নির্বাচনী আচরণবিধি ভেঙে ভোট চাইলেন খোকন

নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন করে জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমে ভোট চেয়েছেন ঢাকা দক্ষিণে আওয়ামী লীগ সমর্থিত মেয়র প্রার্থী সাঈদ খোকন।

নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন করে জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমে ভোট চেয়েছেন ঢাকা দক্ষিণে আওয়ামী লীগ সমর্থিত মেয়র প্রার্থী সাঈদ খোকন।নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন করে জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমে ভোট চেয়েছেন ঢাকা দক্ষিণে আওয়ামী লীগ সমর্থিত মেয়র প্রার্থী সাঈদ খোকন।

তিনি বলেন, “বায়তুল মোকাররম মসজিদের সঙ্গে আমার পারিবারিক সম্পর্ক রয়েছে। এই মসজিদে আমার বাবার জানাজা হয়েছে। দাদা মাজেদ সরকারও মসজিদের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ছিলেন। নির্বাচিত হলে বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের জন্য যা যা দরকার, সবই করব।”

এ সময় ইলিশ মাছ প্রতীকে ভোট দিতে তিনি মুসল্লিদের প্রতি আহ্বান জানান।

শুক্রবার জুমার নামাজের পর বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের মিনারের পাশে দাঁড়িয়ে মুসল্লিদের কাছে ভোট ও দোয়া চান সাঈদ খোকন।

নামাজের পর মসজিদের পেশ ইমাম মিজানুর রহমান মোনাজাতে সাইদ খোকনের জয়ের জন্য দোয়া চান।

ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সমর্থিত ঢাকা উত্তর সিটির অপর প্রার্থী আনিসুল হকের বিরুদ্ধেও বিধি লঙ্ঘন করে আশকোনা হজ ক্যাম্পে ভোট চাওয়ার অভিযোগ রয়েছে।

অন্যদিকে, ঢাকা সিটি করপোরেশন উত্তরের বিএনপি সমর্থিত মেয়র প্রার্থী তাবিথ আউয়ালকে মসজিদে ঢুকতে দেয়নি পুলিশ।

রাজধানীর মহাখালীতে রহিম মেটাল জামে মসজিদে নামাজ পড়তে ঢুকতে চাইলে এ ঘটনা ঘটে।

সূত্র জানায়, রাজধানীর মহাখালীর স্বাস্থ্য অধিদপ্তর নাবিস্কো এলাকায় গণসংযোগের পর পাশের রহিম মেটাল জামে মসজিদে তাবিথ আউয়ালের জুমার নামাজ পড়ার কথা ছিল। তিনি নামাজ পড়তে মসজিদে যান।

এ সময় সেখানে দায়িত্বরত পুলিশ তাকে জানায়, এখানে স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী নামাজ পড়বেন। তাই তিনি যেন অন্য কোনো মসজিদে নামাজ পড়েন।

নির্বাচন কমিশনের জারিকৃত সিটি করপোরেশন নির্বাচনে প্রার্থীদের আচরণ বিধিমালার পরিপত্র-৩ এর ১৪ নং বলা হয়েছে, ধর্মীয় উপাসনালয়ে প্রচারণা সংক্রান্ত বাধা-নিষেধ: কোনো প্রার্থী বা তার পক্ষে অন্য কোনো ব্যাক্তি মসজিদ, মন্দির, গির্জা বা অন্য কোনো ধর্মীয় উপাসনালয়ে কোনো প্রকার নির্বাচনী প্রচারণা চালাতে পারবেন না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *