আগামী বছরে ব্রিটেনের পার্লামেন্টের হাউস অব কমন্সে এমপি পদে নির্বাচন করবেন ৫ বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত। তারা সবাই সিলেট অঞ্চলের অধিবাসী।
আন্তর্জাতিক

ব্রিটেনের পার্লামেন্ট নির্বাচনে ৫ সিলেটি

আগামী বছরে ব্রিটেনের পার্লামেন্টের হাউস অব কমন্সে এমপি পদে নির্বাচন করবেন ৫ বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত। তারা সবাই সিলেট অঞ্চলের অধিবাসী।আগামী বছরে ব্রিটেনের পার্লামেন্টের হাউস অব কমন্সে এমপি পদে নির্বাচন করবেন ৫ বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত। তারা সবাই সিলেট অঞ্চলের অধিবাসী। যুক্তরাজ্যে দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন সেক্টরে নেতৃত্ব দিয়ে আসছেন সিলেট অঞ্চলের বাংলাদেশিরা। তাদের অনেকেই জনপ্রতিনিধি থেকে শুরু করে ব্যবসা-বাণিজ্যে ও সামাজিক কর্মকাণ্ডে সাফল্য পেয়ে দেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করছেন।

ব্রিটেনের রাজনীতিতে অতীতে মেধার পরিচয় দিয়ে আগামী নির্বাচনে সিলেটের ৫ জন ভোটযুদ্ধে অবতীর্ণ হচ্ছেন। তারা হলেন- রুশনারা আলী, রূপা আশা হক, আনোয়ার বাবুল মিয়া, মিনা সাবেরা রহমান ও প্রিন্স সাদিক চৌধুরী।

হাউস অব কমন্সের এই ৫ প্রার্থীর মধ্যে ৩ জনই লড়বেন ওই দেশের প্রধান বিরোধী দল লেবার পার্টির প্রার্থী হিসেবে।

লেবার পার্টির প্রার্থী হিসেবে পূর্ব লন্ডনের বেথানল গ্রিন এন্ড বো আসনে রুশনারা আলী, ইলিং সেন্ট্রাল এন্ড একটন আসনে রূপা আশা হক ও ওয়েলইউন হ্যাটফিল্ড আসনে লড়বেন ব্যারিস্টার আনোয়ার বাবুল মিয়া।

অন্য ২ জনের মধ্যে ক্ষমতাসীন জোটের কনজারভেটিভ পার্টি থেকে বার্কিং আসনে লড়বেন মিনা রহমান ও ক্ষমতাসীন জোটের শরিক লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টির হয়ে নর্থাম্পটন সাউথ আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন প্রিন্স সাদিক চৌধুরী।

২০১০ সালে প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে হাউস অব কমন্সে এমপি নির্বাচিত হন সিলেটের বিশ্বনাথের রুশনারা আলী। পৈতৃক নিবাস সিলেটে হলেও ১৯৬০ সালে বাবা-মা ব্রিটেনে পাড়ি জমানো রূপা আশা হকের জন্ম ওই দেশেই।

কিংস্টন ইউনিভার্সিটির সোসিওলজির শিক্ষক রূপা আশা হক নিয়মিত গার্ডিয়ান, দ্য স্টেটসম্যান, ট্রিবিউনসহ নানা পত্রিকা ও জার্নালে লেখেন।

যুক্তরাজ্যের নির্বাচনে ৫ সিলেটির মধ্যে তৃতীয় নারী প্রার্থী মিনা সাবেরা রহমান সুনামগঞ্জের ছাতক উপজেলার রাউলী গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৬৮ সালে মাত্র ২১ দিন বয়সে তিনি বাবা-মার সঙ্গে যুক্তরাজ্যে পাড়ি জমান।

এ ছাড়া অন্য ২ প্রার্থীর মধ্যে আনোয়ার বাবুল মিয়ার বাড়ি সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলার মীরপুর গ্রামে এবং প্রিন্স সাদিক চৌধুরীর জন্ম সিলেট নগরীর বাগবাড়িতে। ব্রিটিশ-বাংলাদেশি প্র্যাক্টিসিং ব্যারিস্টার্স এসোসিয়েশনের সভাপতি আনোয়ার বাবুল মিয়া একইসঙ্গে পারিবারিক একাধিক ব্যবসাও দেখাশোনা করেন।

অন্যদিকে দীর্ঘদিন ধরে লিবারেল ডেমোক্র্যাটের (লিবডেম) রাজনীতির সঙ্গে জড়িত প্রিন্স সাদিক চৌধুরী ২০০৭ সালে লিবডেম থেকে কাউন্সিলর নির্বাচিত হন। তিনি নর্থহ্যামটন বাংলাদেশি এসোসিয়েশনের সঙ্গেও দীর্ঘদিন থেকে জড়িত।

শিরোনাম ডট কম
শিরোনাম ডট কম । অনলাইন নিউজ পোর্টাল Shironaam Dot Com । An Online News Portal
http://www.shironaam.com/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *