‘সংকট সমাধানে আমরা ঐক্যবদ্ধ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি’ বলে মন্তব্য করেছেন গণফোরামের সভাপতি ড. কামাল হোসেন।
জাতীয়

‘সংকট সমাধানে ঐক্যবদ্ধ চেষ্টা চলছে’

‘সংকট সমাধানে আমরা ঐক্যবদ্ধ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি’ বলে মন্তব্য করেছেন গণফোরামের সভাপতি ড. কামাল হোসেন।‘সংকট সমাধানে আমরা ঐক্যবদ্ধ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি’ বলে মন্তব্য করেছেন গণফোরামের সভাপতি ড. কামাল হোসেন। বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার ছোট ছেলে আরাফাত রহমান কোকোর মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করতে এসে গুলশান কার্যালয়ে উপস্থিত সাংবাদিকদের উদ্দেশে তিনি এ মন্তব্য করেন।

ড. কামাল বলেন, ‘আমরা ঐকবদ্ধভাবে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। মান্না ভাই (নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না) আছেন, আরো অনেকে আমাদের সঙ্গে আছেন।’

তিনি বলেন, ‘আমরা চাই দেশে সুষ্ঠু গণতান্ত্রিক অবস্থা ফিরে আসুক। দেশের ১৬ কোটি মানুষও এটা চাই।’

২০ দলীয় জোট ঘোষিত কর্মসূচিতে একাত্মতা প্রকাশ করতে বিএনপি চেয়ারপারসনের গুলশান কার্যালয়ে এসেছেন কীনা- সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘আমরা খালেদা জিয়ার ছোট ছেলে কোকোর অকাল মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করতে এসেছি। কোকোর জন্য খোলা শোক বইতে স্বাক্ষর করেছি। কোনো রাজনৈতিক আলোচনা করতে আসিনি।’

আলোচনার কোনো উদ্যোগ আছে কীনা- এমন প্রশ্নের জবাবে ড. কামাল বলেন, ‘হ্যাঁ আলোচনার উদ্যোগ আছে। আমরা সবাই মিলে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি।’

প্রসঙ্গত, সর্বশেষ ১৯৯১ সালে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা হয় ড. কামাল হোসেনের। এর আগে এরশাদবিরোধী আন্দোলনে তাদের মধ্যে সাক্ষাৎ হয়।

খালেদা জিয়ার ছোট ছেলে আরাফাত রহমান কোকোর মৃত্যুতে শোক জানাতে শুক্রবার রাত ৭টার দিকে গুলশান কার্যালয়ে আসেন ড. কামাল হোসেন। এ সময় গণফোরামের সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা মোহসিন ও সাবেক সংসদ সদস্য সুলতান মোহাম্মদ মনসুরসহ পাঁচজন উপস্থিত ছিলেন।

তাদের প্রবেশের কিছুক্ষণ পর নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না খালেদা জিয়ার কার্যালয়ে প্রবেশ করেন। রাত সাড়ে ৭টার দিকে তারা বের হয়ে যান।

এর আগে সন্ধ্যা সাতটায় গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে যান গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন, নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, সাবেক আওয়ামী লীগ নেতা সুলতান মোহাম্মদ মনসুর, গণফোরামের মহাসচিব মোস্তফা মহসিন মন্টু, প্রেসিডিয়াম সদস্য অ্যাডভোকেট সুব্রত চৌধুরী, জগলুল হায়দার আফ্রি, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আওম শফিকুল্লাহ প্রমুখ।

তারা প্রায় ৩০ মিনিট খালেদা জিয়ার সঙ্গে বৈঠক করেন। এরপর তারা খালেদা জিয়ার ছোট ছেলে আরাফাত রহমান কোকোর স্মরণে খোলা শোকবইয়ে স্বাক্ষর করেন।

শোক বইয়ে স্বাক্ষরের সময় বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা সাবিহ উদ্দিন আহমেদ, আন্তর্জাতিকবিষয়ক সম্পাদক গিয়াস কাদের চৌধুরী, প্রেস সচিব মারুফ কামাল খান, বিশেষ সহকারী শামসুর রহমান শিমুল বিশ্বাস, নির্বাহী কমিটির সদস্য শ্যামা ওবায়েদ, চেয়ারপারসনের প্রেস উইংয়ের কর্মকর্তা শায়রুল কবির খান, সামসুদ্দিন দিদার প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এরশাদবিরোধী আন্দোলনের সময়ে বেগম খালেদা জিয়ার সঙ্গে ড. কামাল হোসেনের একাধিকবার সাক্ষাৎ হয়েছে। ১৯৯১ পর সালের পর বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সঙ্গে এটি তার প্রথম সাক্ষাৎ।

শিরোনাম ডট কম
শিরোনাম ডট কম । অনলাইন নিউজ পোর্টাল Shironaam Dot Com । An Online News Portal
http://www.shironaam.com/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *