শোলাকিয়ায় বোমা হামলায় পুলিশসহ নিহত ৪
সারাদেশ

শোলাকিয়ায় বোমা হামলায় পুলিশসহ নিহত ৪

শোলাকিয়ায় বোমা হামলায় পুলিশসহ নিহত ৩শোলাকিয়া ঈদগাহ ময়দানের প্রবেশপথে বোমা হামলায় ঘটনায় জহিরুল ইসলাম ও আনছারুল ইসলাম নামে দুই পুলিশ সদস্য, ঝর্ণা রানী নামে এক হিন্দু নারী ও এক হামলাকারী নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন প্রায় ১২ জন।

বৃহস্পতিবার সকাল ৯টার দিকে আজিমুদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনে এ হামলা হয়।

প্রত্যক্ষদর্শী ও সংশ্লিষ্ট সুত্রে জানা গেছে, শোলাকিয়া ঈদগাহে প্রবেশপথের প্রায় একশ গজ দূরে চেকপোস্টেপুলিশের সদস্যরা চেক করার সময় একদল সন্ত্রাসী পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোঁড়ে। পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। এ সময় সন্ত্রাসীরা হাতবোমার বিস্ফোরণ ঘটনায়। এতে পুলিশ সদস্যরা ছত্রভঙ্গ হয়ে যায়। এ সময় সন্ত্রাসীরা পুালিশ সদস্যেকে কুপিয়ে আহত করে। এসব ঘটনায় ৮ পুলিশসহ ১২ জন আহত হন। আহতদের উদ্ধার করে কিশোরগঞ্জ সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক পুলিশ সদস্য জহিরুল ইসলামকে মৃত ঘোষণা করেন। পরবর্তীতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আানছারুল ইসলাম নামে আরও এক পুলিশ সদস্য মারা যান।

গুলশানের হলি আর্টিসান বেকারি রেস্টুরেন্টে হামলার ৬ষ্ঠ দিনে ঈদ জামাতে এ বর্বর হামলার ঘটনা ঘটল।

নিহতদের মধ্যে জহুরুল হক (৩০) পুলিশের কনস্টেবল। নিহত আরেকজনের পরিচয় জানা যায়নি। হামলাস্থল থেকে চাপাতি ও বোমাসদৃশ বিস্ফোরক উদ্ধার করা হয়েছে। এ ছাড়া গুলিসহ একটি রিভলবার উদ্ধার করা হয়েছে।

ডেপুটি সিভিল সার্জন হাবিবুর রহমান সাংবাদিকদের জানান, হামলার পর ১৩ জনকে কিশোরগঞ্জ সদর হাসপাতালে নেয়া হলে জহুরুল হককে মৃত ঘোষণা করা হয়।

তিনি জানান পরে আহতদের মধ্যে ছয় পুলিশ সদস্যকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

ঘটনার পর শোলাকিয়া মাঠে উপস্থিত পুলিশ সুপার আনোয়ার হোসেন খান হাসপাতালে ছুটে যান।

এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, সকাল ১০টায় শোলাকিয়ায় ঈদ জামাতের আগে আজিমুদ্দিন স্কুলের পাশে টহল দিচ্ছিল একদল পুলিশ। এ সময় অজ্ঞাত দুর্বৃত্তরা বোমা মেরে পালিয়ে যায়।

সকাল ৯টার দিকে শোলাকিয়ায় ঈদ জামাতে ইমামতি করতে স্থানীয় সার্কিট হাউসে পৌঁছান আল্লামা ফরিদ উদ্দীন মাসঊদ। ঈদগাহর পথে যাওয়ার জন্য প্রস্তুতি নেয়ার সময়ই খবর আসে ঈদগাহর প্রবেশপথে বোমাহামলা হয়েছে। এতে প্রশাসনের পক্ষ থেকে তাকে সেখানে যাওয়ার অনুমতি দেয়া হয়নি। প্রধান ইমামের অনুপস্থিতিতে আর একজন ইমাম ঈদের নামাজে ইমামতি করেন।

আল্লামা ফরিদ উদ্দীন মাসঊদের ব্যক্তিগত সহকারী আবদুল্লাহ শাকের জানিয়েছেন, ‘হুজুর (আল্লামা ফরিদ উদ্দীন মাসঊদ) সার্কিট হাউসে অবস্থান করছেন। তিনি নিরাপদে আছেন।’

সোয়া ১১টার দিকে কিশোরগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মীর মোশাররফ হোসেন বলেছেন, ‘এখনও গোলাগুলি চলছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে বিজিবি ও র‌্যাব কাজ করছে।’

শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত পুলিশ শোলাকিয়া মাঠে যাওয়ার প্রধান রাস্তা স্টেশন রোড, গৌরাঙ্গবাজারের আশপাশের সব রাস্তা বন্ধ করে দিয়েছে। ঘটনাস্থল আইনশৃঙ্খলাবাহিনীর সদস্যরা ঘিরে রেখেছেন।

আওয়ামী লীগ নেতাসহ আটক ৪

শোলাকিয়া ঈদগাহে টহলরত পুলিশের ওপর বোমা হামলার ঘটনায় এক আওয়ামী লীগ নেতাসহ ৪ জনকে আটক করেছে পুলিশ।

বোমা হামলা ও গোলাগুলির পর সন্ত্রাসীরা আশ্রয় নিয়েছে এমন সন্দেহে স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা ও করিমগঞ্জের গুণধর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের চেয়ারম্যান প্রার্থী আব্দুল হান্নান ভূইয়া বাবুলের বাড়ি ঘিরে রেখেছে পুলিশ ও র‌্যাব।

পুলিশ ওই বাড়ি থেকে বাবুলসহ আরও তিনজনকে আটক করেছে। এছাড়া সন্ত্রাসী সন্দেহে আরও একজনকে আটক করেছে পুলিশ।

শিরোনাম ডট কম
শিরোনাম ডট কম । অনলাইন নিউজ পোর্টাল Shironaam Dot Com । An Online News Portal
http://www.shironaam.com/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *