বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া ও ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বিরুদ্ধে দুর্নীতি মামলার লিভ টু আপিল শুনানির দিন আগামী ৬ নভেম্বর
জাতীয়

বেগম জিয়ার লিভ টু আপিল শুনানি ৬ নভেম্বর

বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া ও ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বিরুদ্ধে দুর্নীতি মামলার লিভ টু আপিল শুনানির দিন আগামী ৬ নভেম্বরবিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া ও ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বিরুদ্ধে দুদকের করা জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার লিভ টু আপিল শুনানির দিন এগিয়ে আনার জন্য দুদকের করা আবেদনের প্রেক্ষিতে আগামী ৬ নভেম্বর দিন ধার্য করেছেন আপিল বিভাগ।

রোববার সকালে প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বে গঠিত ৫ সদস্যের আপিল বিভাগ এদিন ধার্য করেন।

এসময় খালেদা জিয়ার পক্ষে আইনজীবী ছিলেন এডভোকেট জয়নাল আবেদীন।

অন্যদিকে রাষ্ট্র পক্ষে আইনজীবী ছিলেন এটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম।

বিএনপি চেয়ারপারসনের  মিডিয়া উইংয়ের সদস্য  শায়রুল কবীর খান জানান, আজ যেহেতু হরতাল চলছে সেহেতু বেগম জিয়া আদালতে হাজির হতে পারছেন না।

দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) দায়ের করা জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় গত ১৯ মার্চ খালেদা জিয়াসহ নয়জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করে আদেশ দেন বিচারক বাসুদেব রায়।

এ অভিযোগ গঠনের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে আবেদন করেন খালেদা জিয়া। পরে গত ২৩ এপ্রিল হাইকোর্ট ওই আবেদন খারিজ করে দেয়ায় তিনি গত ৬ জুলাই লিভ টু আপিল আবেদন করেন।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্টের নামে দুর্নীতির অভিযোগে ২০০৮ সালের ৩ জুলাই রমনা থানায় মামলাটি দায়ের করে দুর্নীতি দমন কমিশন। এতিমদের সহায়তা করার উদ্দেশ্যে একটি বিদেশি ব্যাংক থেকে আসা ২ কোটি ১০ লাখ ৭১ হাজার ৬৭১ টাকা আত্মসাৎ করার অভিযোগ এনে এ মামলা দায়ের করা হয়।

এ মামলায় বেগম খালেদা জিয়া ছাড়া অপর আসামিরা হলেন- বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান, মাগুরার সাবেক এমপি কাজী সালিমুল হক কামাল ওরফে ইকোনো কামাল ব্যবসায়ী শরফুদ্দিন আহমেদ, ড. কামাল উদ্দিন সিদ্দিকী ও মমিনুর রহমান।

এ মামলার আসামি তারেক রহমান রয়েছেন দেশের বাইরে, মাগুরার সাবেক এমপি কাজী সালিমুল হক কামাল ওরফে ইকোনো কামাল ও ব্যবসায়ী শরফুদ্দিন আহমেদ রয়েছেন জামিনে। তবে শরফুদ্দিন আহমেদ আদালতে হাজির না থাকায় ১৯ মার্চ তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন আদালত। অপর দুই আসামি ড. কামাল উদ্দিন সিদ্দিকী ও মমিনুর রহমান মামলার শুরু থেকেই পলাতক রয়েছেন।

মামলাটি তদন্ত করে দুদকের সহকারী পরিচালক হারুনুর রশিদ। খালেদা জিয়া, তারেক রহমানসহ অপর চারজনকে অভিযুক্ত করে ২০০৯ সালের ৫ আগস্ট আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন।

শিরোনাম ডট কম
শিরোনাম ডট কম । অনলাইন নিউজ পোর্টাল Shironaam Dot Com । An Online News Portal
http://www.shironaam.com/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *