জানান, ঘটনাস্থলে নিহত চারজনের লাশ গোলড়া হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়িতে রাখা হয়েছে। বাকি তিনজনের লাশ মানিকগঞ্জ সদর হাসপাতালে রয়েছে।

সিরাজগঞ্জের কামারখন্দে বাস ও ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে শিশু ও নারীসহ ৫ জন নিহত হয়েছেন। এ সময় আহত হয়েছেন আরও ১০ জন।

বঙ্গবন্ধু সেতুর পশ্চিম সংযোগ সড়কের কামারখন্দ উপজেলার বানিয়াগাঁতীতে শুক্রবার রাত ৩টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতদের মধ্যে কুড়িগ্রাম জেলার চিলামারী উপজেলার পাথরঘাটা গ্রামের বেলাল হোসেনের স্ত্রী চায়না খাতুনের (২৫) পরিচয় জানা গেছে। বাকি চারজনের নাম-পরিচয় জানা যায়নি। আহতদের সিরাজগঞ্জ সদর হাসপাতালসহ বিভিন্ন ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়েছে। তাদের নাম-পরিচয়ও জানা যায়নি।

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, রাতে নীলফামারী থেকে ঢাকাগামী অনিক পরিবহনের একটি বাস বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম সংযোগ সড়কের বানিয়াগাঁতী এলাকায় পৌঁছলে ঢাকা থেকে-উত্তরবঙ্গগামী একটি ট্রাকের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই অজ্ঞাতনামা দুই নারীর মৃত্যু হয়। আহত হয় অন্তত ১০-১২ জন। আহতদের মধ্যে গুরুতর ৬ জনকে সিরাজগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় চায়না খাতুন ও অজ্ঞাত এক শিশুর মৃত্যু হয়। এ ছাড়া বগুড়া হাসপাতালে নেওয়ার পথে এক পুরুষের মৃত্যু হয়।

সিরাজগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. ফরিদুল ইসলাম জানান, নিহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হেলাল উদ্দিন জানান, ঘাতক ট্রাক ও চালককে আটকের চেষ্টা চলছে।

বগুড়ার ধুনট উপজেলায় ট্রাকের ধাক্কায় মোটরসাইকেল আরোহী স্বামী-স্ত্রী নিহত হয়েছেন।

উপজেলার সোনাহাটা বাজারে শনিবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- মমতাজ উদ্দিন (৫০) ও শেফালী বেগম (৪০)।

ধুনট থানার ওসি জিয়াউর রহমান জানান, সোনাহাটা বাজার থেকে হাটিয়াপাড়ায় নিজ গ্রামে যাওয়ার সময় অপরদিক থেকে আসা একটি ট্রাক মোটরসাইকেলটিকে ধাক্কা দেয়। এতে স্বামী-স্ত্রী গুরুতর আহত হন। পরে স্থানীয়রা উদ্ধার করে হাসপাতালে নেওয়ার পথে তাদের মৃত্যু হয়। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য বগুড়া সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে বলেও জানান ওসি।

টাঙ্গাইল জেলার মির্জাপুরের দেওহাটায় সকাল সাড়ে ৯টার দিকে ট্রাকচাপায় নয়নবালা (৬০) নামে এক বৃদ্ধা নিহত হয়েছেন। তিনি দেওহাটা কচুয়াপাড়া গ্রামের অমূল্য পালের স্ত্রী।

দেওহাটা পুলিশ ফাঁড়ির এএসআই ফখরুল ইসলাম জানান, উত্তরবঙ্গ থেকে ঢাকাগামী একটি বালুভর্তি ট্রাক নয়নবালাকে চাপা দিলে ঘটনাস্থলেই তিনি নিহত হন।

সিলেট-সুনামগঞ্জ সড়কের কুমারগাঁও বাসস্ট্যান্ডে বেলা ১১টার দিকে পিকআপ ভ্যানচাপায় সিএনজিচালিত অটোরিকশার যাত্রী সোনাফর আলী নিহত হয়েছেন।

সোনাফর সিলেট সদর উপজেলার কালারুখা গ্রামের বাসিন্দা।

সিলেট মেট্রোপলিটনের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার মুহাম্মদ রহমত উল্লাহ জানান, বেলা ১১টার দিকে সিলেটের কুমারগাঁও বাসস্ট্যান্ডে টুকের বাজারগামী একটি পিকআপভ্যান সিলেটগামী একটি অটোরিকশাকে চাপা দেয়। এ সময় ঘটনাস্থলে সোনাফর আলী নিহত হন। লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে বলেও জানান তিনি।

রাজধানীর খিলক্ষেতে গাড়িরচাপায় অজ্ঞাতপরিচয় (৩৫) এক যুবক নিহত হয়েছেন।

খিলক্ষেতের কুড়াতলী এলাকায় ফ্লাইওভারের নিচ থেকে শনিবার সকাল ৭টার দিকে লাশটি উদ্ধার করে পুলিশ।

খিলক্ষেত থানার এসআই ইসরাইল হোসেন জানান, সকালে রাস্তা পারাপারের সময় অজ্ঞাত গাড়ির চাপায় নিহত হন ওই যুবক। লাশ ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে বলেও জানান তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *