ব্রাসেলসে সিরিজ বিস্ফোরণে নিহত ৩৪
আন্তর্জাতিক

ব্রাসেলসে সিরিজ বিস্ফোরণে নিহত ৩৪

ব্রাসেলসে সিরিজ বিস্ফোরণে নিহত ৩৪বেলজিয়ামের রাজধানী ব্রাসেলসে সিরিজ বিস্ফোরণে অন্তত ৩৪ জন নিহত এবং বহু লোক আহত হয়েছেন।

মঙ্গলবার স্থানীয় সময় সকাল ৮টার দিকে (বাংলাদেশ সময় দুপুর ১টায়) প্রথম দুটি বিস্ফোরণ ঘটে ব্রাসেলসের যাভেনতেম আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে । আমেরিকান এয়ারলাইন্সের চেক-ইন ডেস্কের দিক থেকেই বিস্ফোরণ দু’টির শকওয়েভ ছুটে আসে বলে জানিয়েছেন প্রত্যক্ষদর্শীরা।

এর এক ঘণ্টা পর ফের বিস্ফোরণ ঘটে মালবিক মেট্রো স্টেশনে, যেখানে ইউরোপীয় ইউনিয়নের কার্যালয়গুলো অবস্থিত।

দা গার্ডিয়ান পত্রিকা জানায়, বিমানবন্দরের জোড়া বিস্ফোরণে অন্তত ১৪ জন নিহত এবং ৮১ জন আহত হয়েছেন। এর ৭৯ মিনিট পর মেট্রো স্টেশনে হামলায় অন্তত ২০ জন নিহত এবং ৫৫ জন আহত হয়েছে। এদের মধ্যে ১১ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

প্রত্যক্ষদর্শী এন্থোনি বারেতের বরাত দিয়ে সিএনএন জানিয়েছে, স্থানীয় সময় সকাল ৮টার দিকে তিনি টার্মিনাল সংলগ্ন হোটেল থেকে বিস্ফোরণের শব্দ শুনতে পান। তার ভাষায়, ‘আমি হোটেল রুমের জানালার পর্দা সরিয়ে দেখি, ভয়ার্ত লোকজন টার্মিনাল ভবন থেকে ছুটে পালাচ্ছে।’ তিনি স্ট্রেচারে করে ১৯/২০ জনকে বহন করে নিয়ে যেতে দেখেন বলেও দাবি করেছেন। তিনি এটিকে ‘ভয়াবহ গুরুতর ঘটনা’ হিসেবেও উল্লেখ করেছেন। তবে কি কারণে ওই বিস্ফোরণ দু’টি হয়েছে এবং এর সঙ্গে সন্ত্রাসবাদের কোনো সম্পর্ক রয়েছে কি না তা এখনো স্পষ্ট নয়।

বিস্ফোরণের পর ওই বিমানবন্দর এবং মেট্রো স্টেশন বন্ধ করে দেয়া হয়।

গত ১৮ মার্চ প্যারিস হামলার মূল সন্দেহভাজন সালেহ আব্দেসালামকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় আটক করে বেলজিয়াম পুলিশ। এরই চারদিনের মাথায় এ বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটলো।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ছবিগুলোয় দেখা যায়, বিস্ফোরণের ফলে টার্মিনালের জানলার কাচগুলো টুকরো টুকরো হয়ে চারদিকে ছড়িয়ে পড়েছে। এছাড়া কুণ্ডলী পাকিয়ে ধোয়া উঠছে।

কয়েকজন প্রত্যক্ষদর্শী বলেছেন, মনে হচ্ছিল ভূমিকম্প হচ্ছে। টার্মিনাল ভবনের নড়াচড়া অনুভব করা যাচ্ছিল। বিমানবন্দরে উপস্থিত লোকজন প্রাণভয়ে ছুটোছুটি শুরু করেছিলেন।

বিস্ফোরণের পর প্রায় ১৯-২৯ স্ট্রেচারে করে লোকদের সরিয়ে নিতে দেখা গেছে। আহতদের সরিয়ে নিতে বিমানবন্দরের ট্রলিও ব্যবহার করতে দেখা যায়।

বেলজিয়াম কর্তৃপক্ষ জনগণকে ঘরের বাইরে বের না হতে নির্দেশ দিয়েছে। দেশটিতে সর্বোচ্চ সতর্কতা জারি করা হয়েছে।

ব্রাসেলসে একাধিক বিস্ফোরণের পর ইউরোপজুড়ে অন্যান্য দেশগুলোও তাদের নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করেছে।

ভাগ্যগুণে বাঁচলেন বাংলাদেশি যুবক

বেলজিয়ামের রাজধানী ব্রাসেলসের জাভেনতেম বিমানবন্দরে বিস্ফোরণে ভাগ্যগুণে বেঁচে গেছেন বাংলাদেশি যুবক ইকবাল হোসেন বাবু।

বিস্ফোরণের আকষ্মিকতা কাটিয়ে ওঠার পর তিনি তার ঘনিষ্ঠজনরা জানান স্থানীয় সময় সকাল ৮টার (বাংলাদেশ সময় দুপুর ১টা) দিকে এ বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে।

এসময় বাংলাদেশগামী কাতার এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইটে তার ছোট ভাইয়ের স্ত্রী ও ছেলেকে বিদায় জানাতে তিনি বিমান বন্দরে অপেক্ষায় ছিলেন। ঘটনার বর্ণনা দিতে গিয়ে বারবার কান্নায় ভেঙে পড়ছিলেন ইকবাল হোসেন বাবু।

তিনি জানান, যেখানে বিস্ফোরণ ঘটে সেখানে দাঁডিয়ে ছিলেন তিনি। কয়েক মুহূর্ত আগে একটি পানির বোতল কিনতে তিনি বিস্ফোরণস্থল থেকে সরে দোকানের দিকে যাচ্ছিলাম। একটু দূরে যেতেই বিস্ফোরণে চারদিকে অন্ধকার হয়ে যায়। আমার পাশেই কতগুলো মানুষের প্রাণ যেতে দেখলাম।

তিনি জানান, যেখানে অপেক্ষায় ছিলেন তার কাছেই বিস্ফোরণ ঘটেছে। প্রথমে কিছু বোঝা যায়নি। মনে হচ্ছিল ভূমিকম্প হচ্ছে। টার্মিনাল ভবনের নড়াচড়া অনুভব করা যাচ্ছিল। বিমানবন্দরে উপস্থিত লোকজন প্রাণভয়ে ছুটোছুটি শুরু করেছিলেন।

মূলত আমেরিকান এয়ারলাইন্সের চেক-ইন ডেস্কের দিক থেকেই অপেক্ষারতদের দিকে বিস্ফোরণ দু’টির শকওয়েভ ছুটে আসে। বিমানবন্দরে দুই দফা বিস্ফোরণে ২৮ জন নিহত হয়েছেন, আহত আরো বেশ কয়েকজন।

তার ঘনিষ্ঠজনরা জানান, ইকবাল হোসেন বাবু বিএনপির বেলজিয়াম প্রবাস শাখার সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক।

শিরোনাম ডট কম
শিরোনাম ডট কম । অনলাইন নিউজ পোর্টাল Shironaam Dot Com । An Online News Portal
http://www.shironaam.com/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *