ভারতীয় ২৩ পণ্যে শুল্কমুক্ত আমদানি সুবিধা

বাংলাদেশ সরকার ভারতীয় ২৩টি পণ্যকে শুল্কমুক্তভাবে আমদানির সুবিধা দিতে রাজি হয়েছে।

বাংলাদেশ সরকার ভারতীয় ২৩টি পণ্যকে শুল্কমুক্তভাবে আমদানির সুবিধা দিতে রাজি হয়েছে।বাংলাদেশ সরকার ভারতীয় ২৩টি পণ্যকে শুল্কমুক্তভাবে আমদানির সুবিধা দিতে রাজি হয়েছে। বাংলাদেশ-ভারত বাণিজ্য সচিব পর্যায়ের দ্বি-পাক্ষিক বৈঠকে রোববার এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

সোমবার সচিবালয়ে ঢাকা সফররত ভারতের বাণিজ্য সচিব রাজীব খেরের সঙ্গে সৌজন্য বৈঠক শেষে তোফায়েল আহমেদ সাংবাদিকদের জানান, “ভারত দীর্ঘদিন ধরে তাদের রফতানিকৃত ২২৫টি পণ্যের ওপর শুল্কমুক্ত সুবিধা প্রদানের দাবি জানিয়ে আসছিল। কিন্তু দেশীয় পণ্যকে সুরক্ষা প্রদানের স্বার্থে আমরা এসব ভারতীয় পণ্যে শুল্কমুক্ত সুবিধা দিচ্ছি না। তবে এবারের বৈঠকে ভারতের ২২৫টি পণ্য তালিকা থেকে স্পর্শকাতর ২৩টি পণ্যকে ছাড় দেয়া হয়েছে।”

তোফায়েল আহমেদ বলেন, “মদ ও অস্ত্র ছাড়া বাংলাদেশের সকল পণ্য রফতানির ওপর শুল্কমুক্ত সুবিধা দিয়েছে ভারত। মুক্তবাজার অর্থনীতির যুগে আগামীতে আস্তে আস্তে কোনো স্পর্শকাতর পণ্যের ওপরই হয়তোবা শুল্ক থাকবে না।”

দু’ দেশের বাণিজ্য সচিব পর্যায়ের বৈঠক প্রসঙ্গে তোফায়েল আহমেদ বলেন, “সব কিছু বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে। ভারতের প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশ সফরে এলে বাণিজ্য চুক্তিটি নবায়ন করা হবে। এর আওতায় বাংলাদেশের ট্রান্সপোর্ট ভারতের মধ্য দিয়ে সরাসরি নেপাল ও ভূটানে যেতে পারবে। আগে এসব যাত্রায় সময় লাগতো ২১ দিন; নতুন চুক্তির আওতায় এখন সেখানে ছয় দিন লাগবে।”

ভারতের বিজেপি সরকারের প্রশংসা করে তিনি বলেন, “ভারতের বর্তমান সরকার প্রতিবেশিগুলোর সঙ্গে সম্পর্ক আরো জোরদার করতে চায়। অতীতের যেকোনো সরকারের চেয়ে বর্তমান সরকার অনেক বেশি সহযোগিতামূলক। সবকিছু এত সহজে হয়ে যাবে ভাবি নাই। মনে হচ্ছে নতুন দিগন্তের সূচনা হয়েছে।”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *