শিক্ষিকাকে লাঞ্ছনাকারী ছাত্রলীগ নেতা আজীবন বহিষ্কার

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের লোক প্রশাসন বিভাগের শিক্ষিকাকে লাঞ্ছিত করার ঘটনায় ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের ছাত্র আরজ মিয়া জিয়াকে আজীবন বহিষ্কার করা হয়েছে।

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের লোক প্রশাসন বিভাগের শিক্ষিকাকে লাঞ্ছিত করার ঘটনায় ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের ছাত্র আরজ মিয়া জিয়াকে আজীবন বহিষ্কার করা হয়েছে।জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) লোক প্রশাসন বিভাগের শিক্ষিকাকে লাঞ্ছিত করার ঘটনায় ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের ছাত্র আরজ মিয়া জিয়াকে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আজীবন বহিষ্কার করা হয়েছে। তিনি বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদকের দায়িত্বে ছিলেন।

যৌন নিপীড়ন প্রতিরোধকল্পে সুপ্রিমকোর্টের হাইকোর্ট ডিভিশনের রিট পিটিশনের (নম্বর ৫৯১৬/২০০৮) রায়ে বর্ণিত নির্দেশনার আলোকে অভিযোগ কমিটি (কমপ্লেইন কমিটি) গঠন করা হয়েছিল। কমিটির সুপারিশের পরিপ্রেক্ষিতে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় আইন-২০০৫-এর ১১ (১০) ধারায় বর্ণিত উপাচার্য প্রদত্ত ক্ষমতাবলে আরজ মিয়াকে আজীবনের জন্য বহিষ্কার করা হয়েছে। আরজ মিয়া ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের ২০০৯-১০ শিক্ষাবর্ষের ছাত্র।

গত ২৬ এপ্রিল বিশ্ববিদ্যালয়ের লোকপ্রশাসন বিভাগের শিক্ষিকা লুবনা জেবিনকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করেন আরজ মিয়া।

শিক্ষিকার অভিযোগ, বিশ্ববিদ্যালয় মসজিদের সামনে আরজ মিয়া তাঁর পথরোধ করে এবং একপর্যায়ে ওই ছাত্রলীগ নেতা তাকে চড় মারেন, গায়ের কাপড় ধরে টানাটানি ও শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করেন। এর পাল্টা হিসেবে শিক্ষিকা নিজেও আরজ মিয়াকে চড় মারেন এবং কলার চেপে তাকে প্রক্টরের অফিসে নিয়ে আসেন। এরপর ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর আরজ মিয়াকে পুলিশের হাতে তুলে দেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *