বিএনপির মনোনয়ন পাওয়া প্রার্থীদের তালিকা
জাতীয়

বিএনপির মনোনয়ন পাওয়া প্রার্থীদের তালিকা

বিএনপি অনেক আসনে একাধিক প্রার্থী রেখেছে। তবে দলের প্রয়োজনে শেষ পর্যন্ত একজন প্রার্থী চূড়ান্ত করা হবে। এর জন্য মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের ফরমেও প্রার্থীদের স্বাক্ষর রাখা হচ্ছে।

আসনগুলোর ব্যাপারে আগামী ৮ ডিসেম্বর মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের আগেই চূড়ান্ত করা হবে বলে জানা গেছে।

মঙ্গলবার সকাল থেকেই মনোনয়নপত্র নিতে গুলশান কার্যালয়ে এসে ভিড় করেন বিএনপি নেতাকর্মীরা।

বিএনপির মনোনয়ন পাওয়া প্রার্থীদের তালিকা-

ঢাকা বিভাগ
ঢাকা-১ আসনে বিএনপির সাবেক নেতা ব্যারিস্টার নাজমুল হুদার মেয়ে অ্যাডভোকেট অন্তরা সেলিমা হুদা ও সায়মা হোসেন বুবলী, ঢাকা-২ আমান উল্লাহ আমান ও তার ছেলে ইরফান ইবনে আমান, ঢাকা-৩ গয়েশ্বর চন্দ্র রায় ও তার পুত্রবধু নিপুন রায় চৌধুরী, ঢাকা-৪ সালাহউদ্দিন আহমেদ ও তার পুত্র তানভীর আহমেদ রবীন, ঢাকা-৫ নবী উল্লাহ নবী ও অধ্যক্ষ সেলিম ভূঁইয়া, ঢাকা-৬ ইঞ্জিনিয়ার ইশরাক হোসেন ও আবুল বাশার, ঢাকা-৮ মির্জা আব্বাস, ঢাকা-৯ হাবিব-উন-নবী সোহেল, ঢাকা-১২ সাইফুল আলম নীরব ও আনোয়ারুজ্জামান আনোয়ার, ঢাকা-১৩ আবদুস সালাম ও আতাউর রহমান ঢালী, ঢাকা-১৪ সাবেক ফুটবলার আমিনুল হক ও এস এ সিদ্দিক সাজু, ঢাকা-১৫ মামুন হাসান, ঢাকা-১৬ আহসান উল্লাহ হাসান ও মোয়াজ্জেম হোসেন, ঢাকা-১৭ মেজর জেনারেল (অব.) রুহুল আলম চৌধুরী, ফরহাদ হালিম ডোনার ও কামাল জামান মোল্লা, ঢাকা-১৮ এস এম জাহাঙ্গীর, ঢাকা-১৯ দেওয়ান সালাহউদ্দিন আহমেদ, ঢাকা-২০ ব্যারিস্টার জিয়াউর রহমান।

নারায়ণগঞ্জ-১ অ্যাডভোকেট তৈমুর রহমান আলম খন্দকার, কাজী মনিরুজ্জামন মনির ও মোস্তাফিজুর রহমান ভূঁইয়া দিপু, নারায়ণগঞ্জ-২ মাহমুদুর রহমান সুমন, আতাউর রহমান খান আঙ্গুর ও নজরুল ইসলাম আজাদ, নারায়ণগঞ্জ-৩ আজহারুল ইসলাম মান্নান ও খন্দকার আবু জাফর, নারায়ণগঞ্জ ৪ মোহাম্মদ শাহ আলম ও অধ্যাপক মামুন মাহমুদ এবং নারায়ণগঞ্জ-৫ অ্যাডভোকেট আবুল কালাম ও মাকছুদুল আলম খন্দকার খোরশেদ। তবে এই আসন থেকে জাতীয় ঐক্য ফ্রন্টের প্রার্থী হিসেবে এসএম আকরামের নাম রয়েছে।

নরসিংদী-১ খায়রুল কবীর খোকন, নরসিংদী-২ সরদার সাখাওয়াত হোসেন বকুল, নরসিংদী-৩ সানাউল্লাহ মিয়া।

মুন্সীগঞ্জ-১ শাহ মোয়াজ্জেম হোসেন, মুন্সীগঞ্জ-২ মিজানুর রহমান সিনহা, মুন্সীগঞ্জ-৩ আবদুল হাই।

গাজীপুর-১ চৌধুরী তানভীর আহমেদ সিদ্দিকী, গাজীপুর-২ সালাহউদ্দিন সরকার ও মঞ্জুরুল করিম রনি, গাজীপুর-৩ আসনটি জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের জন্য ফাঁকা রাখা হয়েছে, গাজীপুর-৪ নিয়াজুল হান্নান শাহ্, গাজীপুর-৫ ফজলুল হক মিলন ও মনির হোসেন।

ফরিদপুর-১ শাহ মো. আবু জাফর ও খন্দকার নাছিরুল ইসলাম, ফরিদপুর-২ শামা ওবায়েদ ইসলাম রিংকু ও শহিদুল ইসলাম বাবুল, ফরিদপুর-৩ চৌধুরী কামাল ইবনে ইউসুফ ও নায়েবা ইউসুফ, ফরিদপুর- ৪ ইকবাল হোসেন খন্দকার সেলিম ও শাহরিয়ার ইসলাম শায়লা।

রাজবাড়ী-১ আলী নেওয়াজ খৈয়ম, রাজবাড়ী-২ নাসিরুল হক।

গোপালগঞ্জ-১ সেলিমুজ্জামান সেলিম, গোপালগঞ্জ ২ সিরাজুল ইসলাম সিরাজ, গোপালগঞ্জ -৩ এস এম জিলানি।

মাদারীপুর-১ সাজ্জাদ হোসেন লাভলু সিদ্দিকী, মাদারীপুর-২ মিল্টন বৈদ্য, মাদারীপুর-৩ আনিসুর রহমান খোকন তালুকদার।

শরীয়তপুর-১ সরদার নাছির উদ্দিন কালু, শরীয়তপুর-২ শফিকুর রহমান কিরন, শরীয়তপুর-৩ মিয়া নুরুদ্দিন অপু।

কিশোরগঞ্জ-১ রেজাউল করিম খান চুন্নু, সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট মো. শরীফুল ইসলাম শরীফ এবং জেলা বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক খালেদ সাইফুল্লাহ সোহেল, কিশোরগঞ্জ-২ সাবেক সংসদ সদস্য মেজর (অব.) আখতারুজ্জামান রঞ্জন, কিশোরগঞ্জ ৩ অ্যাডভোকেট জালাল মোহাম্মদ গাউস, ভিপি সাইফুল ইসলাম সুমন, কিশোরগঞ্জ-৪ বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট মো. ফজলুর রহমান, সুরঞ্জন ঘোষ, কিশোরগঞ্জ-৫ শেখ মুজিবুর রহমান ইকবাল ও তার ছেলে ছেলে মাহমুদুর রহমান উজ্জলকেও প্রার্থী রাখা হয়েছে, কিশোরগঞ্জ-৬ বিএনপি সভাপতি মো. শরীফুল আলম।

টাঙ্গাইল-১ ফকির মাহবুব আনাম স্বপন ও সরকার শহীদ, টাঙ্গাইল-২ সুলতান সালাউদ্দিন টুকু ও শামছুল আলম তোফা, টাঙ্গাইল-৩ মাঈনুল ইসলাম ও লুৎফর রহমান খান আজাদ, টাঙ্গাইল-৪ লুৎফর রহমান মতিন ও ইঞ্জিনিয়ার আবদুল হালিম, টাঙ্গাইল-৫ মেজর জেনারেল (অব.) মাহমুদুল হাসান ও ছাইদুল হক ছাদু, টাঙ্গাইল-৬ অ্যাডভোকেট গৌতম চক্রবর্তী ও নূর মোহাম্মদ খান ও টাঙ্গাইল-৭ আবুল কালাম আজাদ সিদ্দিকী ও সাইদুল ইসলাম খান। টাঙ্গাইল-৮ আসন এখনো ঘোষণা করা হয়নি। এ আসনে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী দেওয়া হবে বলে জানা গেছে।

ময়মনসিংহ বিভাগ
ময়মনসিংহ-১ এমরান সালেহ প্রিন্স, ময়মনসিংহ-২ ইয়াসির খান চৌধুরী ও শাহ শহীদ সারওয়ার, ময়মনসিংহ- ৩ আহম্মেদ তায়েবুর রহমান ওরফে হিরন, ময়মনসিংহ-৪ ডা. এ জেড এম জাহিদ হোসেন ও আবু ওয়াহাব আকন্দ ওয়াহিদ, ময়মনসিংহ- ৮ আসনে শাহ নূর কবির শাহীন, ময়মনসিংহ- ৯ আসনে ইয়াসের খান চৌধুরী, ময়মনসিংহ-১০ আসনে সিদ্দিকুর রহমান ও মোহাম্মদ আখতারুজ্জামান।

শেরপুর-১ মো. হযরত আলী, শেরপুর-২ একেএম মোখলেসুর রহমান রিপন, শেরপুর-৩ মোস্লাফিজুর রহমান বাবুল ও মাহমুদ রুবেল।

জামালপুর-১ রশিদুজ্জামান মিল্লাত, জামালপুর-৩ মুস্তাফিজুর রহমান বাবুল, জামালপুর-৪ ফরিদুল কবির তালুকদার, জামালপুর-৫ অ্যাডভোকেট শাহ ওয়ারেস আলী মামুন।

নেত্রকোনা-১ ব্যারিস্টার কায়সার কামাল, নেত্রকোনা-২ আশরাফ উদ্দিন ও এটিএম আব্দুল বারী, নেত্রকোনা-৩ রফিকুল ইসলাম হেলালি ও নেত্রকোনা-৫ রাবেয়া খাতুন ও আবু তাহের তালুকদার।

খুলনা বিভাগ
খুলনা-১ আমীর এজাজ খান, খুলনা-২ নজরুল ইসলাম মঞ্জু, খুলনা-৩ রকিবুল ইসলাম বকুল, খুলনা-৪ আজিজুল বারী হেলাল ও শরীফ শাহ কামাল তাজ, খুলনা-৫ ড. মামুন রহমান ও ডা. গাজী আবদুল হক।

নড়াইল- ১ বিশ্বাস জাহাঙ্গীর আলম এবং নড়াইল-২ ন্যাশনাল পিপলস পার্টির (এনপিপির) চেয়ারম্যান ড. ফরিদুজ্জামান ধানের শীষ প্রতীক পেয়েছেন।

সাতক্ষীরা-১ হাবিবুল ইসলাম হাবিব, সাতক্ষীরা-২, সাতক্ষীরা-৩ ও সাতক্ষীরা-৪ জামায়াত।

মেহেরপুর-১ আসনে জেলা বিএনপির সভাপতি ও সাবেক এমপি মাসুদ অরুণ, মেহেরপুর-২ জাভেদ মাসুদ মিল্টন।

চুয়াডাঙ্গা-১ বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ও কৃষক দলের সাধারণ সম্পাদক শামসুজ্জামান দুদু ও চুয়াডাঙ্গা-২ মাহমুদ হাসান খান ওরফে বাবু খান।

কুষ্টিয়া-১ রেজা আহমেদ বাচ্চু মোল্লা ও রমজান আলী, কুষ্টিয়া-২ ব্যারিস্টার রাগীব রউফ চৌধুরী ও ফরিদা ইয়াসমিন, কুষ্টিয়া-৩ অধ্যাপক সোহরাব উদ্দিন ও জাকির হোসেন সরকার, কুষ্টিয়া-৪ সৈয়দ মেহেদী আহমেদ রুমী ও নুরুল ইসলাম আনসার প্রমাণিক।

ঝিনাইদহ-১ কেন্দ্রীয় মানবাধিকার বিষয়ক সম্পাদক আ্যাডভোকেট আসাদুজ্জামান আসাদ এবং বিভাগীয় সহসাংগঠনিক সম্পাদক জয়ন্ত কুমার কুন্ডু, ঝিনাইদহ-২ এস এম মশিউর রহমান এবং এম এ মজিদ, ঝিনাইদহ-৩ আসনে কণ্ঠশিল্পী মনির খান ও শহিদুল ইসলাম মাস্টারের ছেলে মেহেদী হাসান রনি, ঝিনাইদহ-৪ স্বেচ্ছাসেবক দলের কেন্দ্রীয় যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম ফিরোজ।

মাগুরা-১ মনোয়ার হোসেন খান, মাগুরা-২ নিতাই রায় চৌধুরী ও মোজাফফর হোসেন টুকু।

যশোর-১ আসনে মফিজুল হাসান ও হাসান জহির, যশোর-৩ আসনে অনিন্দ্য ইসলাম অমিত ও সৈয়দ সাবেরুল হক সাবু, যশোর-৪ টিএস আইয়ুব ও মতিয়ার রহমান ফারাজী, যশোর-৬ অমলেন্দু দাস অপু, আবুল হোসেন আজাদ ও আবদুস সামাদ বিশ্বাস। যশোরের দুটি আসনে বিএনপির মনোনয়নের ঘোষণা দেওয়া হয়নি।

বাগেরহাট-১ আসনে শেখ মুজিবুর রহমান ও মাসুদ রানা, বাগেরহাট-২ আসনে জেলা বিএনপির সভাপতি এম এ সালাম ও আকরাম হোসেন, বাগেরহাট-৩ আসনে ড. শেখ ফরিদুল ইসলাম, বাগেরহাট-৪ খায়রুজ্জামান শিপন ও অধ্যাপক আবদুল আলিম (জামায়াত)।

সিলেট বিভাগ
সিলেট-১ আসনে ইনাম আহমদ চৌধুরী ও খন্দকার আবদুল মুক্তাদির, সিলেট-২ আসনে তাহসিনা রুশদীর লুনা, সিলেট-৩ আসনে শফি আহমদ চৌধুরী ও ব্যারিস্টার এমএ সালাম, সিলেট-৪ আসনের দিলদার হোসেন সেলিম ও অ্যাডভোকেট শামসুজ্জামান জামান, সিলেট-৬ আসনে ফয়সল আহমদ চৌধুরী।

সুনামগঞ্জ-১ আসনে নজির হোসেন, কামরুজ্জামান কামরুল ও আনিসুল হক, সুনামগঞ্জ-২ আসনে নাছির উদ্দিন চৌধুরী ও তাহির রায়হান চৌধুরী, সুনামগঞ্জ-৪ আসনে ফজলুল হক আসপিয়া ও দেওয়ান জয়নুল জাকেরিন, সুনামগঞ্জ-৫ কলিম উদ্দিন আহমদ ও মিজানুর রহমান চৌধুরী।

মৌলভীবাজার-১ আসনে এবাদুর রহমান চৌধুরী ও নাসির উদ্দিন আহমদ মিঠু, মৌলভীবাজার-২ সুলতান মুহাম্মদ মনসুর (জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট), মৌলভীবাজার-৩ আসনে এম নাসের রহমান ও রেজিনা নাসের, মৌলভীবাজার-৪ আসনে মুজিবুর রহমান চৌধুরী ও মুঈদ আশিক চিশতী।

হবিগঞ্জ-২ আসনে সাখাওয়াত হোসেন জীবন, হবিগঞ্জ-৩ আসনে জি কে গৌছ।

চট্টগাম বিভাগ
চট্টগ্রাম-১ (মীরসরাই)- কামাল উদ্দিন আহমেদ, নুরুল আমিন, ও মনিরুল ইসলাম ইউসুফ, চট্টগ্রাম-২ (ফটিকছড়ি) ডা. খুরশিদ জামিল চৌধুরী ও মো. সালাহউদ্দিন, চট্টগ্রাম-৩ (সন্দ্বীপ) মোস্লফা কামাল পাশা ও নুরুল মোস্তফা খোকন, চট্টগ্রাম-৪ (সীতাকুণ্ড) লায়ন আসলাম চৌধুরী ও এওয়াইবি সিদ্দিকী, চট্টগ্রাম-৫ (হাটহাজারী) মীর মোহাম্মদ নাছির উদ্দীন ও ব্যারিস্টার শাকিলা ফারজানা, চট্টগ্রাম-৭ (রাঙ্গনিয়া) কুতুব উদ্দিন বাহার ও শওকত আলী নুর, চট্টগ্রাম-৮ (বোয়ালখালি-চান্দগাঁও) আসনে মোরশেদ খান ও আবু সুফিয়ান, চট্টগ্রাম-৯ (কোতোয়ালি-বাকলিয়া) ডা. শাহাদাত হোসেন ও শামসুল আলম, চট্টগ্রাম-১০ (হালিশহর-পাহাড়তলী) আসনে আবদুল্লাহ আল নোমান ও মোশাররফ হোসেন দীপ্তি, চট্টগ্রাম-১২ (পটিয়া), চট্টগ্রাম-১৩ (আনোয়ারা) আসনে সারওয়ার জামাল নিজাম ও মোস্তাফিজুর রহমান। চট্টগ্রাম-১৬ (বাঁশখালী) আসনে জাফরুল ইসলাম চৌধুরী।

কুমিল্লা- ৩ আসনে শাহিদা রফিক, কুমিল্লা-৫ আসনে অধ্যাপক মোহাম্মদ ইউনুস, কুমিল্লা-৬ আসনে হাজী আমিনুর রশিদ ইয়াসিন।

লক্ষীপুর-১ জোটের শরীকদের জন্য, লক্ষীপুর-২ আবুল খায়ের ভূইয়া ও হারুন অর রশীদ, লক্ষীপুর-৩ শহীদ উদ্দিন চৌধুরী ও সাহাব উদ্দিন সাবু, লক্ষীপুর-৪ আশরাফ উদ্দিন নিজান ও শফিউল বারী বাবু, এই আসনটি জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শরীক জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল জেএসডি সভাপতি আ স ম আব্দুর রব পাবেন বলে জানা গেছে।

চাঁদপুর-১ সাবেক শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী ড. এহসানুল হক মিলন ও মোশারফ হোসেন, চাঁদপুর-২ ড. জালালউদ্দিন ও তানভীর হুদা, চাঁদপুর-৩ ফরিদ আহমেদ মানিক ও রাশেদা বেগম হীরা, চাঁদপুর-৪ সাবেক এমপি লায়ন হারুন অর রশীদ ও এম হারুন, চাঁদপুর-৫ ইঞ্জিনিয়ার মমিনুল হক ও এম এ মতিন।

ফেনী-৩ বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা আবদুল লতিফ জনি।

রংপুর বিভাগ
পঞ্চগড়-১ ব্যারিস্টার নওশাদ জমির/ তৌহিদুল ইসলাম, পঞ্চগড়-২ জাহিদুর রহমান/ ফরহাদ হোসেন আজাদ/ তাসমিয়া প্রধান (জাগপা)।

ঠাকুরগাঁও-১ মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, ঠাকুরগাঁও-২ মো. আবদুস সালাম/ জুলফিকার মুর্তজা চৌধুরী তুলা, ঠাকুরগাঁও-৩ জাহিদুর রহমান/ জিয়াউল ইসলাম জিয়া।

দিনাজপুর-১ মঞ্জুরুল ইসলাম/ মামুনুর রশীদ, দিনাজপুর-২ লে. জে. (অব.) মাহবুবুর রহমান/ সাদিক রিয়াজ, দিনাজপুর-৩ জাহাঙ্গীর আলম/ মোফাজ্জল হোসেন
দুলাল, দিনাজপুর-৪ হাফিজুর রহমান সরকার/ আক্তারুজ্জামান মিয়া, দিনাজপুর-৫ এ জেড এম রেজওয়ানুল হক/ এস এস জাকারিয়া বাচ্চু, দিনাজাপুর-৬ মো. লুৎফর রহমান/ সাহিদুল ইসলাম শাহীন।

নীলফামারী-১ রফিকুল ইসলাম/ ন্যান্সি রহমান কবির, নীলফামারী-২ শামসুজ্জামান জামাল/ কাজী আক্তার জামান, নীলফামারী-৩ ফাহমিদা ফয়সাল কমেট চৌধুরী, নীলফামারী-৪ কণ্ঠশিল্পী বেবী নাজনীন/ আমজাদ হোসেন।

লালমনিরহাট-২ সালাউদ্দিন হেলাল, লালমনিরহাট-৩ আসাদুল হাবিব দুলু।

রংপুর-১ মোশাররফ হোসেন সুজন, রংপুর-২ ওয়াহিদুজ্জামান মামুন/ মোজাফফর আলী, রংপুর-৩ রিটা রহমান (পিপিবি)/ মোজাফফর আহমদ, রংপুর-৪ এমদাদুল হক ভরসা, রংপুর-৫ সোলায়মান আলম/ ডা. মমতাজ, রংপুর-৬ সাইফুল ইসলাম।

কুড়িগ্রাম-১ মো. সাইফুর রহমান রানা/ তাঁর স্ত্রী শামীমা রহমান আপন, কুড়িগ্রাম-২ সোহেল হোসনাইন কায়কোবাদ/ আবু বকর সিদ্দিক, কুড়িগ্রাম-৩ তাজভীরুল ইসলাম/ আবদুল খালেক, কুড়িগ্রাম-৪ আজিজুর রহমান/ মুখলেছুর রহমান।

গাইবান্ধা-১ খন্দকার জিয়াউল ইসলাম/ মাজহারুল ইসলাম, গাইবান্ধা-২ আহমদ খান, গাইবান্ধা-৩ অধ্যাপক ডা. মঈনুল হাসান সাদিক, গাইবান্ধা- ৪ ফারুক আলম।

রাজশাহী বিভাগ
জয়পুরহাট-১ ফয়সাল আলিম/ ফজলুর রহমান, জয়পুরহাট-২ ইঞ্জিনিয়ার গোলাম মোস্তফা/ আবু ইউসুফ খলিলুর রহমান।

বগুড়া-১ কাজী রফিকুল ইসলাম/ মোহাম্মদ শোকরানা, বগুড়া-৩ আবদুল মুহিত তালুকদার/ মাসুদা মোমেন, বগুড়া-৫ গোলাম মোহাম্মদ সিরাজ/ জানে আলম খোকা, বগুড়া-৬ খালেদা জিয়া, বগুড়া-৭ খালেদা জিয়া।

নাটোর-১ কামরুন নাহার শিরিন/ তাইফুল ইসলাম টিপু, নাটোর-২ সাবিনা ইয়াসমিন/ রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু, নাটোর-৩ দাউদ আর মাহমুদ/ আনোয়ার হোসেন আনু, নাটোর-৪ আবদুল আজিজ।
চাঁপাইনবাবগঞ্জ-১ শাহজাহান মিয়া/ বেলাল-ই-বাকী, চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ আনোয়ারুল ইসলাম, চাঁপাইনবাবগঞ্জ-৩ আবদুল ওয়াহেদ/ হারুনুর রশীদ।

নওগাঁ-১ ডা. ছালেক চৌধুরী/ মাসুদ রানা/ মোস্তাফিজুর রহমান, নওগাঁ-২ সামসুজ্জোহা খান/ খাজা নজীবুল্লাহ চৌধুরী, নওগাঁ-৩ পারভেজ আরেফিন সিদ্দিকী জনি/ রবিউল আলম বুলেট, নওগাঁ-৪ শামসুল আলম প্রামাণিক/ ডা. ইকরামুল বারি টিটো, নওগাঁ-৫ জাহিদুল ইসলাম/ নাজমুল হক সনি, নওগাঁ-৬ আলমগীর কবির/ শেখ রেজাউল ইসলাম।

রাজশাহী-১ ব্যারিস্টার আমিনুল হক, রাজশাহী-২ মিজানুর রহমান মিনু/ সাঈদ হাসান, রাজশাহী-৩ শফিকুল হক মিলন/ মতিউর রহমান মন্টু, রাজশাহী-৪ আবু হেনা/ আবদুল গফুর, রাজশাহী-৫ নাদিম মোস্তফা/ নজরুল মণ্ডল, রাজশাহী-৬ আবু সাঈদ চাঁদ/ নুরুজ্জামান খান মানিক।

সিরাজগঞ্জ-১ কনকচাঁপা/ নাজমুল হাসান রানা, সিরাজগঞ্জ-২ রোমানা মাহমুদ/ ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু, সিরাজগঞ্জ-৩ ভিপি আইনুল হক/ আবদুল মান্নান তালুকদার, সিরাজগঞ্জ-৪ (২০ দল), সিরাজগঞ্জ-৫ আমিরুল ইসলাম খান আলিম/ রকিবুল করিম খান পাপ্পু, সিরাজগঞ্জ-৬ কামরুদ্দিন ইয়াহিয়া খান মজলিস/ ডা. এম এ মুহিত।

পাবনা-২ এ কে এম সেলিম রেজা হাবিব/ হাসান জাফির তুহিন, পাবনা-৩ কেএম আনোয়ারুল ইসলাম/ ফখরুল আজম/ মো. হাসাদুল ইসলাম হীরা, পাবনা-৪ হাবিবুর রহমান হাবিব/ সিরাজুল ইসলাম, পাবনা-৫ অ্যাডভোকেট শামছুর রহমান শিমুল বিশ্বাস।

বরিশাল বিভাগ
বরিশাল-১ জহিরউদ্দিন স্বপন/ আবদুস সোবহান, বরিশাল-২ সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল/ শরফুদ্দিন সান্টু/ শহিদুল হক জামাল, বরিশাল-৩ অ্যাডভোকেট জয়নাল আবেদীন/ সেলিমা রহমান, বরিশাল-৪ মেজবাহ উদ্দিন ফরহাদ/ রাজীব আহসান, বরিশাল-৫ মজিবর রহমান সরোয়ার/ এবায়দুল হক চাঁন ও বরিশাল-৬ আবুল হোসেন খান/ অধ্যাপক রশীদ খান।

বরগুনা-১ মতিউর রহমান তুলুকদার/ নজরুল আসলাম মোল্লা, বরগুনা-২ অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন/নুরুল ইসলাম মনি।

পটুয়াখালী-১ এয়ার ভাইস মার্শাল (অব.) আলতাফ হোসেন চৌধুরী/ তাঁর স্ত্রী সুরাইয়া আক্তার চৌধুরী, পটুয়াখালী-২ শহিদুল আলম তালুকদার/ সালমা আলম, পটুয়াখালী-৩ গোলাম মাওলা রনি/ হাসান মামুন/ মো. শাহজান, পটুয়াখালী-৪ এ বি এম মোশাররফ হোসেন/ মনিরুজ্জামান মনি।

জোটের শরিকদের আসন
ভোলা-১ আসনে বিজেপির আন্দালিব রহমান পার্থ, নড়াইল-২ এনপিপির ফরিদুজ্জামান ফরহাদ, নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনে সাম্যবাদী দলের সাঈদ আহমেদ, চট্টগ্রাম- ৫ আসনে কল্যাণ পার্টির সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম, চট্টগ্রাম-১৪ আসনে এলডিপির অলি আহমেদ, কুমিল্লা- ৭ ড. রেদোয়ান আহমেদ, লক্ষীপুর-১ আসনে সাহাদাত হোসেন সেলিম, সুনামগঞ্জ- ৩ আসনে জমিয়তে উলামায়ে ইসলামীর শাহিনুর পাশা, কুমিল্লা-৬ সৈয়দ মহিউদ্দিন ইকরাম।

এছাড়া যশোর-৫ মো. ওয়াক্কাস, খুলনা-৪ রেজাউল করীম, পিরোজপুর-২ আসনে লেবার পার্টির মোস্তাফিজুর রহমান ইরান, পিরোজপুর-১ আসনে জাতীয় পার্টি(কাজী জাফর) মোস্তফা জামাল হায়দার, গাইবান্ধা-৩ টিআই ফজলে রাব্বী, চাঁদপুর-৩ এস এম এম আলম, কুষ্টিয়া- ২ আহসান হাবিব লিংকন, ব্রাক্ষণবাড়ীয়া- ৪ সেলিম ধানের শীষ প্রতীকে মনোনয়নের জন্য প্রত্যয়নের চিঠি নিয়ে গেছেন।

শিরোনাম ডট কম
শিরোনাম ডট কম । অনলাইন নিউজ পোর্টাল Shironaam Dot Com । An Online News Portal
http://www.shironaam.com/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *