চলতি বছর ভ্যাট প্রত্যাহারের ঘোষণা অর্থ মন্ত্রণালয়ের

সরকার ২০১৫-১৬ অর্থবছরে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়, মেডিকেল কলেজ ও ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজের ওপর যে সাড়ে ৭ শতাংশ মূসক আরোপিত হয় সেটি প্রত্যাহার করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

সরকার ২০১৫-১৬ অর্থবছরে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়, মেডিকেল কলেজ ও ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজের ওপর যে সাড়ে ৭ শতাংশ মূসক আরোপিত হয় সেটি প্রত্যাহার করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।চলতি বছর বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়, মেডিকেল কলেজ ও ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজের শিক্ষার্থীদের টিউশন ফির ওপর থেকে সাড়ে সাত শতাংশ মূল্য সংযোজন কর (ভ্যাট বা মূসক) প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত জানিয়ে বিজ্ঞপ্তি দিয়েছে অর্থ মন্ত্রণালয়।

সোমবার বেলা সোয়া ৩টার দিকে অর্থ মন্ত্রণালয়ের জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা শাহেদুর রহমান স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, “বাজেট পাসের সময় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় এই মূসকের হার সাড়ে শতাংশ করা হয়। বাজেট পাস হয় জুন মাসে। প্রায় তিন মাস পর এই মূসক নিয়ে কতিপয় ছাত্রছাত্রী আন্দোলনে নেমেছেন। আমাদের দেশে বর্তমানে শিক্ষার প্রতি আগ্রহ প্রতি ঘরে ঘরে। এবং অনেকেই অতি নির্দিষ্ট সামর্থ্যের মধ্যে ছেলেমেয়ের শিক্ষার জন্য প্রচুর অর্থ ব্যয় করে থাকেন।”

“ব্যক্তি মালিকানাধীন খাতের প্রতিষ্ঠানের শিক্ষা ব্যয়বহুল। শিক্ষা খাত প্রধানমন্ত্রীর কাছে সবচেয়ে অগ্রাধিকারপ্রাপ্ত খাত। তাঁর বিশ্বাস যে, জাতিকে শিক্ষা দিলেই দেশের উন্নয়নের পথে অগ্রযাত্রা দ্রুতগতি লাভ করে। যারা বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে অনেক খরচ করে শিক্ষা গ্রহণ করছেন তাঁরা অতিরিক্ত সাড়ে ৭ শতাংশ মূসক দিতে চান না। এ জন্য তাঁরা ক্লাস ছেড়ে দিয়েছেন। বিভিন্ন জায়গায় সমাবেশ করে জনজীবন বিঘ্নিত করছেন এবং উন্নয়নের যাত্রার পথে বাধার সৃষ্টি করছেন।”

বিজ্ঞপ্তিতে আরো বলা হয়, “সরকার কোনমতেই শিক্ষাঙ্গনে কোনো প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করতে চায় না এবং জনজীবনে অসুবিধারও সৃষ্টি করতে চায় না। সেই দৃষ্টিকোণ থেকে বিবেচনা করে সরকার ২০১৫-১৬ অর্থবছরে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়, মেডিকেল কলেজ ও ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজের ওপর যে সাড়ে ৭ শতাংশ মূসক আরোপিত হয় সেটি প্রত্যাহার করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।”

সচিবালয়ে সোমবার মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠকের পর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভ্যাট প্রত্যাহারের নির্দেশনা দেন বলে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক সিনিয়র মন্ত্রী জানান।

২০১৫-১৬ অর্থবছরের বাজেটে প্রাথমিকভাবে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ওপর ১০ শতাংশ ভ্যাট আরোপের ঘোষণা দেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। পরে শিক্ষার্থী ও বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের কথা বিবেচনায় নিয়ে ভ্যাটের হার হ্রাস করে সাড়ে ৭ শতাংশ করা হয়।

এর প্রতিবাদে গত কয়েকদিন ধরে আন্দোলন করছিল বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। তাদের আন্দোলনের মুখে এ ভ্যাট প্রত্যাহার করা হল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *