ঢাবিতে দ্বিতীয়বার ভর্তির আপিল খারিজ

ঢাবিতে দ্বিতীয়বার ভর্তির আপিল খারিজ

ঢাবিতে দ্বিতীয়বার ভর্তির আপিল খারিজঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে দ্বিতীয়বার ভর্তি পরীক্ষা দেওয়ার সুযোগ থাকছে না। হাইকোর্টের পর এবার সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের ওই সিদ্ধান্তের পক্ষেই রায় দিয়েছে।

২৬ শিক্ষার্থীর অভিভাবকের করা লিভ টু আপিলের শুনানি শেষে আজ সোমবার প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহা নেতৃত্বাধীন চার সদস্যের আপিল বেঞ্চ এ আদেশ দেয়।

আপিল বিভাগের এই রায়ের ফলে চলতি বছর যারা উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছে, শুধু তারাই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে স্নাতক (সম্মান) শ্রেণিতে ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নিতে পারবেন। গত বছর উচ্চমাধ্যমিকে উত্তীর্ণরা এ বছর আর ভর্তি পরীক্ষা দিতে পারবেন না। এ বছর উচ্চমাধ্যমিকে উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীরা আগামী বছর ভর্তি পরীক্ষা দিতে পারবেন না।

দ্বিতীয়বার ভর্তি পরীক্ষায় বসার সুযোগ চেয়ে আদালতে আসা শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের পক্ষে আপিল বিভাগে শুনানি করেন আইনজীবী সুব্রত চৌধুরী। অন্যদিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষে এ এফ এম মেসবাহ উদ্দিন এবং রাষ্ট্রপক্ষে অ্যার্টনি জেনারেল মাহবুবে আলম শুনানি করেন।

আদেশের পর মেসবাহ উদ্দিন বলেন, “আপিল বিভাগ আবেদনটি খারিজ করে দেওয়ায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে আর দ্বিতীয়বার ভর্তি পরীক্ষা দেওয়ার সুযোগ থাকছে না।”

আবেদনকারীদের আইনজীবী সুব্রত চৌধুরী বলেন, “অ্যাকাডেমিক কাউন্সিলের এখতিয়ার আছে সিদ্ধান্ত সংশোধন ও পরিবর্তন করার। এটা তাদের অভ্যন্তরীণ বিষয়। সেখানে হস্তক্ষেপের সুযোগ নেই বলে হাইকোর্ট আমাদের রিট আবেদন খারিজ করেছিল। আগের দুই বছরের শিক্ষার্থীরাও যাতে ভর্তি পরীক্ষা দিতে পারে সেজন্য আমরা লিভ টু আপিল করেছিলাম। আপিল বিভাগ সেটিও খারিজ করে দিয়েছেন। এর ফলে দ্বিতীয়বার ভর্তি পরীক্ষায় বসার সুযোগ থাকছে না।”

গত ৮ জুলাই হাইকোর্ট ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্ত সঠিক বিবেচনা করে রিটটি খারিজ করে দেয়।

তারই পরিপ্রেক্ষিতে রিটকারীরা আপিল বিভাগে যান। এবার সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগও হাইকোর্টের রায় বহাল রাখলো। এতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের জন্য একবারই ভর্তি পরীক্ষা দেওয়ার সুযোগ থাকলো।

এর আগে এক রিট আবেদনের শুনানি নিয়ে গত ১৬ মার্চ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে (ঢাবি) দ্বিতীয়বার ভর্তি পরীক্ষার সুযোগ বাতিলের সিদ্ধান্ত কেন অবৈধ ও বেআইনি ঘোষণা করা হবে না তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছিল হাইকোর্ট।

একই সঙ্গে এ সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করে নতুন সিদ্ধান্ত নেওয়ার কেন নির্দেশ দেওয়া হবে না তাও জানতে চেয়েছে আদালত।

মিনারা বেগম ও রুহুল আমিনসহ ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষে দ্বিতীয়বার ভর্তিচ্ছুদের ২৬ জন অভিভাবক এ রিট আবেদনটি দায়ের করেন। ২০১৪ সালের ১৫ অক্টোবর ঢাবিতে দ্বিতীয়বার ভর্তি পরীক্ষা দেওয়া যাবে না বলে সিদ্ধান্ত নেয় কর্তৃপক্ষ।

এইচএসসি উত্তীর্ণরা এতোদিন টানা দুইবার ভর্তি পরীক্ষায় বসার সুযোগ পেলেও গতবছর তা সীমিত করে দেয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। বলা হয়, ভর্তি পরীক্ষায় জালিয়াতি ঠেকাতেই নেওয়া হয়েছে এ সিদ্ধান্ত।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *