ঈদে বাড়ি ফেরার ট্রাক উল্টে রংপুরে নিহত ১৭

ঈদে বাড়ি ফেরার ট্রাক উল্টে রংপুরে নিহত ১৭

ঈদে বাড়ি ফেরার ট্রাক উল্টে রংপুরে নিহত ১৭ঈদে বাড়ি ফেরার পথে রংপুরের পীরগঞ্জ উপজেলার কলাবাড়ি এলাকায় সিমেন্টবাহী ট্রাক উল্টে ১৭ জন নিহত ও আহত হয়েছেন অন্তত ২৩ জন।

শনিবার ভোর সাড়ে ৫টার দিকে উপজেলার কলাবাগান এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত সবার বাড়ি লালমনিরহাট জেলার কারীগঞ্জ ও আদিতমারী উপজেলায়। ঈদের ছুটিতে যাওয়া বাড়ি যাওয়া ওই ব্যক্তিদের সবাই পোশাক শ্রমিক।

নিহতদের মধ্যে ১৫ জনের পরিচয় পাওয়া গেছে। তারা হলেন- রবিউল ইসলাম, নাসিদা আক্তার, আজিজুল ইসলাম, আলমগীর হোসেন, দেলোয়ার হোসেন, জসিম উদ্দিন, আনিছুজ্জামান, সুর্পণা, কোহিনুর ইসলাম, শহিদুল ইসলাম, মজনু মিয়া, সাদ্দাম হোসেন, মুনির হোসেন, রফিকুল ইসলাম, ও খলিল মিয়া।

সিনিয়র এএসপি ধীরেন্দ্র চন্দ্র মহাপাত্র জানান, সিমেন্টবোঝাই ট্রাকটি ৫০ জনের মত যাত্রী নিয়ে ঢাকা থেকে লালমনিরহাটে যাচ্ছিল। পীরগঞ্জের কলাবাড়ি এলাকায় পৌঁছালে এটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার পাশে উল্টে যায়। এ সময় ঘটনাস্থলেই ১০ জন নিহত ও ১৭ জন আহত হন। আহতদের পীরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়ার পর চিকিৎসক আরও সাতজনকে মৃত ঘোষণা করেন।

তিনি জানান, গুরুতর আহত আরও ৭ জনকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, শুক্রবার রাতে বাসের টিকিট না পাওয়ায় ৪০ জন ঘরমুখো মানুষ ঢাকা থেকে একটি সিমেন্টভর্তি ট্রাকে চেপে লালমনিরহাট জেলার কালীগঞ্জ থানায় নিজ গ্রামে ঈদ করার জন্য ফিরছিলেন।

পীরগঞ্জ উপজেলার ঢাকা-রংপুর মহাসড়কের কলাবাগান নামকস্থানে পৌঁছলে চালকের অসর্তকতার কারণে ট্রাকটি উল্টে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই ১১ জনের মৃত্যু হয়।

পীরগঞ্জ থানার ওসি রেজাউল করীম জানান, উপজেলার কলাবাড়ি এলাকায় সিমেন্টবাহী ট্রাক উল্টে ঘটনাস্থলেই ১১ জন নিহত হয়েছেন। এসময় আহত হয়েছেন ২৩ জন।

ঘুমিয়ে ঘুমিয়ে ট্রাক চালাচ্ছিলেন হেলপার
আহত যাত্রীরা জানান, বাসের টিকেট না পেয়ে গাজীপুর থেকে একটি সিমেন্ট বোঝাই ট্রাকে (রংপুর-ট ১১-০২২৮) চড়ে পরিবারের সঙ্গে ঈদ করতে শুক্রবার দিবাগত রাতে ৫৪ জন ঘরমুখী মানুষ লালমনিরহাটের উদ্দেশে রওনা দেয়। পথে চালকের ঘুম আসলে তিনি তার হেলপারকে ট্রাকটি চালাতে দেন। চালকের (অজ্ঞাতনামা) বাড়িও লালমনিরহাটের কালিগঞ্জের চাপারহাট গ্রামে বলে জানান তারা।

হাসপাতালের কেবিনে থাকা আহত ৫ম শ্রেণির ছাত্রী যাত্রী ঝর্ণা খাতুন ও তার মা জামিনা বেগম জানান, পীরগঞ্জের কলাবাগান নামকস্থানে ট্রাকটি এলে একপর্যায়ে হেলপার ট্রাক চালানো অবস্থায় ঘুমিয়ে পড়ে। এসময় ট্রাকটি উল্টে এতে ঘটনাস্থলেই ১১ জন, পীরগঞ্জ হাসপাতালে পাঁচজন এবং রংপুর মেডিকেলে একজন মারা যায়। নিহতদের লাশগুলো পীরগঞ্জের বড়দরগা হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়িতে রাখা হয়েছে।

ওই লাশ নিতে আসা লালমনিরহাটের কালিগঞ্জের ঘোংগাগাছ গ্রামের সহির উদ্দিন জানান, তার পরিবারের চারজন মারা গেছেন। তারা হলেন- আপন দু’ভাই সাদ্দাম হোসেন ও আলমগীর হোসেন, তার দু’ভাতিজা মনিরুজ্জামান ও দেলোয়ার হোসেন। এরা সবাই পোশাক শ্রমিক।

এদিকে হাসপাতালে নিহতদের স্বজনদের আহাজারিতে এক হৃদয়বিদারক দৃশ্যের সৃষ্টি হয়েছে। ভারী হয়ে উঠেছে ওই এলাকার বাতাস।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *