বেসরকারি শিক্ষক নিয়োগে আবেদন ২৮ জুলাই পর্যন্ত
শিক্ষাঙ্গন

বেসরকারি শিক্ষক নিয়োগে আবেদন ২৮ জুলাই পর্যন্ত

বেসরকারি শিক্ষক নিয়োগে আবেদন ২৮ জুলাই পর্যন্ত শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষের (এনটিআরসিএ) মাধ্যমে বেসরকারি এসব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শূন্য পদে শিক্ষক নিয়োগের জন্য আগামী ২৮ জুলাই পর্যন্ত আবেদন গ্রহণ করা হবে।

সোমবার এনটিআরসিএ’র (NTRCA) এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। এতে বলা হয়, মেধারভিত্তিতে শিক্ষক নিয়োগের সরকারি সিদ্ধান্তের প্রেক্ষিতে এনটিআরসিএ রেজিস্টার্ড সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানকে আগামী ৩০ জুন পর্যন্ত শূন্য হবে এমন পদগুলোর জন্য প্রতিষ্ঠানসমূহকে চাহিদা প্রদান করতে হবে।

ওয়েবসাইটের http://ngi.teletalk.com.bd http://ntrca.gov.bd মাধ্যমে ৬-২৫ জুন পর্যন্ত শূন্য পদের চাহিদা পূরণের নির্দেশ দিয়েছে এনটিআরসিএ।

নিয়োগ পেতে ইতিপূর্বে এনটিআরসি’র পরীক্ষায় উত্তীর্ণ প্রার্থীদের আগামী ২৮ জুলাইয়ের মধ্যে অনলাইনে আবেদন করতে হবে।

এ বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য এনটিআরসিএ-এর ওয়েবসাইটে www.ntrca.gov.bd পাওয়া যাবে।

দেশের সব বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে মেধার ভিত্তিতে শিক্ষক নিয়োগের জন্য গত বছরের ৩০ ডিসেম্বর পরিপত্র জারি করে এনটিআরসিএ’কে প্রার্থী বাছাইয়ের দায়িত্ব দেয় শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

শিক্ষক নিয়োগের জন্য শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোকে এর আগে এনটিআরসিএ’র ওয়েবসাইটে নিবন্ধন করতে হয়েছে। বেসরকারি স্কুল-কলেজে শিক্ষক নিয়েগের জন্য ২০০৫ সাল থেকে এনটিআরসিএ এই পরীক্ষা নেওয়া শুরু করে।

আগে একই দিন একসঙ্গে এক ঘণ্টা এমসিকিউ ও তিন ঘণ্টার লিখিত পরীক্ষা নেওয়া হলেও দ্বাদশ শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষা থেকে এমসিকিউ ও লিখিত পরীক্ষা আলাদাভাবে নিচ্ছে এনটিআরসিএ। একই সঙ্গে সনদের মেয়াদ তিন বছর করা হয়।

এই নিয়োগ প্রক্রিয়ায় প্রতিষ্ঠানগুলোর পরিচালনা পর্ষদের ক্ষমতা খর্ব করে মেধার ভিত্তিতে শিক্ষক নিয়োগ হবে বলে জানায় শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

গত বছরের ২১ অক্টোবর ‘বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষা গ্রহণ ও প্রত্যয়ন বিধিমালা, ২০০৬’ সংশোধন করে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। এরপর ১১ নভেম্বর থেকে বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শিক্ষক নিয়োগের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

এরপর গত ৩০ ডিসেম্বর সংশোধিত বিধিমালা অনুযায়ী নতুন নিয়মে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের চাহিদার ভিত্তিতে এনটিআরসিএর মাধ্যমে শিক্ষক নিয়োগে নতুন নিয়মের পরিপত্র জারি করে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। এতে শিক্ষক নিয়োগের ওপর নিষেধাজ্ঞা উঠে যায়। নতুন এ ব্যবস্থায় শিক্ষক নিয়োগের ক্ষমতা হারায় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ম্যানেজিং কমিটি।

শিরোনাম ডট কম
শিরোনাম ডট কম । অনলাইন নিউজ পোর্টাল Shironaam Dot Com । An Online News Portal
http://www.shironaam.com/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *