ফখরুল জামিনে মুক্ত, দেশবাসীর কাছে দোয়া কামনা

দীর্ঘ প্রায় সাড়ে ছয় মাস কারাভোগের পর বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর জামিনে মুক্তি পেয়েছেন।

দীর্ঘ প্রায় সাড়ে ছয় মাস কারাভোগের পর বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর জামিনে মুক্তি পেয়েছেন। দীর্ঘ প্রায় সাড়ে ছয় মাস কারাভোগের পর বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর জামিনে মুক্তি পেয়েছেন।

মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাতটার দিকে তিনি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালের প্রিজন সেল থেকে বেরিয়ে আসেন।

মুক্তি পাওয়ার পর মির্জা ফখরুল সাংবাদিকদের বলেন, “আমি শুকরিয়া আদায় করছি। জামিনে হলেও মুক্তি পেয়েছি। আমার শারীরিক অবস্থা খুব খারাপ। আমার চিকিৎসা প্রয়োজন।”

নিজের শারীরিক অবস্থা ও চিকিৎসার বিষয়ে মির্জা ফখরুল বলেন, গত ছয় মাস ধরে তিনি কারাগারে অসুস্থ। তার হার্টের অসুখ বেড়েছে। তিনি চিকিৎসার জন্য দ্রুতই বিদেশ যাবেন। সিঙ্গাপুর ও আমেরিকার চিকিৎসকদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছে। এই দুইয়ের যেকোনো এক জায়গায় যাবেন চিকিৎসার জন্য। চিকিৎসা শেষে সুস্থ হয়ে দেশে ফিরে তিনি যেন আবার দেশ ও জনগণের সেবায় নিজেকে নিয়োজিত করতে পারেন, সে জন্য সবার দোয়া চেয়েছেন।

এর আগে সোমবার মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর তার বিরুদ্ধে দায়ের হওয়া সব কটি মামলাতেই জামিন পান।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতাল থেকে সরাসরি তার অসুস্থ মা ফাতেমা আমিনকে দেখতে গুলশানের ইউনাইটেড হাসপাতালে যান মির্জা ফখরুল।

প্রসঙ্গত, চলতি বছরের শুরুতে ৫ জানুয়ারির একতরফা জাতীয় সংসদ নির্বাচনের বর্ষপূর্তি ঘিরে কর্মসূচি ঘোষণা করে বিএনপির নেতৃত্বাধীন ২০-দলীয় জোট। এ সময় ৬ জানুয়ারি মির্জা ফখরুলকে প্রেসক্লাব থেকে গ্রেফতার করে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

পরে নাশকতার অভিযোগে পল্টন ও মতিঝিল থানার সাতটি মামলায় বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিবকে গ্রেফতার দেখানো হয়। এর মধ্যে পল্টন থানার মামলা ছয়টি ও মতিঝিল থানার একটি। সবগুলোতে তিনি হাইকোর্ট থেকে জামিন পেয়েছেন।

রাষ্ট্রপক্ষের বিরোধিতার মধ্যে পল্টন থানার দুটি ও মতিঝিল থানার একটি মামলায় হাইকোর্টের দেয়া জামিন বহাল রাখেন আপিল বিভাগ। আর পল্টন থানার তিনটি মামলায় গতকাল হাইকোর্টের জামিনাদেশ ছয় সপ্তাহের জন্য বহাল রাখেন আপিল বিভাগ।

আর এই সময়ের মধ্যে ফখরুল চাইলে উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশে যেতে পারবেন বলে জানিয়েছেন আপিল বিভাগ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *