Lyricist-Kawsar-Ahmed-Chowdhury-Shahid-Mahmud-Jongi

বাংলা ব্যান্ড সঙ্গীতের সেইসব গীতিকবি

বাংলা ব্যান্ড সঙ্গীতের সেইসব গীতিকবিদের নিয়ে এই লেখাটি। সেই ৯০-এর দশকে আমরা প্রিয় তারকার মুখ দেখে সিনেমা হলে সিনেমা দেখতে যাওয়ার পাশাপাশি এমন ক’জন পরিচালক ছিলেন যাদের নাম শুনলেই সিনেমা দেখতে যেতাম। নায়ক নায়িকা কে কে বা কারা সেটা মুখ্য বিষয় ছিলো না। ঠিক তেমনি অডিও ক্যাসেট কেনার সময় প্রিয় শিল্পী, ব্যান্ডগুলোর নাম দেখে যেমন কিনতাম আবার অ্যালবামের কভারের গানের তালিকার পাশে গীতিকার , সুরকারের নাম দেখে কিনে ফেলতাম। শিল্পী যেই হোক না কেন।

একটা ক্যাসেট কেনার পর আমাদের প্রথম কাজ ছিল ক্যাসেট প্লেয়ারে ক্যাসেটটি ছেড়ে উল্টিয়ে পাল্টিয়ে ক্যাসেটের পুরো কভারটি দেখা। বিশেষ করে কোন গান কোন গীতিকারের লিখা এবং গানের কথাগুলো পড়া ছিল আমাদের একান্ত কর্তব্য। এমন করতে করতে কয়েকজন গীতিকারের নাম ছিল আমাদের তটস্থ এবং তাদের প্রতি ছিল অনেক আস্থা। অর্থাৎ এমন কিছু গীতিকার আমাদের শ্রোতাদের হৃদয়ে এমন করে ঠাই করে নিয়েছিল যে কোন অ্যালবামে সেইসব গীতিকারদের কোন গান থাকলে সেই গানটা ভালো লাগবেই। ব্যান্ড সঙ্গীতে বা ব্যান্ড অ্যালবামে যে সকল গীতিকারেরা ছিলেন আমাদের আস্থার তালিকায় তাঁদের মধ্য অন্যতম হলেন কাওসার আহমেদ চৌধুরী, শহীদ মাহমুদ জঙ্গি, লতিফুল ইসলাম শিবলি,আশরাফ বাবু, বাপ্পি খান, প্রিন্স মাহমুদ, নিয়াজ আহমেদ অংশু, তরুণ, আনন্দ, দেহলভী , মারজুক রাসেল, আসিফ ইকবাল, গোলাম মুর্শেদ, এঞ্জেল শফিক, যায়েদ আমিন, এহসান, জাহাঙ্গীর মাহমুদসহ প্রমুখ।

কাওসার আহমেদ চৌধুরী, শহীদ মাহমুদ জঙ্গি হলেন ব্যান্ড সঙ্গীতের গীতিকারদের মধ্য প্রথম প্রজন্মের গীতিকার বা একেবারে শুরু থেকে ব্যান্ড সঙ্গীতের সাথে আছেন যাদের একটি গান আজো পেলাম না ভালো না লাগার মতো। কাওসার আহমেদ চৌধুরী ব্যান্ডের গানের চেয়ে আধুনিক গান বেশি লিখতেন তবুও ব্যান্ড সঙ্গীতে ‘’মৌসুমি’’ ও ‘’রুপালী গীটার’’ গান দুটোর জন্য কাওসার আহমেদ চৌধুরীকে চিরদিন মনে রাখতে হবে। এছাড়া কুমার বিশ্বজিতের গাওয়া ‘’যেখানে সীমান্ত তোমার’’ কাওসার আহমেদ চৌধুরীর লেখা জনপ্রিয় গান।

অন্যদিকে শহীদ মাহমুদ জঙ্গি আধুনিক গান লিখলেও ব্যান্ড সঙ্গীতের জন্য লিখেছেন অনেক অনেক শ্রোতাপ্রিয় গান । মূলত শ্রোতারা শহীদ মাহমুদ জঙ্গি নামটি মুখস্থ করে ফেলেছে ব্যান্ড সোলস, রেনেসাঁ, এলআরবির মতো শীর্ষস্থানীয় ব্যান্ডগুলোর একাধিক জনপ্রিয় গানের জন্য।

শহীদ মাহমুদ জঙ্গির লিখা গানগুলোর মধ্যে অন্যতম হলো-
হারানো বিকেলের গল্প বলি, যতিন স্যারের ক্লাসে, কোলাহল থেমে গেলো, তৃতীয় বিশ্ব এমনই বিস্ময়, হৃদয় কাঁদামাটির মূর্তি নয়, আজ যে শিশু পৃথিবীর আলোয় এসেছে , ভালোবাসি ঐ সবুজের মেলা, এক চোখে শুধু স্বপ্ন, একদিন ঘুম ভাঙ্গা শহরে, কি জানি কি এক দিন ছিল/ তুমি ছিলে আমি ছিলাম , চায়ের কাপে পরিচয়, এরই মাঝে রাত নেমেছে, দক্ষিণা হাওয়ায় ঐ তোমার চুলে/ আমি ভুলে যাই তুমি আমার নও, তুমি তো বলেছিলে ঝিরিঝিরি বাতাসে, বন্ধ হয়ে গেছে সব ক্যাফে আর রেস্টুরেন্ট এর মতো অসংখ্য শ্রোতাপ্রিয় গান যে গানগুলো সেদিন এদিনের সব ব্যান্ড শ্রোতারা গুনগুন করে আজো গায়।

উল্লেখ্য যে গীতিকার শহীদ মাহমুদ জঙ্গি হলেন প্রথম গীতিকার যিনি বাংলাদেশের ব্যান্ড সঙ্গীতে সর্বপ্রথম আঞ্চলিক গান লিখেছেন যা হলো অ্যাঁরও দেশত যাইয়ো তুঁই (রেনেসাঁ) , ননাইয়া ননাইয়া (রেনেসাঁ), আইয়ো না আইয়ো না (সোলস )গানগুলো। ‘শহীদ মাহমুদ জঙ্গি’ নামটি গানের পাশে ক্যাসেটের কভারে থাকলে ঐ গানটি শুনতো না এমন শ্রোতা পাওয়া যাবে না, কারণ এই নামটি যেন সবসময় ছিল শ্রোতাদের কাছে দারুন কোন গান পাওয়ার বিশ্বস্ত একটি নাম। শহীদ মাহমুদ জঙ্গিকে সেই সময়ের আমরা যারা শ্রোতা তাঁরা কোনদিন কোন পত্রিকা, ম্যাগাজিন কিংবা টিভি চ্যানেলে সাক্ষাৎকার দিতে দেখিনি কিন্তু মানুষটিকে সব শ্রোতারা ভালোবেসে ফেলেছিল , চিনে ফেলেছিল শুধু গান শুনে শুনে। গানের কথা শুনলেই শ্রোতারা বলে দিতো পারতো এটা ‘জঙ্গি’র লিখা গান ।

আজও এইদেশে ব্যান্ড সঙ্গীত বহমান কিন্তু খুঁজে পাওয়া যায় না একজন কাওসার আহমেদ চৌধুরী , একজন শহীদ মাহমুদ জঙ্গি’র মতো অসাধারন গীতিকবিদের!

শিরোনাম ডট কম
শিরোনাম ডট কম । অনলাইন নিউজ পোর্টাল Shironaam Dot Com । An Online News Portal
http://www.shironaam.com/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *