বাংলাদেশে গণতন্ত্র, ভোটের অধিকার ও মানবাধিকার প্রতিষ্ঠা প্রসঙ্গে ভারত সফরের সময় ওবামা -মোদির আলোচনা হয়েছে।
আন্তর্জাতিক

বাংলাদেশ নিয়ে ওবামা-মোদির আলোচনা

বাংলাদেশে গণতন্ত্র, ভোটের অধিকার ও মানবাধিকার প্রতিষ্ঠা প্রসঙ্গে ভারত সফরের সময় ওবামা -মোদির আলোচনা হয়েছে।বাংলাদেশে গণতন্ত্র, ভোটের অধিকার ও মানবাধিকার প্রতিষ্ঠা প্রসঙ্গে ভারত সফরের সময় যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে আলোচনা হয়েছে বলে জানিয়েছেন, যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তা কাউন্সিলের দক্ষিণ এশিয়া বিষয়ক সিনিয়র পরিচালক ফিল র‌্যাইনার।

বাংলাদেশের চলমান সংকট নিরসনে শীর্ষ দুই নেতার মধ্যে আলোচনা অব্যাহত রয়েছে বলেও জানান যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্টের সঙ্গে দিল্লি সফরকারী ওবামা প্রশাসনের এই শীর্ষ কর্মকর্তা। বাংলাদেশে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার পক্ষে যুক্তরাষ্ট্রের দৃঢ় অবস্থানের কথাও জানান ফিল র‌্যাইনার।

মঙ্গলবার ওয়াশিংটনের স্টেট ডিপার্মেন্টের ফরেন প্রেস সেন্টারে বারাক ওবামার ভারত সফর পরবর্তী আয়োজিত প্রেস কনফারেন্সে যুক্তরাষ্ট্র সফররত বাংলাদেশের সাংবাদিক মুশফিকুল ফজল আনসারীর এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

নিউইয়র্কের ফরেন প্রেস সেন্টারে আমন্ত্রিত বাংলাদেশের টিভি ব্যক্তিত্ব মুশফিকুল ফজল আনসারী ভিডিও কনফারেন্সে অংশ নিয়ে র‌্যাইনারের কাছে জানতে চান, প্রেসিডেন্ট ওবামা তার সাম্প্রতিক ভারত সফরের সময় আঞ্চলিক শান্তি ও নিরাপত্তার বিষয়ের ওপর গুরুত্বারোপ করেছেন। অথচ এ অঞ্চলের দেশ হিসেবে বাংলাদেশ একটি অস্থির সময় পার করছে, মানুষ গণতন্ত্র, মানবাধিকার ও ভোটের অধিকার রক্ষার জন্য সংগ্রাম করছে- এমন একটি বাস্তবতায় ভারতের প্রতিবেশী রাষ্ট্র হিসেবে বাংলাদেশের রাজনৈতিক চলমান চরম অস্থিরতা নিয়ে প্রেসিডেন্ট ওবামার দৃষ্টিভঙ্গি কী?

জবাবে র‌্যাইনার বলেন, ভারতের প্রজাতন্ত্র দিবস উপলক্ষে প্রধান অতিথি হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা যে সফর করেছেন, সেসময় সফর সঙ্গী হিসেবে আমি লক্ষ্য করেছি প্রেসিডেন্ট ও প্রধানমন্ত্রীর মধ্যকার আলোচনায় বাংলাদেশ প্রসঙ্গ স্থান পেয়েছে। আমরা পৃথিবীর সবচেয়ে বড় গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র ভারতে ইতিহাসের সবচেয়ে বৃহৎ এবং অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন দেখেছি, যা বিশ্বে একটি নজির স্থাপন করেছে। আমরা সম্প্রতি এ অঞ্চলের শ্রীলংকায়ও অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন দেখেছি।

ফিল র‌্যাইনার বলেন, এটা নিশ্চিত যে বাংলাদেশের বর্তমান অবস্থা উত্তেজনাপূর্ণ। এ সফরে দুই নেতা বাংলাদেশের গণতন্ত্র ও নাগরিক অধিকার রক্ষার বিষয়ে একমত পোষণ করেছেন। যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশের বর্তমান অস্থিতিশীল পরিস্থিতিকে অত্যন্ত গুরুত্বের সঙ্গে দেখছে। বাংলাদেশের চলমান সংকট নিরসনে দুই নেতার (ওবামা-মোদি) মধ্যে এখনো আলোচনা অব্যাহত আছে বলে জানান র‌্যাইনার।

ওবামার সম্প্রতি ভারত সফরকে ঐতিহাসিক উল্লেখ করে যুক্তরাষ্ট্রের এই শীর্ষ কর্মকর্তা বলেন, এই সফরের মধ্য দিয়ে দুই দেশের মধ্যে সম্পর্কের নতুন দিগন্ত উন্মোচিত হয়েছে।

দ্বিপাক্ষিক বিষয়াদি ছাড়াও আঞ্চলিক স্থিতি ও নিরাপত্তায় যুক্তরাষ্ট্র-ভারত এক সঙ্গে কাজ করবে বলে সফরকালে উভয় নেতা একমত পোষণ করেছেন বলে উল্লেখ করেন যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তা কাউন্সিলের দক্ষিণ এশিয়া বিষয়ক সিনিয়র পরিচালক ফিল র‌্যাইনার।

শিরোনাম ডট কম
শিরোনাম ডট কম । অনলাইন নিউজ পোর্টাল Shironaam Dot Com । An Online News Portal
http://www.shironaam.com/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *