সিরিজ জিতে শততম জয় পেয়েছে বাংলাদেশ
খেলা

সিরিজ জিতে শততম জয় পেয়েছে বাংলাদেশ

সিরিজ জিতে শততম জয় পেয়েছে বাংলাদেশআফগানিস্তানের বিপক্ষে সিরিজ জিতে শততম জয় পেয়েছে বাংলাদেশ। মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে সফরকারীদের বিপক্ষে বাংলাদেশ জয় পেয়েছে ১৪১ রানের বিশাল ব্যবধানে।

টসে জিতে প্রথমে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় টাইগার অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা। ব্যাটিং করতে নেমে ৮ উইকেট হারিয়ে স্বাগতিকরা সংগ্রহ করেছিল ২৭৯ রান। জয়ের জন্যে ২৮০ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে ৩৩.৫ ওভারে ১৩৮ রানে গুটিয়ে যায় আফগানরা। আফগানিস্তানের পক্ষে সর্বোচ্চ রান এসেছে রহমত শাহের ব্যাট থেকে। ৭৩ বল খেলে তিনি করেছেন ৩৭ রান।

আট বছর পর মাঠে নেমে বাংলাদেশের পক্ষে সর্বোচ্চ ৩টি উইকেট নিয়েছেন লেগ স্পিনার মোশাররফ হোসেন। দুটি উইকেট নিয়েছেন তাসকিন আহমেদ। এ ছাড়া এদিন বাংলাদেশের পক্ষে প্রথম উইকেটটি নিয়েছেন অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা। একটি করে উইকেট নিয়েছেন শফিউল ইসলাম ও মোসাদ্দেক হোসেন। সাকিব আল হাসানের উইকেট শূন্য থাকলেও আফগানদের গুরুত্বপূর্ণ আসগার স্ট্যানিকজাইকে দুর্দান্ত রান আউট করেছেন তিনি।

দুর্দান্ত এক সেঞ্চুরি করে ম্যান অব দ্য ম্যাচ নির্বাচিত হয়েছেন বাংলাদেশ দলের ওপেনার তামিম ইকবাল।

এই জয়ে ৩ ম্যাচের সিরিজটি বাংলাদেশ জিতেছে ২-১ ব্যবধানে। যা টাইগারদের শততম আন্তর্জাতিক ওয়ানডে জয়।

খেলা শুরুর ৫ ওভারের মধ্যে ১১ বলে ১১ রান করে সাজঘরে ফিরে যান ওপেনার সৌম্য সরকার। এরপর দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে শত রান পূর্ণ করার পর নিজের তৃতীয় ওয়ানডে হাফসেঞ্চুরি তুলে ব্যক্তিগত ৬৫ রানে দারুণ এক ভিত গড়ে ফিরে যান সাব্বির রহমান। অন্যদিকে ১১০ বলে সেঞ্চুরি পূর্ণ করেছেন অপর ওপেনার তামিম ইকবাল। যেটি তামিমের ওয়ানডে ক্যারিয়ারে সপ্তম সেঞ্চুরি। পরে ১১৮ রান করে মোহাম্মদ নবীর বলে ক্যাচ আউট হয়ে সাজঘরে ফিরে যান তিনি। ১১৮ বল খেলে এই ইনিংসে তিনি মারেন ২টি ছক্কা ও ১১টি চারের মার। এ ছাড়া ১৭ রানে সাকিব আল হাসান, ১১ রানে মুশফিক, মোসাদ্দেক হোসেন ৪, মোশাররফ হোসেন রুবেল ৪ ও অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা ২ রান করে ফিরে যান সাজঘরে।

নির্ধারিত ৫০ ওভার শেষে ২২ বলে ৪টি বাউন্ডারির সাহায্যে ৩২ রান করে অপরাজিত রয়েছেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। আর ২ রান নিয়ে অপরাজিত ছিলেন শফিউল ইসলাম।

আফগানদের পক্ষে দুটি করে উইকেট নিয়েছেন মোহাম্মদ নবী, মিরওয়াইজ আশরাফ ও রাশিদ খান।

ভক্তের প্রতি মাশরাফির ভালোবাসা

আফগানিস্তানের বিপক্ষে সিরিজের শেষ ম্যাচ চলাকালে নাছোড় ভক্ত মেহেদি হাসানের কবলে পড়েছেন মাশরাফি। তবে ভক্তের ভক্তির প্রতি ভালোবাসা জানিয়ে এ সময় অনন্য এক দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন মাশরাফি।

স্কোর বোর্ডে তাদের সংগ্রহ তখন ১০২ রান। ব্যাটিংয়ে দৌলত জাদরান ও রাশিদ খান। ২৯তম ওভারে তৃতীয় বল করতে দৌড় শুরু করলেন পেসার তাসকিন আহমেদ। এরই মধ্যে আম্পায়ার হঠাৎই বোলিং থামানোর নির্দেশ দিলেন। টিভি ক্যামেরা ততক্ষণে নিরাপত্তা ভেঙে মাঠে ঢুকে পড়া একটি দর্শকের দিকে। সবার চোখে তখন পড়লো পাগল এক ভক্তের মাশরাফির বুকে আছড়ে পড়ার দৃশ্য। মাশরাফি পরম যত্নে ভক্তকে বুকে নিয়ে ইচ্ছা পূরণ করলেন। এরই মধ্যে পেছনে ছুটে আসা নিরাপত্তাকর্মীরা কলার ধরে মাঠ থেকে নাছোড় মেহেদি হাসানকে বের করার চেষ্টা করলে তাতে বাধা দেন মাশরাফি।

ভক্তের ভালাবাসার প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে আরও একবার নিজেকে স্মরণীয় করে রাখলেন জাতীয় দলের এই সফলতম অধিনায়ক।

মোশাররফের রেকর্ড

মিরপুর স্টেডিয়ামে বাংলাদেশের জার্সি গায়ে খেলতে নেমেছেন বাঁহাতি অলরাউন্ডার মোশাররফ হোসেন রুবেল ৩৪ বছর ৩১৬ দিন বয়সে। বেশি বয়সের হিসেবে বাংলাদেশের ক্রিকেটে সেরা দশেই থাকছেন তিনি। তবে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে প্রত্যাবর্তনের হিসেবে সপ্তম স্থানে নাম লেখালেন মোশাররফ। ৮ বছর ৬ মাস ১৫ দিন (৮ বছর ২০০ দিন) পর আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলছেন তিনি। এর আগে ২০০৮ সালের ১৪ মার্চ শেষবার বাংলাদেশের হয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলেছিলেন ঘরোয়া ক্রিকেটের এই পরীক্ষিত পারফরমার।
আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বিরতির ক্ষেত্রে অবশ্য বাংলাদেশের জার্সি গায়ে মোশাররফই এখন শীর্ষে। তিনি ছাড়িয়ে গেছেন অগ্রজ ফারুক আহমেদকে। সাবেক অধিনায়ক, প্রধান নির্বাচক ফারুক আহমেদের বিরতি ছিল ৮ বছর ১৪৪ দিন।

ক্রিকেট ইতিহাসে বিরতির এই তালিকায় শীর্ষে নিউজিল্যান্ডের জেফ উইলসন। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে তার বিরতি ছিল ১১ বছর ৩৩১ দিন।

স্কোরকার্ড

বাংলাদেশ: ৫০ ওভারে ২৭৯/৮ (তামিম ১১৮,সাব্বির ৬৫,মাহমুদউল্লাহ ৩২*,নবী ২/৪১, মিরওয়াইস ২/৪৩, রশিদ ২/৩৯)

আফগানিস্তান: ৩৩.৫ ওভারে ১৩৮/১০ (মঙ্গল ৩৩, রহমত ৩৬, নজিবউল্লাহ ২৬, মোশাররফ ৩/২৪, তাসকিন ২/৩১, মোসাদ্দেক ১/৫)

ফল: বাংলাদেশ ১৪১ রানে জয়ী

ম্যান অব দ্য ম্যাচ: তামিম ইকবাল

ম্যান অব দ্য সিরিজ: তামিম ইকবাল

শিরোনাম ডট কম
শিরোনাম ডট কম । অনলাইন নিউজ পোর্টাল Shironaam Dot Com । An Online News Portal
http://www.shironaam.com/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *