মুগাবে গৃহবন্দী, সেনা নিয়ন্ত্রণে জিম্বাবুয়ে

মুগাবে গৃহবন্দী, সেনা নিয়ন্ত্রণে জিম্বাবুয়ে

14
0
SHARE

মুগাবে গৃহবন্দী, সেনা নিয়ন্ত্রণে জিম্বাবুয়েপ্রেসিডেন্ট রবার্ট মুগাবে গৃহবন্দী, সেনা নিয়ন্ত্রণে জিম্বাবুয়ে। দেশটির সেনাবাহিনী ইতিমধ্যে দেশটির রাজধানীর নিয়ন্ত্রণসহ টিভি স্টেশন দখল করে নিয়েছে। ৯৩ বছর বয়সী মুগাবে নিরাপদে রয়েছেন। তার কোনো ক্ষতি হয়নি।

ঘটনাকে অভ্যুত্থান বলতে নারাজ দেশটির সেনাবাহিনী। সেনাদের দাবি, জিম্বাবুয়ের প্রেসিডেন্ট রবার্ট মুগাবেকে ঘিরে থাকা ‘অপরাধীদের দলকে’ লক্ষ্য করে অভিযান চালানো হয়েছে।

অপরদিকে ক্ষমতাসীন দলের টুইটার একাউন্টকে উদ্ধৃত করে বার্তা দেয়া হয় যে সেনাবাহিনীর এই নিয়ন্ত্রণ ‘রক্তপাতহীন রূপান্তর’।

রয়টার্স জানিয়েছে, জিম্বাবুয়ের সেনাপ্রধান জেনারেল কনস্ট্যানটিনো চিয়েঙ্গার অনুগত বাহিনী মঙ্গলবার রাতে রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন স্টেশন জেডবিসির নিয়ন্ত্রণ নেয়।

প্রেসিডেন্ট মুগাবে গত সপ্তাহে তার ভাইস প্রেসিডেন্ট এমারসন নানগাগওয়াকে বরখাস্ত করলে চলমান এই সঙ্কটের সূচনা হয়। নানগাগওয়াকে এতদিন মুগাবের উত্তরসূরী ভাবা হলেও সম্প্রতি তার জায়গায় ফার্স্ট লেডি গ্রেস মুগাবের নাম সামনে চলে আসে।

মুগাবেপত্নীর সঙ্গে নানগাগওয়ার এই বিরোধে ক্ষমতাসীন দল জানু-পিএফে বিভক্তি তৈরি হয়। এই পরিস্থিতিতে সম্ভাব্য অভ্যুত্থান ষড়যন্ত্রের বিষয়ে সতর্ক করে গ্রেস মুগাব বলেন, নানগাগওয়া তার বিরোধিতাকারীদের খুন করতে চান।

মুগাবে ভাইস প্রেসিডেন্টের পদ থেকে নানগাগওয়াকে সরিয়ে দিলে প্রতিক্রিয়া দেখান সেনা প্রধান চিয়েঙ্গা। তিনি বলেন, ক্ষমতাসীন দলের টানাপড়েন মিটিয়ে দিতে তার বাহিনী প্রস্তুত।

এরপর জানু-পিএফ এর পক্ষ থেকে বলা হয়,দেশের শান্তি নষ্ট করতেই সেনাপ্রধান উসকানিমূলক ওই বক্তব্য দিয়েছেন, যা রাষ্ট্রদ্রোহিতার শামিল।

পাল্টাপাল্টি এই বক্তব্যের মধ্যে পরিস্থিতি দ্রুত খারাপের দিকে মোড় নেয়। মঙ্গলবার হারারের বাইরে বিভিন্ন সড়কে সেনাবাহিনীর ট্যাংক আর সাঁজোয়া বহর অবস্থান নিলে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।

সেনাবাহিনী জেডবিসি টেলিভিশন ভবনের নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার সময় বেশ কয়েকজন কর্মী মারধরের শিকার হন। ওই টেলিভিশনের কর্মীদের বলা হয়, সেনাবাহিনী তাদের নিরাপত্তা দিতেই এসেছে, সুতরাং তাদের উদ্বিগ্ন হওয়ার কারণ নেই।

হারারের দক্ষিণ অংশে যে এলাকায় প্রেসিডেন্ট মুগাবের বাসভবন, সেদিক থেকে রাতে ভারী অস্ত্রের গোলাগুলির শব্দ পাওয়ার খবর আসে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমে।

তবে দক্ষিণ আফ্রিকায় জিম্বাবুয়ের রাষ্ট্রদূত আইজ্যাক ময়ো সে সময় সেনা অভ্যুত্থানের খবর নাকচ করে দিয়ে বলেন, সরকারের নিয়ন্ত্রণ অখনও অটুট রয়েছে।

হারারেতে যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাস এক টুইটে জানিয়েছে, এই ‘অনিশ্চয়তার’ মধ্যে তারা বুধবার আর মিশন খুলছে না।

পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত জিম্বাবুয়েতে যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিকদের নিরাপদ আশ্রয়ে থাকার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে মার্কিন দূতাবাসের পক্ষ থেকে। যুক্তরাজ্যও তাদের নাগরিকদের একই পরামর্শ দিয়েছে।

প্রেসিডেন্ট রবার্ট মুগাবে জিম্বাবুয়ে ও ব্রিটেনের মধ্যকার সম্পর্ক উন্নয়নে অবদানের জন্য নাইট উপাধিতে ভূষিত হন মুগাবে। ১৯৯৪ সালে রাণী দ্বিতীয় এলিজাবেথ তাকে গ্র্যান্ড নাইট ক্রসে ভূষিত করেন।মুগাবের বাবা ছিলেন ছুতার মিস্ত্রী। তিনি পরিবারকে ত্যাগ করেছিলেন।

১৯৮০ সালে স্বাধীনতা দিবসের উদযাপানে জ্যামাইকার সঙ্গীততারকা বব মার্লে গান গেয়েছিলেন। কিন্তু বিষয়টি পছন্দ হয়নি মুগাবের। তিনি বব মার্লের স্থলে ব্রিটিশ শিল্পী ক্লিফ রিচার্ডকে চেয়েছিলেন।২০০০ সালে রাষ্ট্রীয় মালিকাধীন (আংশিক) ব্যাংক আয়োজিত লটারি জিতেছিলেন মুগাবে। পুরস্কার হিসেবে পান ১ লাখ জিম্বাবুয়ে ডলার।২০১৩ সালে মুগাবের সম্পত্তির পরিমাণ ছিল ১০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার।একবার মুগাবে নোবেল পুরস্কারের জন্য মনোনীত হয়েছিলেন।

চীনের নোবেল হিসেবে খ্যাত ‘কনফুসিয়াস শান্তি পুরস্কার’ জিতেছেন ২০১৫ সালে। অরগানাইজেশন অব আফ্রিকান ইউনিটি ও আফ্রিকান ইউনিয়ন দুই সংস্থারই চেয়্যারম্যানের দায়িত্বে ছিলেন মুগাবে। তিনি ক্রিকেটের খুব ভক্ত। তবে স্কুলে টেনিস খেলতেন। সর্বকনিষ্ঠ সন্তান চাতুঙ্গা বেলারমিনের জন্মের সময় মুগাবের বয়স ছিল ৭৩ বছর। তিনিই পৃথিবীর সবচেয়ে বয়স্ক রাষ্ট্রপ্রধান।

Comments

comments