মসজিদে নববীর কাছে আত্মঘাতী হামলায় নিহত ৫
আন্তর্জাতিক

মসজিদে নববীর কাছে আত্মঘাতী হামলায় নিহত ৫

মসজিদে নববীর কাছে আত্মঘাতী হামলায় নিহত ৫সৌদি আরবের পবিত্র নগরী মদিনায় নবীজির মসজিদের কাছে চালানো আত্মঘাতী হামলায় কমপক্ষে পাঁচজন নিহত হয়েছেন। এদের চারজনই নিরাপত্তা কর্মকর্তা। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরো পাঁচজন।

মক্কার পরে মদিনাই মুসলমানদের কাছে দ্বিতীয় পবিত্র জায়গা। মদিনাতে মুসলমানদের নবী মোহাম্মদ (সা:)-কে দাফন করা হয়েছে।

এর আগে সোমবার সন্ধায় কাতিফ শহরেও এক বিস্ফোরণের খবর পাওয়া গেছে। কাতিফে শিয়ারা সংখ্যালঘু হিসেবে বসবাস করে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, শিয়া মসজিদের খুব কাছে একজন হামলাকারী নিজেকে উড়িয়ে দেয়।

তাৎক্ষণিকভাবে কোনো গোষ্ঠী এ হামলার দায় স্বীকার করেনি। তবে জঙ্গি গোষ্ঠী ইসলামিক স্টেটকে সন্দেহ করা হচ্ছে।

হামলার পর সামাজিক মাধ্যমে প্রকাশিত ছবিগুলোতে দেখা যায় মসজিদে নববীর বাইরে আগুন থেকে ধোঁয়া উড়ছে।

এক টুইটার বার্তায় সৌদি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ‘হামলাকারী মসজিদের দিকে এগিয়ে যাচ্ছিল। এ সময় চার নিরাপত্ত কর্মকর্তা তার গতিরোধ করলে সে নিজের দেহের সঙ্গে থাকা বিস্ফোরক পদার্থে বিস্ফোরণ ঘটায়। এতে ওই চার রক্ষী শহীদ হয়েছেন। হামলাকারী নিজেও মারা গেছেন।

সোমবার মাগরিবের নামাজের আগে রোজাদাররা যখন মসজিদের অভ্যন্তরে ইফতার করছিলেন তখনই ওই বিস্ফোরণের ঘটনাটি ঘটে।

তবে স্থানীয় সংবাদ মাধ্যম আল আরাবিয়া বলছে, হামলাকারী ইফতার করার ভান করে নিরাপত্তা কর্মকর্তাদের কাছে গিয়ে ওই বিস্ফোরণ ঘটায়। সে আসলে নিরাপত্তা কর্মীদের লক্ষ্য করেই হামলাটি চালিয়েছিল।

সোমবার সৌদিতে এটি ছিল তৃতীয় হামলা। এর আগে জেদ্দা ও কাতিফ শহরে আরো দুটি আত্মঘাতী হামলা চালান হয়েছিল। সোমবার ভোরে জেদ্দায় মার্কিন কনসুলেটের বাইরে আত্মঘাতী হামলার প্রচেষ্টাটি নসাৎ করে দেয় নিরাপত্তা কর্মকর্তারা। এ ঘটনায় হামলাকারী ছাড়া আর কেউ নিহত হয়নি। তবে দুই নিরাপত্তা কর্মকর্তা আহত হয়েছেন।

একই দিনে কাতিফ শহরেও আত্মঘাতী বোমা হামলার খবর পাওয়া গেছে। শহরের এক শিয়া মসজিদকে লক্ষ্য করে চালান ওই হামলায় কেউ হতাহত হয়নি। সৌদি আরবের এই শহরটিতে শিয়া সম্প্রদায়ের সংখ্যাই বেশি।

শিরোনাম ডট কম
শিরোনাম ডট কম । অনলাইন নিউজ পোর্টাল Shironaam Dot Com । An Online News Portal
http://www.shironaam.com/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *