মাকে ধর্ষণের প্রতিবাদ করায় পুলিশের গুলি, নিহত ২

মাকে ধর্ষণের প্রতিবাদ করায় পুলিশের গুলি, নিহত ২

মাকে ধর্ষণের প্রতিবাদ করায় পুলিশের গুলি, নিহত ২টাঙ্গাইল জেলার কালিহাতিতে ছেলের সামনে মাকে নির্যাতন ও ধর্ষণের অভিযোগের ঘটনায় বিক্ষুব্ধ জনতার সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষে দুই জন নিহত হয়েছেন। এই ঘটনায় আহত হয়েছে অন্তত ৫০ জন।

শুক্রবার বিকেল সাড়ে ৩টা থেকে সাড়ে ৫টা পর্যন্ত দুই ঘণ্টাব্যাপী কালীহাতী উপজেলা সদরে এ সংঘর্ষ হয়।

নিহতরা হলেন- কালীহাতী উপজেলার সালেঙ্গা এলাকার শামীম ও রবির ছেলে শ্যামল এবং সাতুরিয়া এলাকার ফারুক হোসেন। শামীম টাঙ্গাইল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে, রবি ঢাকা মেডিকেলে নিয়ে যাওয়ার পথে আর ফারুক কালীহাতী উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে মারা যান।

এলাকাবাসী জানায়, সম্প্রতি ছেলের সামনে মাকে ধর্ষণের ঘটনার প্রতিবাদে শুক্রবার বিকেলে বিক্ষোভ করার প্রস্তুতি নেয় এলাকাবাসী। এসময় পুলিশ বাধা দিলে মিছিল থেকে ঢিল ছুঁড়ে মারা হয়। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে মিছিলে অংশগ্রহণকারীর ওপর চড়াও হয় পুলিশ। এক পর্যায়ে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে বিক্ষোভকারীরা।

বিক্ষোভকারীদের নিয়ন্ত্রণ করতে পুলিশ গুলিবর্ষণ করে। প্রায় দুই ঘণ্টাব্যাপী চলে সংঘর্ষ। এসময় গুলিবিদ্ধ ও আহত হয় অর্ধশতাধিক লোকজন। পরে আহতদের কালীহাতী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হয়। এরমধ্যে টাঙ্গাইল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে শামীম, কালীহাতী উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ফারুক ও ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথিমধ্যে রবির মৃত্যু হয়।

স্থানীয়রা জানায়, কয়েকদিন আগে উপজেলার পল্লীতে ছেলের সামনে মাকে ধর্ষণের ঘটনা ঘটে। এ নিয়ে চরম ক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়। শুক্রবার ওই ঘটনার প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল করার কথা ছিল এলাকাবাসীর। কিন্তু বিক্ষোভ শুরু করার কিছুক্ষণ পরেই মিছিলে বাধা দেয়ায় পুলিশকে লক্ষ্য করে ঢিল ছোঁড়ে বিক্ষোভকারীরা। এতে দুপক্ষে সংঘর্ষ বেধে যায়।

কালীহাতী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শহিদুল ইসলাম দুইজন নিহতের বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তবে তিনি দাবি করেন, বিক্ষোভকারীদের নিয়ন্ত্রণ করতে পুলিশ রাবার বুলেট ছুঁড়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *