শ্রীলঙ্কা ১৪৮ রানে জয়ী

নিজেদের শেষ ম্যাচে স্কটল্যান্ডকে ১৪৮ রানের বড় ব্যবধানে হারিয়েছে গত আসরের রানার্স আপ শ্রীলঙ্কা।

নিজেদের শেষ ম্যাচে স্কটল্যান্ডকে ১৪৮ রানের বড় ব্যবধানে হারিয়েছে গত আসরের রানার্স আপ শ্রীলঙ্কা। নিজেদের শেষ ম্যাচে স্কটল্যান্ডকে ১৪৮ রানের বড় ব্যবধানে হারিয়েছে গত আসরের রানার্স আপ শ্রীলঙ্কা।

বুধবার কুমার সাঙ্গাকারার রেকর্ড সেঞ্চুরি ও তিলকরত্নে দিলশানের ২২তম সেঞ্চুরিতে জয়ের জন্য স্কটিশদের ৩৬৪ রানের লক্ষ্য ছুড়ে দিয়েছে অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুসের দল। জবাবে ৪৩.১ ওভারে ২১৫ রানে অলআউট হয়েছে স্কটল্যান্ড। ফলে ১৪৮ রানের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ার পাশাপাশি ৬ ম্যাচে ৮ পয়েন্ট নিয়ে ‘এ’ গ্রুপের পয়েন্ট টেবিলের দ্বিতীয়স্থান দখল করেছে শ্রীলঙ্কা। অবশ্য অস্ট্রেলিয়া ও বাংলাদেশ গ্রুপপর্বে নিজেদের নিজ নিজ শেষ ম্যাচে জয় পেলে টেবিলের চতুর্থ দল হিসেবে কোয়ার্টার ফাইনালে খেলবে লঙ্কানরা।

অস্ট্রেলিয়ার হোবার্টে টসে জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছে শ্রীলঙ্কা। শুরুটা ভাল না হলেও কুমার সাঙ্গাকারা ও তিলকারত্নে দিলশানের সেঞ্চুরিতে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৯ উইকেট ৩৬৩ রান করেছে ম্যাথুসের দল। এই ম্যাচে সেঞ্চুরির মাধ্যমে ওয়ানডের ইতিহাসে একমাত্র ব্যাটসম্যান হিসেবে টানা ৪ সেঞ্চুরির রেকর্ড গড়েছেন সাঙ্গাকারা। আর শ্রীলঙ্কা গড়েছে ওয়ানডে ম্যাচে স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে যে কোনো দলের সর্বোচ্চ রান সংগ্রহের রেকর্ড।

দিনের শুরুতে ব্যাটিংয়ে নেমে দলীয় ২১ রানের মধ্যেই প্রথম উইকেট হারিয়েছে শ্রীলঙ্কা। ইভান্সের বলে মমসেনের হাতে তালুবন্দী হয়েছেন ওপেনার লাহিরু থিরিমান্নে (৪ রান)।

তবে রানের গতি শ্লথ হয়নি শ্রীলঙ্কার। দিলশান ও অভিজ্ঞ কুমার সাঙ্গাকারার ব্যাটিংয়ে লড়াইয়ের বড় পুঁজি পেয়েছে লঙ্কানরা। দু’জনে মিলে গড়েছেন ১৯৫ রানের জুটি। স্কটিশ বোলার ডাবির বলে উইকেটের পেছনে ক্যাচ দেওয়ার আগে ১২৪ রান (৯৫ বলে) করেছেন সাঙ্গাকারা। এর মাধ্যমে বিশ্বকাপ তথা ওয়ানডের ক্রিকেটে প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে টানা চতুর্থ সেঞ্চুরির করার বিরল রেকর্ড সঙ্গী হয়েছে সাঙ্গাকারার। আর দিলশান করেছেন ১০৪ (৯৯ বলে) রান। তিনিও আউট হয়েছেন ডাবির বলে।

তাদের বিদায়ের পর অধিনায়ক ম্যাথুস (৫১ রান) ও কুশল পেরেরা (২৪ রান) ব্যাটিংয়ে ৯ উইকেটে ৩৬৩ রান করেছে তারা। স্কটল্যান্ডের পক্ষে সর্বোচ্চ ৩ উইকেট নিয়েছেন জোস ডেবি। আপাতত চলমান বিশ্বকাপ ক্রিকেটে সর্বোচ্চ উইকেট শিকারী বোলারের তালিকায় শীর্ষস্থান দখল করেছেন তিনি।

পাহাড়সম রানে চাপা পড়া স্কটিশদের ব্যাটিংয়ের শুরুটা মোটেও ভাল হয়নি। স্কোরবোর্ডে কোনো রান যোগ হওয়ার আগেই ইনিংসের দ্বিতীয় বলে আউট হয়েছেন ওপেনার কেইল কোয়েটজার। লাসিথ মালিঙ্গার বলে কট অ্যান্ড বোল্ড হয়েছেন তিনি। দলীয় ২৬ রানে দ্বিতীয় এবং ৪৪ রানে তৃতীয় উইকেট হারিয়েছে স্কটল্যান্ড। তবে অধিনায়ক মমসেন ও মিডলঅর্ডার ব্যাটসম্যান ফ্রেডি কোলম্যান ১১৮ রানের জুটি গড়েছেন। তবে শ্রীলঙ্কার বড় জয়ের পথে তা খুব একটা বাধা হয়ে দাঁড়াতে পারেনি। কোলম্যান করেছেন ৭০ রান ও মমসেন খেলেছেন ৬০ রানের ইনিংস। স্কটল্যান্ডের বাকি ব্যাটসম্যানদের কেউই আর কোনো বড় ইনিংস উপহার দিতে পারেননি। শেষ অবদি ম্যাচের ৪১ বল বাকি থাকতে ২১৫ রানে গুটিয়ে গেছে স্কটল্যান্ডের ইনিংস।

শ্রীলঙ্কার পক্ষে ৩টি করে উইকেট নিয়েছেন নুয়ান কুলাসেকেরা ও দাসমান্থ চামিরা। মালিঙ্গা নিয়েছেন ২ উইকেট।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

শ্রীলঙ্কা : ৩৬৩/৯, ওভার ৫০ (সাঙ্গাকারা ১২৪, দিলশান ১০৪, ম্যাথুস ৫১; ডাবি ৩/৬৩)

স্কটল্যান্ড : ২১৫/১০, ওভার ৪৩.১ (কোলম্যান ৭০, মমসেন ৬০; কুলাসেকেরা ৩/২০, দাসমান্থ ৩/৫৭, মালিঙ্গা ২/২৯)

ফল : শ্রীলঙ্কা ১৪৮ রানে জয়ী

পয়েন্ট : শ্রীলঙ্কা ২, স্কটল্যান্ড ০

ম্যাচ সেরা : কুমার সাঙ্গাকারা (শ্রীলঙ্কা)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *