বুয়েট ছাত্রলীগের ৪ নেতার বহিষ্কার অবৈধ ঘোষণা

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট) শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকসহ চার শিক্ষার্থীকে ক্লাস ও পরীক্ষা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট) শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকসহ চার শিক্ষার্থীকে ক্লাস ও পরীক্ষা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট) শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকসহ চার শিক্ষার্থীকে ক্লাস ও পরীক্ষা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে তাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের সব ধরনের শিক্ষা কার্যক্রমে অংশগ্রহণের সুযোগ দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

এক রিট আবেদনের প্রাথমিক শুনানী শেষে বিচারপতি কাজী রেজা-উল হক ও বিচারপতি আবু তাহের মো. সাইফুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ সোমবার এ আদেশ দেন।

এ ছাড়া ছাত্রলীগের এ চার নেতাকে বিভিন্ন মেয়াদে বহিষ্কার করে কর্তৃপক্ষের নেওয়া সিদ্ধান্তকে কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছে আদালত। আগামী চার সপ্তাহের মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষসহ সংশ্লিষ্টদের রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

আদালতে আবেদনের পক্ষে শুনানী করেন আইনজীবী এম আমিনউদ্দিন। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি এ্যাটর্নি জেনারেল তাপস কুমার বিশ্বাস।

গত ১২ এপ্রিল মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে জামায়াতের সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল মোহাম্মদ কামারুজ্জামানের ফাঁসি কার্যকর করা নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে মন্তব্য করেন বুয়েটের পুরকৌশল বিভাগের শিক্ষক জাহাঙ্গীর আলম। এর প্রেক্ষিতে পর দিন বুয়েট শাখা ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতা ওই শিক্ষককে লাঞ্ছিত করে। পরে এ নিয়ে তদন্ত কমিটি গঠন করে বুয়েট। তদন্ত শেষে গত ১৮ ও ১৯ এপ্রিল বিশ্ববিদ্যালয় সিন্ডিকেটের জরুরি সভায় বুয়েট ছাত্রলীগের সভাপতি শুভ্র জ্যোতি টিকাদার ও সাধারণ সম্পাদক আবু সাঈদকে আজীবন বহিষ্কার করা হয়। আর প্রতীক দত্তকে এক বছরের জন্য ও গোলাম সাকলাইনকে হল থেকে বহিষ্কার করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *