চিকিৎসার অভাবে বাবার কাঁধেই নিথর ছেলে
আন্তর্জাতিক

চিকিৎসার অভাবে বাবার কাঁধেই নিথর ছেলে

চিকিৎসার অভাবে বাবার কাঁধেই নিথর ছেলেচিকিৎসার অভাবে বাবার কাঁধেই নিথর ছেলে। নাবালক ছেলে কাঁধে দোরে দোরে ঘুরেও তার চিকিৎসার ব্যবস্থা করতে পারলেন না বাবা। বাবার কাঁধেই মারা গেল ছেলে। অমানবিক এই ঘটনার সাক্ষী হল উত্তরপ্রদেশ।

রোববার রাত থেকেই প্রবল জ্বরে আক্রান্ত হয় অংশ নামে ওই নাবালক।

ফজলগঞ্জে স্থানীয় ডাক্তারদের কাছে তাকে নিয়ে যান বাবা সুনীল কুমার। পরে জ্বর কমছে না দেখে তাকে তড়িঘড়ি নিয়ে যাওয়া হয় কানপুরের সরকারি লালা লাজপত রাই হাসপাতালে। অভিযোগ তাকে ফিরিয়ে দেয় হাসপাতাল।

সুনীল কুমার বলছিলেন, ডাক্তারদের কাছে তিনি কাকুতিমিনতি করেন তার ছেলেকে একবার দেখার জন্য। আধঘণ্টা ফেলে রাখার পর তারা বলে কোনো শিশু হাসপাতালে তার ছেলেকে নিয়ে যেতে।

অসহায় বাবা পাগলের মতো ছেলেকে রেখে ছোটাছুটি শুরু করেন। একটা স্ট্রেচারের জন্য আবেদন জানান হাসপাতালে। কিন্তু, একটা স্ট্রেচারও কেউ তাকে দেয়নি।

নিরুপায় হয়ে অসুস্থ ছেলেকে কাঁধে তুলে হাঁটতে থাকেন সুনীল কুমার। প্রায় ২৫০ মিটার পেরিয়ে যখন শিশু হাসপাতালে পৌঁছন, কাঁধেই নিথর হয়ে গেছে অংশ। চিকিৎসকরা তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

এখানেই অমানবিকতার শেষ নয়। এরপরেও তাকে কেউ সাহায্য করেনি। ছেলের দেহ একাই কাধে চাপিয়ে বাড়ির দিকে রওনা দেন তিনি।

বিষয়টি নিয়ে মুখ খুলতে চায়নি লালা লাজপত রাই হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

শিরোনাম ডট কম
শিরোনাম ডট কম । অনলাইন নিউজ পোর্টাল Shironaam Dot Com । An Online News Portal
http://www.shironaam.com/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *