সভাপতি শেখ হাসিনা, সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের

সভাপতি শেখ হাসিনা, সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের

সভাপতি শেখ হাসিনা, সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেররোববার আওয়ামী লীগের ২০তম কাউন্সিল অধিবেশনের দ্বিতীয় দিন আওয়ামী লীগের সভাপতি পদে পুনঃনির্বাচিত হয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আর সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন ওবায়দুল কাদের।

রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনে সম্মেলনের দ্বিতীয় দিন রোববার বিকালে সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী সভাপতি পদে শেখ হাসিনার নাম প্রস্তাব করেন। এ পদে আর কোনো নাম প্রস্তাব না পাওয়ায় শেখ হাসিনাকে আওয়ামী লীগের সভাপতি হিসেবে নির্বাচন কমিশনার ইউসুফ হোসেন হুমায়ুন শেখ হাসিনার নাম ঘোষণা করেন।

এরপরই বিদায়ী সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম সাধারণ সম্পাদক হিসেবে ওবায়দুল কাদেরের নাম প্রস্তাব করলে তাতে সমর্থন জানান জাহাঙ্গীর কবির নানক। এই পদেও বিকল্প কোনো নাম প্রস্তাব না আসায় সড়ক পরিবহনমন্ত্রী কাদেরকে সাধারণ সম্পাদক পদে নির্বাচিত ঘোষণা করেন ইউসুফ হোসেন হুমায়ুন।

সদ্য সাবেক সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম দলের প্রেসিডিয়াম সদস্য হয়েছেন।

১৯৮১ সালে আওয়ামী লীগের সভাপতির দায়িত্ব নেন শেখ হাসিনা। এরপর ১৯৮৭, ১৯৯২, ১৯৯৭, ২০০২, ২০০৯ ও ২০১২ সালে সভাপতি নির্বাচিত হন শেখ হাসিনা। এ নিয়ে টানা অষ্টমবারের মতো দলটি প্রধানের দায়িত্ব নিয়েছেন শেখ হাসিনা।

প্রথমবারের মতো আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হলেন ওবায়দুল কাদের। তিনি নোয়াখালী-৫ আসন থেকে নির্বাচিত সংসদ সদস্য। বর্তমানে তিনি সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করছেন।

১৯৭৫ সালের পর ওবায়দুল কাদের ছাত্রলীগের সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন। ২০০২ সালে তিনি আওয়ামী লীগের প্রথম যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। ২০০৯ ও ২০১২ সালে ওবায়দুল কাদের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

আওয়ামী লীগের নতুন কমিটিকে অভিনন্দন জানিয়েছে বিএনপি

আওয়ামী লীগের নতুন কমিটিকে অভিনন্দন জানিয়েছে বিএনপি। একই সঙ্গে আওয়ামী লীগের এ নেতৃত্বের কাছে গণতন্ত্র ও ভোটের অধিকার ফিরিয়ে আনার আহ্বানও জানিয়েছে দলটি।

রোববার রাজধানীতে এক অনুষ্ঠানে এই অভিনন্দন ও প্রত্যাশার কথা জানান বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। দেশে গণতান্ত্রিক পরিবেশ না থাকায় বিএনপি আওয়ামী লীগের সম্মেলনে যায়নি বলেও জানিয়েছে দলটি।

চলচ্চিত্রকার চাষী নজরুল ইসলামের ৭৫তম জন্মদিন উপলক্ষে আয়োজিত এই আলোচনা সভায় তখন বক্তব্য দিচ্ছিলেন মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। ঠিক ওই সময়ই মহাসচিবের কানে পৌঁছায় আওয়ামী লীগের নতুন কমিটির খবর।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *