Bangladesh-defeat-New-Zealand-by-5-wickets

নিউজিল্যান্ডকে হারিয়ে র‌্যাংকিংয়ে ছয়ে বাংলাদেশ

ত্রিদেশীয় সিরিজের শেষ ম্যাচে নিউজিল্যান্ডের হারিয়ে র‌্যাংকিংয়ে ছয়ে বাংলাদেশ। বিদেশের মাটিতে প্রথমবারের মতো নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে জয়ের মাধ্যমে শ্রীলঙ্কাকে হটিয়ে ইংল্যান্ডের পরই ছয় নম্বরে জায়গা করে নিয়েছে মাশরাফি বাহিনী।

ভায়রা-ভাই মুশফিকুর রহিম ও মাহমুদউল্লাহর ব্যাটে জয়ের হাসি হাসে বাংলাদেশ, যার শুরুটা করেছিলেন তামিম-সাব্বির। ২৭১ রানের জয়ের লক্ষ্যে ব্যাটিংয়ে নেমে ৪৮.২ ওভারে পাঁচ উইকেট হারিয়ে জয় পায় বাংলাদেশ।

ত্রিদেশীয় সিরিজে টানা দুই জয়ে আসছে ইংল্যান্ডে অনুষ্ঠেয় চ্যাম্পিয়নস ট্রফিতে আত্মবিশ্বাস বাড়লো বাংলাদেশের। আগের ম্যাচে স্বাগতিক আয়ারল্যান্ডকে হারিয়েছিল টাইগাররা। আগামী ১ জুন চ্যাম্পিয়নস ট্রফিতে ইংলিশদের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচে লড়বে বাংলাদেশ।

ষষ্ঠ উইকেট জুটিতে মুশফিকুর রহিম ও মাহমুদউল্লাহ ৭২ রানের দারুণ জুটি গড়ে দলকে জয়ের লক্ষ্যে পৌঁছে দেন। মুশফিক ৪৫ ও মাহমুদউল্লাহ ৪৬ রানের দারুণ দুটি ইনিংস খেলে দলের জয়টাকে একরকম সহজ করে দেন।

ব্যাটিংয়ে শুরুটা ভালো হয়নি বাংলাদেশের। শুরুতেই ওপেনার সৌম্য সরকারের উইকেট হারিয়ে বেশ চাপে পড়ে যায় লাল-সবুজের দল। বাংলাদেশের সংগ্রহ ছিল তখন মাত্র ৭ রান। জিতেন প্যাটেলের বলে কোরে অ্যান্ডারসনের হাতে ধরা পড়েন সৌম্য সরকার। রানের খাতাই খুলতে পারেননি টাইগার ওপেনার।

এরপরই অবশ্য দারুণ প্রতিরোধ গড়ে তোলেন তামিম ইকবাল ও সাব্বির রহমান জুটি। দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে ১৩৬ রান যোগ করেন এই দুজন। একটা সময় মনে হচ্ছিল ম্যাচটা বেশ সহজেই জিতে যাবে বাংলাদেশ। তবে দলীয় ১৪৩ রানে স্যান্টনারের বলে আউট হন তামিম ইকবাল। ৮০ বলে ৬৫ রান করেন এই বাঁহাতি ব্যাটসম্যান। ৫ রানের ব্যবধানে ভুল বোঝাবুঝিরে শিকার হয়ে রান আউট হন সাব্বির রহমান। এরপর দলীয় ১৬০ রানে মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতও ফিরে যান সাজঘরে। জিতেন প্যাটেলের বলে লেগ বিফোর হওয়ার আগে মাত্র ১০ রান করেন এই অলরাউন্ডার।

এরপর বড় শট খেলতে গিয়ে উইকেট বিলিয়ে আসেন সাকিব আল হাসানও। ৩২ বলে ১৯ রান করেন বিশ্বের অন্যতম সেরা এই অলরাউন্ডার।

এর আগে ডাবলিনে টস হেরে প্রথমে ব্যাটিং করতে নেমে অধিনায়ক টম ল্যাথাম, নেইল ব্রুম ও রস টেলরের হাফ সেঞ্চুরিতে ৮ উইকেটে ২৭০ রান করে কিউইরা। আজ শুরুতেই লুক রনকিকে হারালেও অধিনায়ক টম ল্যাথাম ও নেইল ব্রুমের ব্যাটে বড় সংগ্রহের পথেই এগোচ্ছিল নিউজিল্যান্ড। একটা সময় মনে হচ্ছিল কিউইদের রানটা ৩০০ পেরিয়ে যাবে। তবে রানের চাকাটা টেনে ধরেন বাংলাদেশের বোলাররা। টম ল্যাথাম ও নেইল ব্রুমকে ফেরান নাসির হোসেন। এরপর মাশরাফি বিন মুর্তজা ও সাকিব আল হাসান মিলে নিউজিল্যান্ডের মিডল অর্ডারটা গুঁড়িয়ে দেন। শেষ পর্যন্ত নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৮ উইকেটে ২৭০ রানেই কিউইদের বেঁধে ফেলে বাংলাদেশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *