যে ১০ লক্ষণে বুঝবেন আপনার হার্ট অ্যাটাক হতে পারে
সাময়িকী

যে ১০ লক্ষণে বুঝবেন আপনার হার্ট অ্যাটাক হতে পারে

প্রতি বছর সারা বিশ্বে লক্ষ লক্ষ মানুষ হার্ট অ্যাটাক বা হৃদযন্ত্রের সমস্যায় মারা যান। শরীরে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ হৃদযন্ত্র। বুকের মাঝে ধুকপুক করেছে বলে আমরা সকলে বেঁচে থাকি। হার্ট যদি কোনো কারণে অসুস্থ হয় তবে তা নানা সংকেত দিয়ে আমাদের জানান দেয়। অনেক সময় আমরা সাধারণ কোনো রোগ ভেবে তা উপেক্ষা করি। বেশির ভাগ ক্ষেত্রে এ কারণেই হার্ট অ্যাটাক হয়। চিকিৎসকদের মতে, যদি হার্ট-অ্যাটাক হওয়ার ১ ঘণ্টার মধ্যে চিকিৎসা শুরু করা যায়, তবে ৯৬ শতাংশ ক্ষেত্রে রোগী বেঁচে যান। ১০টি লক্ষণে বাড়িতেই বুঝতে পারবেন আপনার হার্ট-অ্যাটাক হতে পারে। অবিলম্বে চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া প্রয়োজন। দেখে নিন কী কী সেই লক্ষণ:

১. বুকে ব্যথা
বুকে ব্যাথা, বিশেষত বুকের মাঝে ব্যাথা হলে বুঝবেন হৃদযন্ত্রে সমস্যা রয়েছে। যদি কোনো কারণে বুকের মাঝখানে তীক্ষ্ণ ব্যাথা অনুভব করেন এবং সেটা বেশ কিছু ক্ষণ ধরে হতেই থাকে, দেরি না করে হাসপাতালে যাওয়াই ভালো।

২. ব্যাথা ছড়িয়ে হাতের দিকে যাওয়া
বুকের মাঝ থেকে ব্যাথা ছড়িয়ে মাঝখান পর্যন্ত যাচ্ছে বুঝবেন হার্ট অ্যাটাকের সমূহ সম্ভাবনা রয়েছে। দেরি না করে শীঘ্র চিকিত্সেকের পরামর্শ নিন।

৩. জোরে নাক ডাকা
বয়সজনিত কারণে অনেকেই রাতে ঘুমের সময় অল্প-বিস্তর নাক ডাকেন। তবে তা অস্বাভাবিক জোরে হলে সমস্যা। জোরে নাক ডাকানোর মানে হলো, ঘুমের সময় ঠিক মতো নিশ্বাস-প্রশ্বাস চলছে না। ফলে হার্টকে অতিরিক্ত পরিশ্রম করতে হচ্ছে।

৪. তাড়াতাড়ি হাঁপ ধরা
আগে যে কাজ অবলীলায় করতেন, তা করতেই ভীষণ হাঁপ ধরে যাচ্ছে। অন্যতম লক্ষণ যে আপনার হার্ট দুর্বল হয়ে পড়েছে।

৫. ক্রমাগত কাশি
ঠান্ডা লেগে সর্দি-কাশি হলে আলাদা কথা। কিন্তু যদি সারা বছর ধরেই কাশছেন, অথচ ঠান্ডা লাগেনি। তার সঙ্গে হাল্কা গোলাপি রঙের কফ উঠে আসছে। এটার অর্থ হার্ট শরীরে চাহিদা অনুযায়ী কাজ করতে পারছে না। তাই ফুসফুসে রক্ত চলে যাচ্ছে।

৬. অতিরিক্ত ঘামানো
শরিশ্রম করেছেন না, কিন্তু তাও হঠাৎ হঠা খুব ঘামছেন। এটাও অন্যতম লক্ষণ।

৭. অনিয়মিত হার্টবিট
হলে নিজেই ভালো বুঝতে পারবেন। মাঝে মাঝে বাড়বে বা কমবে। তেমন ভয়ানক না হলেও ভয়ের কারণ রয়েছে। চিকিত্সেকরে পরামর্শ নিন।

৮. হাত-পা-গোড়ালি ফুলে যাওয়া
এটা সংকেত যে আপনার হার্ট ঠিক মতো রক্ত পাম্প করতে পারছে না। দেরি না করে জাক্তারের কাছে যান।

৯. মাথা ঝিমঝিম ভাব
দীর্ঘ দিন ধরে মাথা ঘোরা বা মাথা ঝিমঝিম করার অর্থ আপনার রক্তচাপ বেশ খানিকটা কমে গিয়েছে। যা হার্টে অতিরিক্ত চাপ দিচ্ছে।

১০. চোয়াল বা গলায় ব্যাথা
বুকের মাঝখান থেকে গলা বা চোয়াল পর্যন্ত ব্যাথা ছড়িয়ে পড়ছে। এটার অর্থও হার্ট-অ্যাটাকের সম্ভাবনা রয়েছে। তত্ক্ষ্ণাৎ চিকিত্সিকের প্রয়োজন রয়েছে।

শিরোনাম ডট কম
শিরোনাম ডট কম । অনলাইন নিউজ পোর্টাল Shironaam Dot Com । An Online News Portal
http://www.shironaam.com/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *