সমুদ্রে অগ্নুৎপাত থেকে সৃষ্ট দ্বীপের প্রথম ছবি

সাম্প্রতিক সময়ে জেগে উঠা দ্বীপগুলোর মধ্যে প্রশান্ত মহাসাগরীয় দেশ টোঙ্গা’র উপকূলবর্তী এই দ্বীপটি সর্বশেষ সংযোজন।

 সাম্প্রতিক সময়ে জেগে উঠা দ্বীপগুলোর মধ্যে প্রশান্ত মহাসাগরীয় দেশ টোঙ্গা’র উপকূলবর্তী এই দ্বীপটি সর্বশেষ সংযোজন।গত জানুয়ারিতে প্রশান্ত মহাসাগরের তলদেশে এক আগ্নেয়গিরি বিস্ফোরণের পর সেখানে জেগে উঠতে শুরু করে একটি দ্বীপ।

গত প্রায় দুই মাসে দ্বীপটি এখন মাইলখানেক বিস্তৃত হয়েছে। সাম্প্রতিক সময়ে জেগে উঠা দ্বীপগুলোর মধ্যে প্রশান্ত মহাসাগরীয় দেশ টোঙ্গা’র উপকূলবর্তী এই দ্বীপটি সর্বশেষ সংযোজন।

বৃহস্পতিবার নতুন দ্বীপের প্রথম ছবি প্রকাশ করেছে ব্রিটেনের দ্য টেলিগ্রাফ।  টোঙ্গা’র তিনজন পর্যটক গত শনিবার দ্বীপটিতে বেড়াতে গিয়ে এসব ছবি তুলেন।

পর্যটক টীমের প্রধান জিপি ওরবাসানো জানান, সেখানকার মাটি এখন খুব গরম এবং খুব কড়া এর মধ্যে থাকা একটি লেকের পানিতে সালফারের (একধরনের এসিড) কড়া গন্ধ বিদ্যমান।

টঙ্গোর মাতাঙ্গি অনলাইনকে দেয়া সাক্ষাৱকারে ওরাবাসানো বলেন, দিনটি দারুন ছিল! উজ্জল নীলাভ আকাশ এবং নীচে একই রঙের সমুদ্র। হাঁটা-চলার জন্য এখন সেটি নিরাপদ।

দ্বীপে আশ্রয় নিয়েছে হাজারো রকমের সামুদ্রিক পাখি। যেখানে সেখানে ডিমও পাড়ছে তারা। ওরাবাসানো মনে করেন, এটি একটি ভাল পর্যটন কেন্দ্র হতে পারে।

তবে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, আগামী কয়েক মাসের মধ্যে দ্বীপটি সাগরে তলিয়ে যেতে পারে।

টঙ্গোর সরকারি সুত্র জানিয়েছে, সুমদ্রপৃষ্ঠ থেকে প্রায় ৮২০ ফুট উঁচু দ্বীপটি আধা মাইল চওড়া এবং এক মাইল দীর্ঘ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *