পিতার কবরে শলতে জ্বালানোর মত কেউ রইলোনা
জাতীয়

পিতার কবরে শলতে জ্বালানোর মত কেউ রইলোনা

পিতার কবরে শলতে জ্বালানোর মত কেউ রইলোনাবিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মওদুদ আহমদের ছেলে আমান মমতাজ মওদুদ ইন্তেকাল করেছেন (ইন্না লিল্লাহি ইয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)।

চিকিৎসার জন্য সিঙ্গাপুরে নেওয়ার পথে বাংলাদেশ সময় আজ মঙ্গলবার ভোর সাড়ে চারটার দিকে তিনি মারা যান। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৩৮ বছর।

মওদুদ আহমদের পরিবারের বরাত দিয়ে বিএনপি চেয়ারপারসনের মিডিয়া উইং কর্মকর্তা শায়রুল কবির খান জানিয়েছেন, গত ৯ই সেপ্টেম্বর জ্বরে আক্রান্ত হলে আমানকে ইউনাইটেড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর তার ডেঙ্গু ধরা পড়ে। শরীরের তাপমাত্রা না কমায় সোমবার তাকে আইসিইউতে নেয়া হয়। পরে চিকিৎসকদের পরামর্শে তাকে সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে নেয়া হচ্ছিল। কিন্তু বিমানে মারা যাওয়ার পর আমানের লাশ সিঙ্গাপুর জেনারেল হাসপাতালে নেয়া হয়।

আমান মমতাজ বৃটিশ নাগরিক হওয়ায় তার মরদেহ দেশে আনা নিয়ে কিছুটা জটিলতা তৈরি হয়েছে। যাবতীয় আনুষ্ঠানিকতা শেষে আজ-কালের মধ্যে মরদেহ দেশে আনা হতে পারে। মরদেহ দেশে আনার পর জানাজা ও দাফনের বিষয়টি চূড়ান্ত হবে। ছেলের সঙ্গে সিঙ্গাপুর রয়েছেন বাবা মওদুদ আহমদ ও মা হাসনা মওদুদ।

মওদুদ আহমদের একমাত্র সন্তানের মৃত্যুতে এনটিভির বার্তা সম্পাদক মুজতবা খন্দকার লিখেছেন-

পৃথিবীতে সবচেয়ে ভারি জিনিস হচ্ছে, পিতার কাধে পুত্রের লাশ

মওদুদ অাহমদকে জীবন বেলার শেষ প্রান্তে এসে সেটাই বইতে হবে… এটা যে কতখানি কষ্টের এবং দু:খের তা অামি, অাপনি বুঝবোনা… মওদুদ ভাই বুঝবেন…..!
অামানকে অামি জানতাম,চিনতাম। তার বিয়ে নিয়ে মওদুদ অাহমদের সেকি ব্যস্ততা তাও দেখেছি….

এক সময় তার গুলশানের বাসায় প্রায়শ অামরা অামন্ত্রিত হয়ে যেতাম.. দেখা হতো অামানের সাথে…. তখন সে যুবক। বয়স পচিশ কি ছাব্বিশ, কিন্তু অাচরনে ছিলো যেন তের কি চৌদ্দ! বুদ্ধির সাথে কিছুটা শারিরীক প্রতিবন্দ্বীও ছিলেন।

এ নিয়ে মওদুদ কিম্বা হাসনা মওদুদের কি কোন অনুশোচনা ছিলো? জানিনা! কারন অামাদের সামনে কখনো করেননি… তবে ধারনা করি হয়তবা ছিলো….ব্যারিষ্টার মওদুদ অাহমদের অনেক দোষ গুন থাকতে পারে। কিন্তু তার মত স্বার্থক,সফল,শিক্ষিত,পন্ডিত রাজনীতিবিদ বাংলাদেশে বিরল। অাগামীতে তার মত সুশিক্ষিত রাজনীতিবিদ অামরা পাবো কিনা তা নিয়ে অামার যথেষ্ট সন্ধেহ অাছে।

অাগরতলা মামলার কনিষ্ট অাইনজীবী,মুজিব নগর সরকারের গুরুত্বপূর্ণ দাযিত্ব পালন, বঙ্গবন্ধুরর,পিএস।স্বাধীন বাংলাদেশের প্রথম পোষ্টমাষ্টার জেনারেল। বাংলাদেশের উপরাষ্ট্রপতি থেকে শুরু করে দেশের সকল গুরুত্বপূর্ণ পদে ছিলেন.. তিনি।

তার সাথে অামাদের ঘনিষ্টতা, অাইনমন্ত্রী থাকার সময়ে… সে ঘনিষ্টতা কেবলি বেড়েছে,বই কমেনি… বিশ্ব ইতিহাস,দেশের ইতিহাসের অনেক গল্প শুনেছি।শিখেছি অনেক।জেনেছি দেশের অনেক বড় রাজনীতিক সম্পর্কে…

তার গ্রামের বাড়ী নোয়াখালীতে গিয়েছি… কত রাত সেখানে বসে গ্রামিন সমাজের নানা তত্ব শুনেছি…. বাংলাদেশের রাজনীতির মহিরুহু ব্যক্তিত্ব…মওদুদ।

জীবন সায়াহৃ তিনি এখন বড় একা এবং একজন…. এতবড় মানুষ… কিন্তু কোন উত্তরসুরি রেখে যেতে পারলেননা… এটা বড় বেদনার..

যেখানে এদেশে রাজার ছেলে রাজা হয়,রাষ্ট্রপতির ছেলে মন্ত্রী না হোক এমপি হয়… সেখানে মওদুদ ভাই নিদেন পক্ষে কোন উত্তরসুরী রেখে যেতে পারলেননা… এরচেয়ে ট্রাজেডি অার কি হতে পারে..পিতার কবরে সলতে জ্বালানোর মত কেউ রইলোনা…

একজন সফল রাজনীতিকের এই করুন চিত্রনাট্য বিধাতায় লিখেছেন… তার লীলা বোঝা দায়…..!

অাল্লাহ য়েন মওদুদ ভাইকে পুত্রশোক সহ্য করার তৌফিক দেন…।

আমান মমতাজের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। এক শোকবার্তায় মরহুমের রুহের মাগফিরাত কামনা করে শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন তিনি। যুক্তরাষ্ট্রে চিকিৎসাধীন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরও দেশে টেলিফোন করে শোক প্রকাশ করেছেন।

পৃথক বিবৃতিতে শোক প্রকাশ করেছেন যুবদল সভাপতি সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল ও সাধারণ সম্পাদ সাইফুল আলম নিরব এবং ছাত্রদলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মামুনুর রশিদ মামুন ও সাধারণ সম্পাদক মো. আকরামুল হাসান। এছাড়া নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা বিএনপির পক্ষ থেকে সাধারণ সম্পাদক নুরুল আলম সিকদার আমান মওদুদের অকাল মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ ও শোকাহত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান।

মওদুদ আহমদের ব্যক্তিগত সহকারী মমিনুল ইসলামের বরাত দিয়ে বিএনপির চেয়ারপারসনের প্রেস উইংয়ের কর্মকর্তা শায়রুল কবির খান সকালে এই তথ্য জানান।

শায়রুল কবির খান বলেন, অসুস্থ হয়ে পড়লে আমানকে গত শনিবার রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সিঙ্গাপুরের উদ্দেশে নেওয়ার পথে তিনি মারা যান।

শিরোনাম ডট কম
শিরোনাম ডট কম । অনলাইন নিউজ পোর্টাল Shironaam Dot Com । An Online News Portal
http://www.shironaam.com/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *