দীর্ঘদিন পর মা-ছেলের সাক্ষাতে সেখানে আবেগঘন পরিবেশের সৃষ্টি হয়। ছোট ছেলে আরাফাত রহমান কোকোর মৃত্যুর পর বড় ছেলের সঙ্গে প্রথম সাক্ষাৎ খালেদা জিয়ার।
জাতীয়

লন্ডনে মা-ছেলের আবেগঘন সাক্ষাৎ

দীর্ঘদিন পর মা-ছেলের সাক্ষাতে সেখানে আবেগঘন পরিবেশের সৃষ্টি হয়। ছোট ছেলে আরাফাত রহমান কোকোর মৃত্যুর পর বড় ছেলের সঙ্গে প্রথম সাক্ষাৎ খালেদা জিয়ার।বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া স্থানীয় সময় বুধবার সোয়া সাতটার দিকে লন্ডনে পৌঁছেছেন। হিথ্রো বিমানবন্দরে বিপুলসংখ্যক নেতাকর্মী তাকে স্বাগত জানান।

বিমানবন্দরে বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান ও তার বড় ছেলে তারেক রহমান ফুল দিয়ে মাকে শুভেচ্ছা জানান। দীর্ঘদিন পর মা-ছেলের সাক্ষাতে সেখানে আবেগঘন পরিবেশের সৃষ্টি হয়। ছোট ছেলে আরাফাত রহমান কোকোর মৃত্যুর পর বড় ছেলের সঙ্গে এই প্রথম সাক্ষাৎ খালেদা জিয়ার।

চিকিৎসা ও পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে সাক্ষাতের এ সফরে বেগম খালেদা জিয়া সেন্ট্রাল লন্ডনের একটি হোটেলে উঠেছেন। নাতনি জাইমা রহমান, পুত্রবধূ ডা. জোবাইদা রহমান ও ছেলে তারেক রহমানও এই হোটেলেই থাকবেন বলে বিএনপি সূত্র জানিয়েছে।

দু-এক দিন বিশ্রামের পর খালেদা জিয়ার চোখের ও হাঁটুর চিকিৎসা শুরু হবে বলে সূত্র জানায়।

লন্ডন পৌঁছে হিথ্রো বিমানবন্দরের সোফিটেল হোটেলে কিছুক্ষণ বিরতি নিয়ে তিনি নেতাকর্মীদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন।

ব্যক্তিগত চিকিৎসা ও পারিবারিক বলা হলেও বেগম খালেদা জিয়ার এই সফর বাংলাদেশের রাজনীতিতে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বলে বিবেচনা করা হচ্ছে।

সর্বশেষ ২০১৪ সালের জুলাই মাসে সৌদি আরবে ওমরাহ পালনের সময় তারেকের সঙ্গে সাক্ষাৎ হয়েছিল খালেদা জিয়ার। এরপর বাংলাদেশের রাজনীতি ও জিয়া পরিবারের ওপর অনেক ঝড় বয়ে গেছে। ছোট ছেলে আরাফাত রহমান কোকোকে হারিয়েছেন তিনি।

চেয়ারপারসনের সফরে যুক্তরাজ্যের বিএনপি উজ্জীবিত। নেত্রীকে স্বাগত জানাতে বুধবার ভোররাতে হিথ্রো বিমানবন্দরে জড়ো হয় শত শত নেতাকর্মী। বিমানবন্দরের লবি থেকে বেরিয়ে ছেলে তারেক রহমান গাড়ি চালিয়ে মাকে হোটেলে নিয়ে যাওয়ার সময় বিমানবন্দরের গেটের দুই পাশে দাঁড়িয়ে নেত্রীকে ফুল ছিটিয়ে, স্লোগান দিয়ে স্বাগত জানান নেতাকর্মীরা।

এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আব্দুল আউয়াল মিন্টু, বিএনপির আন্তর্জাতিক সম্পাদক মাহিদুর রহমান, মানবাধিকার বিষয়ক সম্পাদক ব্যারিস্টার নাসির উদ্দিন আহমেদ অসীম, প্রধানমন্ত্রীর সাবেক সহকারী প্রেস সচিব মুশফিকুল ফজল আনসারী, যুক্তরাজ্য বিএনপির সভাপতি এম এ মালেক, সাধারণ সম্পাদক কয়সর এম আহমেদ, সাবেক সাধারণ সম্পাদক ব্যারিস্টার এম এ সালাম, সাবেক ছাত্রনেতা নসরুল্লাহ খান জুনায়েদ, ব্যারিস্টার তারেক বিন আজিজ, যুক্তরাজ্য বিএনপির সিনিয়র সহসভাপতি আবদুল হামিদ চৌধুরী,আবুল কালাম আজাদ, মুজিবুর রহমান মুজিব, আখতার হোসেন, লুৎফর রহমান, মঞ্জুরুস সামাদ চৌধুরী মামুন,যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম মামুন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ খান, তাজ উদ্দিন, শামসুর রহমান মাহতাব, দপ্তর সম্পাদক নাজমুল হাসান জাহিদ, যুবদলের আহ্বায়ক দেওয়ান মোকাদ্দেম চৌধুরী নিয়াজ, স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি নাসির আহমেদ শাহীন ও সাধারণ সম্পাদক আবুল হোসেন, জাসাস সভাপতি এম এ সালাম প্রমুখ।

ব্যক্তিগত এ সফরে বেগম খালেদা জিয়া দুই সপ্তাহ লন্ডনে থাকবেন। চিকিৎসার পাশাপাশি তিনি পরিবারের সঙ্গে সময় কাটাবেন। আসন্ন ঈদুল আজহাও তিনি এখানে করবেন। এটাই হবে সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার বিদেশে প্রথম ঈদ।

শিরোনাম ডট কম
শিরোনাম ডট কম । অনলাইন নিউজ পোর্টাল Shironaam Dot Com । An Online News Portal
http://www.shironaam.com/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *