বাংলাদেশে যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত মার্শা বার্নিকাট আজ বুধবার রাষ্ট্রপতি মোঃ আব্দুল হামিদের কাছে তার পরিচয়পত্র পেশ করেছেন।
জাতীয়

সহিষ্ণু বাংলাদেশ গড়ার কথা বললেন বার্নিকাট

বাংলাদেশে যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত মার্শা বার্নিকাট আজ বুধবার রাষ্ট্রপতি মোঃ আব্দুল হামিদের কাছে তার পরিচয়পত্র পেশ করেছেন।বাংলাদেশে যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত মার্শা বার্নিকাট আজ বুধবার  রাষ্ট্রপতি মোঃ আব্দুল হামিদের কাছে তার পরিচয়পত্র পেশ করেছেন।

রাষ্ট্রদূত বার্নিকাট রাষ্ট্রপতি হামিদকে বাংলাদেশের প্রসারে সহযোগিতা করার তার ইচ্ছার কথা  জানান যা নিরাপদ ও সহিষ্ণু, মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হওয়ার লক্ষ্যে অগ্রসরমান , জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবের সাথে খাপ খাইয়ে নিতে ও অন্যান্য প্রাকৃতিক দুর্যোগ প্রতিরোধে সাড়া দিতে প্রস্তুত এবং যা সুস্বাস্থ্যের অধিকারী ও শিক্ষার পর্যাপ্ত সুযোগপ্রাপ্ত জনগোষ্ঠীকে সহায়তা করে।  এছাড়াও রাষ্ট্রদূত বার্নিকাট যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাষ্ট্রের জনগণ, বাংলাদেশ ও বাংলাদেশী জনগণের এবং একই সাথে   আঞ্চলিক ও বিশ্ব সম্প্রদায়ের স্বার্থে যুক্তরাষ্ট্র-বাংলাদেশের শক্তিশালী সম্পর্কের উপর জোর দেন।

রাষ্ট্রপতি ভবনে তিনি বলেন, “বাংলাদেশকে আমরা এই অঞ্চলের একটি গুরুত্বপূর্ণ  অংশীদার হিসেবে  দেখি, এবং আমরা জানি যে  উভয় দেশের জনগণই উপকৃত হয় যখন আমরা একসঙ্গে কাজ করি, যা আমরা অনেক বিষয়েই করে থাকি।”

রাষ্ট্রদূত মার্শা স্টিফেনস ব্লুম বার্নিকাট গত ২৫ জানুয়ারি ঢাকায় এসে পৌঁছান।  একজন মিনিস্টার-কাউন্সিলর পর্যায়ের পেশাদার উর্ধ্বতন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সদস্য হিসেবে রাষ্ট্রদূত বার্নিকাট সর্বশেষ ২০১২ সাল থেকে যুক্তরাষ্ট্র পররাষ্ট্র দপ্তরের মানবসম্পদ ব্যুরোতে উপ-সহকারী মন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।  এর আগে ২০০৮ থেকে ২০১১ সাল পর্যন্ত তিনি সেনেগাল ও গিনি-বিসাউ -এর রাষ্ট্রদূত হিসেবে কাজ করেছেন।  রাষ্ট্রদূত বার্নিকাটের দক্ষিণ-এশিয়া অঞ্চলেও কাজ করার অভিজ্ঞতা রয়েছে।  তিনি অফিস ডিরেক্টর হিসেবে ২০০৬ থেকে ২০০৮ সাল পর্যন্ত সময়ে পররাষ্ট্র দপ্তরের দক্ষিণ এশিয়া বিষয়ক ব্যুরোতে ভারত, নেপাল, শ্রীলঙ্কা, মালদ্বীপ ও ভুটানের দায়িত্ব পালন করেছেন।  এছাড়াও ভারতের নয়া দিল্লিতে যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাসে ১৯৯২ সাল থেকে ১৯৯৫ সাল পর্যন্ত তিনি ডেপুটি পলিটিক্যাল কাউন্সিলরের দায়িত্ব পালন করেন।

জীবনবৃত্তান্ত
রাষ্ট্রদূত মার্শা স্টিফেনস ব্লুম বার্নিকাট, মিনিস্টার-কাউন্সিলর পর্যায়ের পেশাদার ঊর্ধ্বতন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সদস্য হিসেবে ২০১২ সাল থেকে যুক্তরাষ্ট্র পররাষ্ট্র দপ্তরের মানবসম্পদ ব্যুরোতে উপ-সহকারী মন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। সাবেক মিশন প্রধান ও দু’বার মিশন উপ-প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালনকালে রাষ্ট্রদূত বার্নিকাট, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিভিন্ন শাখায় তার দক্ষতা ও ব্যবস্থাপনার প্রমাণ রেখেছেন। ওয়াশিংটনে তার পূর্ববর্তী দায়িত্ব ও দক্ষিণ এশীয় অঞ্চলে কাজ করার পূর্ব অভিজ্ঞতা বাংলাদেশে দায়িত্ব পালনের তার জন্য প্রস্তুতি হিসেবে কাজ করবে।

২০০৮ থেকে ২০১১ সাল পর্যন্ত রাষ্ট্রদূত বার্নিকাট সেনেগাল এবং গিনি-বিসাউ এর রাষ্ট্রদূতের দায়িত্ব পালন করেছেন।  ২০০৬ থেকে ২০০৮ সাল পর্যন্ত পররাষ্ট্র দপ্তরের দক্ষিণ এশিয়া বিষয়ক ব্যুরোতে ভারত, নেপাল, শ্রীলঙ্কা, মালদ্বীপ ও ভুটানের অফিস ডিরেক্টর হিসেবে তিনি দায়িত্ব পালন করেছেন। এ ছাড়া  ২০০৪ থেকে ২০০৬ সাল পর্যন্ত পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মানবসম্পদ ব্যুরোতে উর্ধ্বতন পরিচালক এবং পেশাজীবী উন্নয়ন কর্মকর্তা হিসেবে কাজ করেছেন। তিনি বার্বাডোস যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাস (২০০১-২০০৪)  ও মালাওয়ি যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাসের (১৯৯৮-২০০১)  মিশন উপ-প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। মরোক্কোর কাসাব্লাঙ্কায় যুক্তরাষ্ট্র কনস্যুলেটের প্রধান কর্মকর্তা বা ‘প্রিন্সিপাল অফিসার’ (১৯৯৫-১৯৯৮),  ভারতের নয়া দিল্লি যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাসের ডেপুটি পলিটিক্যাল কাউন্সিলর (১৯৯২-১৯৯৫) হিসেবে কাজ করেছেন। এ ছাড়া পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পূর্ব ও দক্ষিণ এশিয়া বিষয়ক দপ্তরে ভারত ও নেপালের ডেস্ক অফিসার হিসেবে কাজ করেছেন। ডেপুটি সেক্রেটারি জন হোয়াইটহেড এর বিশেষ সহকারি, অপারেশন্স সেন্টারের পর্যবেক্ষণ কর্মকর্তা, ফ্রান্সের মার্সেই এর কনস্যুলার কর্মকর্তা ও মালির বামকোতে রাজনৈতিক/কনস্যুলার কর্মকর্তা হিসেবেও তিনি দায়িত্ব পালন করেছেন।

রাষ্ট্রদূত বার্নিকাট ১৯৭৫ সালে লাফায়েত কলেজ থেকে স্নাতক ও ১৯৮০ সালে জর্জটাউন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ফরেন সার্ভিসে স্নাতোকোত্তর ডিগ্রী অর্জন করেন। যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে কাজের স্বীকৃতি হিসেবে অসংখ্য পুরষ্কার পেয়েছেন বার্নিকট। পাঁচবার ‘সিনিয়র ফরেন সার্ভিস পারফরমেন্স অ্যাওয়ার্ড’, দু’বার ‘সুপিরিওর অনার অ্যাওয়ার্ড’, চারবার “মেরিটরিয়াস” ও একবার ‘ওয়ান গ্রুপ মেরিটরিয়াস অনার অ্যাওয়ার্ড’ পেয়েছেন। রাষ্ট্রদূত বার্নিকাট ফরাসি, হিন্দি ও রুশ ভাষায় পারদর্শী।

শিরোনাম ডট কম
শিরোনাম ডট কম । অনলাইন নিউজ পোর্টাল Shironaam Dot Com । An Online News Portal
http://www.shironaam.com/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *