প্রস্তাবিত বাজেটে যেসব পণ্যের দাম কমতে পারে

এবারের প্রস্তাবিত বাজেট অনুযায়ী কিছু কৃষিজাত পণ্যসহ টেক্সটাইল পণ্যের দাম কমতে পারে।

এবারের প্রস্তাবিত বাজেট অনুযায়ী কিছু কৃষিজাত পণ্যসহ টেক্সটাইল পণ্যের দাম কমতে পারে। এবারের প্রস্তাবিত বাজেট অনুযায়ী কিছু কৃষিজাত পণ্যসহ টেক্সটাইল পণ্যের দাম কমতে পারে। অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদে ২০১৫-১৬ অর্থ বছরের বাজেট পেশ করেন।

প্রস্তাবিত বাজেট অনুযায়ী পেঁয়াজ আমদানির ওপর কাস্টম শুল্ক শূন্য করায় আমদানি করা পেঁয়াজের দাম কমতে পারে। সৌর বিদ্যুৎ ও এ কাজে ব্যবহৃত বিভিন্ন যন্ত্রাংশের ওপর শুল্কহার কমানোর কারণে দাম কমতে পারে। ওষুধ শিল্পের কাচাঁমালের শুল্ক কমানো হয়েছে। তাই ওষুধের দাম কমার সম্ভাবনা রয়েছে।

ওভেন ফেব্রিক্স, নিট ফেব্রিক্স ও টেক্সটাইল ফেব্রিক্সসহ কাপড় জাতীয় পণ্যের ওপর সম্পূরক শুল্ক ১০ শতাংশ কমিয়ে ২০ শতাংশ করা হয়েছে। যে কারণে এসব পণ্যের দাম কমতে পারে।

এ ছাড়া আমদানি করা ওভারকোট, স্যুট, ব্লেজার, ট্রাউজারের দাম কমতে পারে। এ সব খাতে ১৫ শতাংশ সম্পূরক শুল্ক কমিয়ে ৪৫ শতাংশ করা হয়েছে। এ ছাড়া মেয়েদের বিভিন্ন আমদানি করা পণ্যের দামও কমতে পারে।

তথ্যপ্রযুক্তি এবং টেলিযোগাযোগ খাতের বিভিন্ন যন্ত্রাংশ আমদানিতে মূল্য সংযোজন কর অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। কমতে পারে তরল গ্লুকোজ ও সাদা চকলেটের দাম। ১০ শতাংশ কমিয়ে শুল্ক করা হয়েছে ২০ শতাংশ। ১৫ শতাংশ করে শুল্ক কমানো হয়েছে মিষ্টি বিস্কুট, টোস্ট ও কিছু চকলেটের।

প্লাস্টিকের তৈরি দরজা-জানালা, বাস্ক, কেইস, ফ্লাস্ক এবং বোতল জাতীয় পণ্যের ওপর ১৫ শতাংশ শুল্ক কমিয়ে ৪৫ শতাংশ করা হয়েছে। তাই এসব পণ্যের দাম কমতে পারে।

স্যানিটারি প্যাড, ন্যাপকিন, বাচ্চাদের প্যাড এবং এ জাতীয় পণ্যের ওপর ১৫ শতাংশ শুল্ক কমানো হয়েছে। তাই এসব পণ্যের দাম কমতে পারে।

উৎপাদিত গাড়ি ও টায়ারের ওপর কর অবকাশ সুবিধা দেওয়ায় এসব পণ্যের দাম কমতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *