রোববার দুপুর পৌনে ১টায় রাজধানীর মহাখালীতে স্বাস্থ্য বিভাগের সম্মেলনকক্ষে এ ফল প্রকাশ করা হয়। ভর্তি পরীক্ষায় ৫৮ দশমিক ৪০ ভাগ শিক্ষার্থী পাস করেছে।
শিক্ষাঙ্গন

মেডিকেল ভর্তির ফল প্রকাশ, পরীক্ষা বাতিল চেয়ে রিট

রোববার দুপুর পৌনে ১টায় রাজধানীর মহাখালীতে স্বাস্থ্য বিভাগের সম্মেলনকক্ষে এ ফল প্রকাশ করা হয়। ভর্তি পরীক্ষায় ৫৮ দশমিক ৪০ ভাগ শিক্ষার্থী পাস করেছে।প্রশ্নপত্র ফাঁস হওয়ার অভিযোগে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভের মধ্যে আজ মেডিকেল ও ডেন্টাল কলেজের (এমবিবিএস ও বিডিএস) ভর্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশিত হয়েছে। ইতোমধ্যে পরীক্ষায় উত্তীর্ণরা ভর্তি পরীক্ষার ফল হাতে পেতে শুরু করেছেন।

রোববার দুপুর পৌনে ১টায় রাজধানীর মহাখালীতে স্বাস্থ্য বিভাগের সম্মেলনকক্ষে এ ফল প্রকাশ করা হয়। ভর্তি পরীক্ষায় ৫৮ দশমিক ৪০ ভাগ শিক্ষার্থী পাস করেছে।

গত শুক্রবার ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। পরীক্ষায় সরকারি ৩০টি মেডিকেল কলেজ, একটি ডেন্টাল কলেজ ও ৮টি ডেন্টাল ইউনিটে ৩,৭৪৪ আসন এবং বেসরকারি ৬৫টি মেডিকেল ও ২৪টি ডেন্টাল কলেজে ৬৩৫৫টি আসনের বিপরীতে ৮৪,৭৮৪ জন শিক্ষার্থী অংশ নিতে আবেদন করেছিলেন।

পাস করেছে মোট ৪৮,৪৪৮ জন, অর্থাৎ ৫৮.৪ শতাংশ পাশ করেছে। এবার এমবিবিএস ও বিডিএস কোর্সে লিখিত ১০০ নম্বরের পরীক্ষায় পাস নম্বর ছিল ৪০। এ বছর ভর্তি পরীক্ষায় সর্বোচ্চ প্রাপ্ত নম্বর ৯৪.৭৫ পেয়ে প্রথম হয়েছেন মো:মতিউর রহমান। মতিউর ২০০ নম্বরের মধ্যে ১৯৪.৭৫ পেয়েছেন।

আজ বেলা সাড়ে ১১টার পর সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে ফল ঘোষণা করা হয়।

গত শুক্রবার সকাল ১০টা থেকে ১১টা পর্যন্ত দেশব্যাপী ২৩টি কেন্দ্রে একযোগে এ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়।

গত শুক্রবার অনুষ্ঠিত হওয়া পরীক্ষায় প্রশ্নপত্র ফাঁসের অভিযোগ উঠে। এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) এক সহকারী পরিচালকসহ তিনজনকে আটক করে র‌্যাব।

এর আগে গত বুধবার রাজধানীর মহাখালী থেকে প্রশ্নপত্র ফাঁসের ঘটনায় জড়িত সন্দেহে চারজনকে আটক করা হয়েছিলো।

এদিকে পরীক্ষা শেষ হওয়ার পর থেকেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রশ্ন ফাঁসের অভিযোগ তুলে ব্যাপক ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন পরীক্ষার্থীরা।

পরীক্ষার আগের রাতেই মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে প্রশ্ন ফাঁস হয়েছে, যা হুবহু পরদিন পরীক্ষায় এসেছে বলে অভিযোগ করেছেন তারা।

এ ঘটনার পর বিক্ষুব্ধ পরীক্ষার্থীরা পরীক্ষা বাতিলের দাবি জানান। তাদের দাবির মুখেই আজ পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হলো।

অধিদপ্তরের ওয়েবসাইটে www.dghs.gov.bd ফলাফল পাওয়া যাবে বলে কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।

পরীক্ষা বাতিল চেয়ে রিট

প্রশ্নপত্র ফাঁসের অভিযোগে মেডিকেল ও ডেন্টাল কলেজের অনুষ্ঠিত ভর্তি পরীক্ষা বাতিল চেয়ে হাইকোর্টে রিট আবেদন করেছেন সুপ্রিম কোর্টের এক আইনজীবী।

রোববার সকালে হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় রিট আবেদনটি করেন অ্যাডভোকেট ই্উনুছ আলী আকন্দ। এর আগে শনিবার দুপুরে কুরিয়ার সার্ভিসে মন্ত্রিপরিষদ-সচিব, আইনসচিব ও স্বাস্থ্যসচিব বরাবরে ওই নোটিশ পাঠান বলে জানান আইনজীবী ইউনুছ আলী আকন্দ।

ইউনুছ আলী অভিযোগ করেন, যে প্রশ্নে মেডিকেল ও ডেন্টাল কলেজের ভর্তি পরীক্ষা হয়েছে, তার সঙ্গে ফাঁস হওয়া প্রশ্নের মিল পাওয়া গেছে। ১৮ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিত ওই পরীক্ষা ২৪ ঘণ্টার মধ্যে বাতিলের জন্য লিগ্যাল নোটিশ পাঠানো হয়েছে।

আইনি নোটিশে প্রশ্নপত্র ফাঁসের অভিযোগ তদন্তে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিয়ে পরবর্তীতে নতুন করে ভর্তি পরীক্ষা নিতে বলা হয়েছে।

এদিকে রোববার বেলা সাড়ে ১১টায় মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হয়।

ফল বাতিলের দাবি বিএনপির

২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষে মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষাকে ‘জাল পরীক্ষা’ আখ্যায়িত করে এর ফল বাতিলের দাবি জানিয়েছে বিএনপি। পাশাপাশি সুষ্ঠুভাবে আবার পরীক্ষা নেয়ারও দাবি জানিয়েছে দলটি।

রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে দলের মুখপাত্র ও আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ড. আসাদুজ্জামান রিপন এ দাবি জানান।

রিপন বলেন, “গত পরশু মেডিকেল কলেজে ভর্তির জন্য পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সেই পরীক্ষায় প্রশ্নপত্র ফাঁসের অভিযাগ উঠলেও সরকার তা অস্বীকার করছে। অথচ এ অভিযোগে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের সহকারী পরিচালকসহ কয়েকজনকে গ্রেফতারও করা হয়েছে।” তিনি বলেন, ‘প্রশ্নপত্র যদি ফাঁস না-ই হতো তাহলে কেন ইউজিসির মতো একটি রাষ্ট্রায়ত্ত প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তাকে র্যা ব গ্রেফতর করল?”

এমন ঘটনা অন্য কোনো দেশে ঘটলে স্বাস্থ্যমন্ত্রী ওই দিনই লজ্জায় পদত্যাগ করতেন উল্লেখ করে রিপন বলেন, “অথচ আমাদের দেশে সেই নজির নেই। উল্টো বিরোধী দল থেকে কোনো মন্ত্রীর পদত্যাগের দাবি করা হলে ওই মন্ত্রীর মন্ত্রিত্ব আরো পোক্ত হয়। সরকার মনে করে বিরোধী দলের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে মন্ত্রিত্ব চলে গেছে এতে বিরাধী দলের দাবিকেই প্রতিষ্ঠিত করা হবে।”

বিএনপির মুখপাত্র বলেন, “ছাত্রছাত্রীদের দাবিকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে সরকার একগুঁয়েমির পরিচয় দিয়েছে।” শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে বিএনপির নৈতিক সমর্থন থাকবে জানিয়ে রিপন মেডিকেলের ভর্তি পরীক্ষা আবার নেয়ার দাবি করেন।

দেশের বর্তমান পরিস্থিতির কথা বলতে গিয়ে রিপন বলেন, “দেশটা তো গোল্লায় যাচ্ছে। সরকার কোনো কিছুই সিস্টেম মতো চালাতে পারছে না। সবকিছুতেই তারা ব্যর্থ হচ্ছে।’

রিপন বলেন, “এমনিতেই দেশটা তারা লুটেপুটে খাচ্ছে। এখন কোরবানির হাট-বাজারও আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগ ও যুবলীগের নামে ইজারা দেয়া হয়েছে। তারা আগের তুলনায় দুই গুণ তিন গুণ হাসিল আদায় করছে। জনগণের দুর্ভোগ কয়েক গুণ বাড়িয়ে দিয়েছে।”

টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে মা ও ছেলেকে নির্যাতন এবং পুলিশের গুলিতে হত্যার তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানিয়ে বিএনপির নেতা বলেন, “দেশের ল’ অ্যান্ড অর্ডার সিচুয়েশন কতটা খারাপ হলে এ রকম ঘটনা ঘটতে পারে। মানুষ কতটা অসহিষ্ণু হয়ে গেলে এত বড় পাশবিক ঘটনা ঘটাতে পারে। গত ৪৫ বছরে আমরা এ ধরনের ঘটনার কথা শুনিনি। এ পাশবিক ঘটনার প্রতিবাদে মানুষ রাস্তায় নেমে এসেছিল। তাদের এ অহিংস প্রতিবাদ দমন করতে সরকার সহিংস পথ বেছে নিয়েছে।”

সামগ্রিকভাবে দেশে নৈরাজ্যকর পরিস্থিত বিরাজ করছে বলে দাবি করে রিপন বলেন, “শাসক দল স্বৈরাচারী হয়ে উঠেছে। তাদের এ রকম মনোভাবের কারণে কোরবানি ও আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে জনমনে শঙ্কা দেখা দিয়েছে।”

বিএনপির মুখপাত্র বলেন, চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া এবার দেশের বাইরে থাকায় দলের পক্ষ থেকে ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময় অনুষ্ঠিত হবে না। তবে ঈদের দিন বিকাল চারটায় শেরেবাংলা নগরে সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের সমাধিতে শ্রদ্ধা জানাবে বিএনপি।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আবদুস সালাম আজাদ, শিক্ষাবিষয়ক সম্পাদক খায়রুল কবির খোকন, মহিলা দলের সভাপতি নূরে আরা সাফা, সহ-দফতর সম্পাদক আসাদুল করিম শাহীন প্রমুখ।

শিরোনাম ডট কম
শিরোনাম ডট কম । অনলাইন নিউজ পোর্টাল Shironaam Dot Com । An Online News Portal
http://www.shironaam.com/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *