সিঙ্গাপুর নিয়ে ২৬টি জানা-অজানা তথ্য
আন্তর্জাতিক

সিঙ্গাপুর নিয়ে ২৬টি জানা-অজানা তথ্য

সিঙ্গাপুর দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার ছোট্ট একটি দ্বীপ। আয়তন মাত্র ৭১৬ বর্গ কিলোমিটার। এটাকে কোন রাষ্ট্র না বলে নগরই বলা চলে। তবুও এই দ্বীপটিই আধুনিক পৃথিবীর সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বাণিজ্যকেন্দ্র। জেনে নিন, সিঙ্গাপুর নিয়ে ২৬টি জানা-অজানা তথ্য।

১. সিঙ্গাপুরের এক হাজার ডলারের নোটের পিছনে দেশের জাতীয় সঙ্গীত লেখা থাকে। সিঙ্গাপুরের জাতীয় সঙ্গীত হলো মালয় ভাষায়, ‘মাজুলা সিঙ্গাপুর’ (Majulah Singapura) বা সিঙ্গাপুর এগিয়ে চলো।

২. সিঙ্গাপুরে চারটি সরকারি ভাষা রয়েছে। ইংরেজি, মান্দারিন, মালয়ের সঙ্গে রয়েছে তামিল ভাষাও।

৩. সিঙ্গাপুরের নাগরিকরা বেশিরভাগ কথার শেষে ‘লা’ শব্দটি ব্যবহার করেন। এই যেমন ‘ওকে’কে বলেন ‘ওকে-লা’, ‘থ্যাঙ্কউ’ বলার সময় বলেন ‘থ্যাঙ্কউ-লা’।

৪. পাঁচ বা তার বেশি লোকজনের ক্ষেত্রে কোথাও জড়ো হতে গেলে পুলিসের নানা কড়া নিয়মাবলি মানতে হয়।

৫. সিঙ্গাপুরকে বলা হয় সিংহের শহর বা লায়ন সিটি। অথচ বাস্তবে গোটা সিঙ্গাপুরে একটাও সিংহ নেই।

৬. রাত দশটার পর দুজনের বেশি লোক জমায়েত হওয়া অবৈধ।

৭. সিঙ্গাপুরে মাত্র একটাই দল রয়েছে। দলটির নাম ‘পিপলস অ্যাকশন পার্টি’। ১৯৫৯ সাল থেকে ‘পিপলস অ্যাকশন পার্টি’ দেশের ক্ষমতায় রয়েছে। ভোট পরিচালনা করে এই দলই।

৮. সমকামিতা এখানে বেআইনি, তবে জুয়া আইনসিদ্ধ। ২০১০ সালে পাবলিক টয়েলটে ২৮ বছরের যুবকের সঙ্গে ওরাল সেক্স করার অপরাধে তিন হাজার ডলার জরিমানা হয় ৪০ বছরের এক পুরুষের।

৯. ১৯০৫ সাল থেকে মোট ছয় বার টাইম জোন পরিবর্তন করে সিঙ্গাপুর। ১৯৮২ সালে সিঙ্গাপুর শেষবার তাদের টাইম জোন পরিবর্তন করে। এখন সিঙ্গাপুরের স্ট্যানার্ড টাইম জিএমটি-র থেকে আট ঘণ্টা এগিয়ে।

১০. সিঙ্গাপুরের নাগরিকরা বিশ্বের মধ্যে সবচেয়ে দ্রুততম হাঁটা মানুষ (fastest walking speed)। ১০.৫৫ সেকেন্ডে সিঙ্গাপুরিয়ানরা হাঁটে ১৮ মিটার, মানে ঘণ্টায় ৬.১৫ কিলোমিটার। সেখানে ভারতীয়দের হাঁটার গতি ঘণ্টায় গড়ে ঘণ্টায় ৫ কিলোমিটার।

১১. ২০০৫ সালে জুয়াকে আইনসিদ্ধ করে সিঙ্গাপুর।

১২. নিজের ঘরের মধ্যে নগ্ন থাকলেও আইনত শাস্তি হতে পারে সিঙ্গাপুরের নাগরিকদের। কারণ আইনঅনুযায়ী নগ্ন অবস্থায় কেউ দেখে ফেললেই যিনি নগ্ন ছিলেন তার বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা যাবে।

১৩. সেক্স টয় বা অশ্লীল ম্যাগাজিন কেনা বেচার উপর কড়া নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। সেক্স টয় বা অশ্লীল ম্যাগাজিন কিনলে বা বেচলে তিন মাসের জেল ও মোটা টাকার জরিমানা হয়।

১৪. আত্মহত্যার চেষ্টা করা সিঙ্গাপুরে আইনবিরুদ্ধ কাজ। পেনাল কোডের ৩০৯ ধারায় আত্মহত্যার চেষ্টা করে ব্যর্থ হলে মানুষদের জেল হয় সিঙ্গাপুরে।

১৫. ইন্টারনেট পর্নোগ্রাফির ওপর কড়া নিষেধাজ্ঞা রয়েছে।

১৬. ইন্টারনেটে গান বা সিনেমা ডাউনলোড করা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ। ২০০৬ সালে সিঙ্গাপুরের দুই নাগরিককে গান ডাউনলোড করার অপরাধে গ্রেফতার করা হয়।

১৭. অনুমতি না নিয়ে কাউকে জড়িয়ে ধরা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।

১৮. সিঙ্গাপুরের ডাক নাম ফাইন সিটি বা জরিমানার শহর। কারণ বিভিন্ন ছোট ছোট কারণে এখানে জরিমানার ব্যবস্থা আছে।

১৯. বিশ্বের মধ্যে সবচেয়ে বেশি বজ্রপাত হওয়া জায়গা গুলির মধ্যে অন্যতম হলো সিঙ্গাপুর। বছরে গড়ে ১৭১ বার বাজ পড়ে এই শহরে।

২০. ১৯৯২ সাল থেকে সিঙ্গাপুরে চুইংগাম নিষিদ্ধ। কারণ চুইংগামে পথচারীদের অসুবিধা হয়।

২১. সিঙ্গাপুরিয়ানরা সন্ধ্যা সাড়ে সাতটের মধ্যে ডিনার সেরে ফেলেন।

২২. সিঙ্গাপুরে কোথাও কোথাও পার্কিংয়ের ক্ষেত্রে একটা গাড়ি সামনে, পরেরটা পিছনে, তারপরেরটা আবার সামনের দিকে মুখ করে রাখতে হয়।

২৩. কোটিপতি বাসিন্দার শতকরা হারের নিরিখে বিশ্বের মধ্যে শীর্ষে সিঙ্গাপুর। দেশের ছ জন গৃহস্থালির মধ্যে একজন এক মিলিয়ন ডলারের মালিক।

২৪. সিঙ্গাপুরে গরীবমুক্ত দেশ হিসাবে ঘোষণা করা হয়েছে।

২৫. সিঙ্গাপুরে সরকারি হাসপাতালে বিনা পয়সায় চিকিৎসা হয়। সরকারি স্কুলে শিশুদের পড়ার খরচ লাগে না।

২৬. সিঙ্গাপুরের চিড়িয়াখানায় কোনো খাঁচা নেই। পশুপাখিদের কার্যত উন্মুক্ত রাখা হয়। রাতে চিড়িয়াখানা খোলা থাকে, নাইট সাফারির ব্যবস্থা আছে।

শিরোনাম ডট কম
শিরোনাম ডট কম । অনলাইন নিউজ পোর্টাল Shironaam Dot Com । An Online News Portal
http://www.shironaam.com/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *