প্যারিসে ইসলামবিরোধী পত্রিকার কার্যালয়ে হামলা

Franch_magazine_office_attack_kills_12ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসে পত্রিকা অফিসে হামলায় অন্তত ১২ জন নিহত হয়েছে।

বুধবার সকালে ‘চার্লি হেবডো’ নামের ওই পত্রিকায় এই হামলা চালানো হয় বলে জানিয়েছে রয়টার্স। তবে পত্রিকা অফিসের পক্ষ থেকে তাৎক্ষণিকভাবে কোনো মন্তব্য করা হয়নি।

২০১১ সালে এই পত্রিকায় হযরত মুহাম্মাদ (সা.) কে নিয়ে বিতর্কিত একটি কার্টুন ছাপা হয়। সে সময় ওই পত্রিকা অফিসে বোমা হামলা চালানো হয়েছিল।

প্যারিসের একটি ভবন থেকে ঘটনাটি প্রত্যক্ষ করেছেন বেনিয়ত ব্রিঞ্জার নামের এক ব্যক্তি। ফরাসি একটি টেলিভিশন চ্যানেলকে তিনি বলেন, ‘আধা ঘণ্টা আগে কালো পোশাক পরিহিত দু’জন লোক ওই ভবনে প্রবেশ করে। তাদের হাতে কালাশনিকভ (বন্দুক) ছিল। এর কয়েক মিনিট পরে আমরা ব্যাপক গুলির শব্দ শুনতে পাই।’

এরপরই ওই দু’জন ভবন থেকে পালিয়ে যায় বলে উল্লেখ করেন তিনি।

ফ্রান্স ইনফো রেডিও বলেছে, পুলিশ ১২ জন নিহত ও পাঁচজন আহতের খবর নিশ্চিত করেছে। তবে এ ব্যাপারটি বার্তা সংস্থা রয়টার্স নিশ্চিত করতে পারেনি।

পুলিশ কর্মকর্তা লুক পয়েগন্যান্ট বলেছেন, তিন পুলিশ কর্মকর্তাসহ এক সাংবাদিক নিহত ও বেশ কয়েকজন আহতের ব্যাপারে তিনি অবগত। বিএফএম টিভিকে তিনি বলেছেন, ‘এটি একটি হত্যাযজ্ঞ।’

এদিকে ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ফ্রাসোয়া ওঁলাঁদ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। তিনি বলেছেন, এটি সন্ত্রাসীদের কাজ।

চার্লি হেবদোর সর্বশেষ বিতর্কিত টুইটটি ছিল ইসলামিক স্ট্রেটের নেতা আবু বকর আল বাগদাদিকে নিয়ে।

এই পত্রিকাটি কখনোই অতোটা জনপ্রিয় ছিল না। তাদের সার্কুলেশন ছিল অত্যন্ত কম। এমনকি অর্থাভাবে এটি ১৯৮১ সালের পর টানা ১০ বছর প্রকাশনা বন্ধ রাখে।

তবে সম্প্রতি প্রচ্ছদের বিতর্কিত ব্যঙ্গ কার্টুন এবং অমার্জিত হেডলাইনের কারণে সংবাদপত্রের দোকান এবং রেলস্টেশনের বইয়ের দোকানে ভালোই বেচাবিক্রি হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *