নতুন সেনাপ্রধান দায়িত্ব নিয়েছেন

জেনারেল আবু বেলাল মোহাম্মদ শফিউল হক নতুন সেনাপ্রধান হিসেবে দায়িত্ব নিয়েছেন।

জেনারেল আবু বেলাল মোহাম্মদ শফিউল হক নতুন সেনাপ্রধান হিসেবে দায়িত্ব নিয়েছেন।জেনারেল আবু বেলাল মোহাম্মদ শফিউল হক নতুন সেনাপ্রধান হিসেবে দায়িত্ব নিয়েছেন।

বৃহস্পতিবার দুপুরে ঢাকা সেনানিবাসের সেনাসদরে শফিউল হকের কাছে দায়িত্ব হস্তান্তর করেন বিদায়ী সেনাপ্রধান জেনারেল ইকবাল করিম ভূঁইয়া। এর আগে ইকবাল করিম ভূঁইয়াকে সেনানিবাসে বিদায়ী গার্ড অব অনার প্রদান করা হয়।

দেশের ১৪তম সেনাপ্রধান হিসেবে আগামী তিন বছর এই দায়িত্ব পালন করবেন আবু বেলাল মোহাম্মদ শফিউল হক।

সেনাপ্রধান হওয়ার আগে শফিউল হক সশস্ত্রবাহিনী বিভাগের প্রিন্সিপাল স্টাফ অফিসার (পিএসও) হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলেন। ১০ জুন পদোন্নতি পান তিনি এবং বৃহস্পতিবার দায়িত্ব নেওয়ার আগে তাকে জেনারেল মর্যাদার ব্যাচ পরানো হয়।

সেনাপ্রধান হিসেবে শফিউল হকের নাম প্রকাশ করে ১০ জুন প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় প্রজ্ঞাপন জারি করে।

রাষ্ট্রপতির আদেশক্রমে যুগ্ম-সচিব আবু বকর সিদ্দিক স্বাক্ষরিত প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর বিএ-১৭৩৮ লেফটেন্যান্ট জেনারেল আবু বেলাল মো. শফিউল হককে ২৫ জুন’ ২০১৫ ইং তারিখ অপরাহ্নে জেনারেল পদে পদোন্নতি প্রদান পূর্বক ২৫ জুন’ ২০১৮ অপরাহ্ন পর্যন্ত সেনাবহিনী প্রধান পদে নিয়োগ প্রদান করা হলো।

আবু বেলাল মোহাম্মদ শফিউল হকের আরেকটি পরিচয় হলো, তিনি ঢাকা উত্তর সিটিতে আওয়ামী লীগের মেয়র আনিসুল হকের ভাই।

শফিউল হক ও সোমা হক দম্পতি এক মেয়ে ও এক ছেলের জনক-জননী। শফিউল হকের জন্ম ১৯৫৮ সালে। ১৯৭৮ সালের ১৮ জুন তিনি বাংলাদেশ মিলিটারি একাডেমি থেকে সেনাবাহিনীর আর্মার্ড কোরে কমিশন লাভ করেন।

ব্যাচের সেরা ‘অল রাউন্ড ক্যাডেট’ হিসেবে তিনি ‘সোর্ড অব অনার’ পুরস্কারে ভূষিত হন। জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা বাহিনীর কমান্ডার হিসেবে ইরাক, ইথিওপিয়া ও ইরিত্রিয়ায় কাজ করেছেন তিনি।

এরপর শফিউল হক ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বিএ এবং জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ‘ডিফেন্স স্টাডিজ’ বিষয়ে এমএ ডিগ্রি অর্জন করেন। ‘ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালস’ থেকে এমএ ডিগ্রি নেন দর্শনে। একই বিশ্ববিদ্যালয়ে এখন পিএইচডি করছেন তিনি।

দেশ ও বিদেশে সেনাসম্পর্কিত বিভিন্ন প্রশিক্ষণে অংশগ্রহণ করেছেন জেনারেল শফিউল হক। তিনি ডিফেন্স সার্ভিস কমান্ড এবং মিরপুর স্টাফ কলেজের একজন গ্রাজুয়েট। তিনি যুক্তরাষ্ট্রের কানসাসের ফোর্ট লেভেনওয়ার্থের কমান্ড অ্যান্ড জেনারেল স্টাফ কলেজেও প্রশিক্ষণ নিয়েছেন।

জাতিসংঘে শান্তিরক্ষী মিশনে যাওয়া প্রথম দিকের সেনা কর্মকর্তাদের একজন জেনারেল আবু বেলাল মোহাম্মদ শফিউল হক। ১৯৮৮-৮৯ সালে তিনি পর্যবেক্ষক হিসেবে ইরাকে যান। পরে ২০০৬-০৭ সালে ইউএনএমইইর ডেপুটি ফোর্স কমান্ডার হিসেবে ইথিওপিয়া ও ইরিত্রিয়ায় দায়িত্ব পালন করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *