বাংলাদেশের চলমান রাজনৈতিক সংকট নিরসনে সংলাপের উদ্যোগ নেয়ার জন্য জাতিসংঘ মহাসচিব বান কি-মুনের কাছে একটি চিঠি পাঠিয়েছেন অধ্যাপক এমাজউদ্দীন আহমেদ।
জাতীয়

সংলাপের উদ্যোগ চেয়ে মুনকে এমাজউদ্দীনের চিঠি

বাংলাদেশের চলমান রাজনৈতিক সংকট নিরসনে সংলাপের উদ্যোগ নেয়ার জন্য জাতিসংঘ মহাসচিব বান কি-মুনের কাছে একটি চিঠি পাঠিয়েছেন অধ্যাপক এমাজউদ্দীন আহমেদ।বাংলাদেশের চলমান রাজনৈতিক সংকট নিরসনে  আওয়ামী লীগ ও বিএনপির মধ্যে সংলাপের উদ্যোগ নেয়ার জন্য জাতিসংঘ মহাসচিব বান কি-মুনের কাছে একটি চিঠি পাঠিয়েছেন বিশিষ্ট রাষ্ট্রবিজ্ঞানী এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক এমাজউদ্দীন আহমেদ।

বুধবার বেলা আড়াইটায় বাংলাদেশে জাতিসংঘের আবাসিক প্রতিনিধি ক্রিস্টিনা রেডার কাছে তিনি এ চিঠি তুলে দেন। চিঠি দিয়ে জাতিসংঘ অফিস থেকে বের হওয়ার পর সাংবাদিকদের কাছে ড. এমাজউদ্দীন বলেন, দেশে যে সহিংস পরিস্থিতি চলছে তাতে দুই দলের সংলাপ ছাড়া সমাধানের কোনো বিকল্প নেই। ইতিপূর্বে জাতিসংঘের কর্মকতা অস্কার ফার্নান্দেজ তারানাকো এসে দুই দলের মধ্যে সংলাপের আয়োজন করেছিলেন। জাতিসংঘের উদ্যোগে আবারো যেন সংলাপের আয়োজন করা হয় সেজন্য জাতিসংঘ মহাসচিবকে চিঠি দিয়েছি।

তিনি বলেন, ক্রিস্টিনা অত্যন্ত আন্তরিকভাবে চিঠিটি গ্রহণ করেছেন এবং তা জাতিসংঘ মহাসচিবের কাছে আজই পৌঁছে দেবেন বলে জানিয়েছেন।

তার নামে করা মামলা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, এই বয়সে মামলা নিয়ে ভাবি না। কেন কি কারণে তারা মামলা দিয়েছে তা বুঝে আসে না।

এর আগে বিএনপির অন্যতম থিঙ্ক ট্যাঙ্ক হিসেবে খ্যাত এই রাষ্ট্রবিজ্ঞানী বলেছেন, জাতীয় ঐকমত্যের সরকার ছাড়া বর্তমান সংকট নিরসন সম্ভব নয়। রাষ্ট্রপতি অধ্যাদেশ জারির মাধ্যমে এ ধরনের গঠন করতে পারেন বলেও মত দিয়েছেন তিনি।

জাতিসংঘের মহাসচিব ২০১৩ সালে রাজনৈতিক সমঝোতার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে টেলিফোন করেছিলেন। তিনি জাতিসংঘের সহকারি মহাসচিব অস্কার ফার্নান্দেজ তারানকোকে মধ্যস্থতার জন্য বাংলাদেশে পাঠিয়ৈছিলেন। তবে সেই উদ্যোগ ব্যর্থতায় পর্যবসিত হয়।

সম্প্রতি বাংলাদেশ পরিস্থিতিতে আবার উদ্বেগ প্রকাশ করেছে জাতিসংঘ।

শিরোনাম ডট কম
শিরোনাম ডট কম । অনলাইন নিউজ পোর্টাল Shironaam Dot Com । An Online News Portal
http://www.shironaam.com/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *