দুই শর্তে সালাহ উদ্দিনের জামিন মঞ্জুর

বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব সালাহ উদ্দিন আহমেদকে শর্তসাপেক্ষে জামিন দিয়েছেন ভারতের মেঘালয় রাজ্যের রাজধানী শিলংয়ের একটি আদালত।

বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব সালাহ উদ্দিন আহমেদকে শর্তসাপেক্ষে জামিন দিয়েছেন ভারতের মেঘালয় রাজ্যের রাজধানী শিলংয়ের একটি আদালত।বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব সালাহ উদ্দিন আহমেদকে শর্তসাপেক্ষে জামিন দিয়েছেন ভারতের মেঘালয় রাজ্যের রাজধানী শিলংয়ের একটি আদালত।

সালাহ উদ্দিনের পক্ষে ফের জামিনের আবেদন করা হলে শুনানি শেষে শুক্রবার বিকেলে জামিন দেন বিচারক।

এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন বিএনপির সহ-দপ্তর সম্পাদক আব্দুল লতিফ জনি। শুক্রবার বিকেলে শিলংয়ের আদালত এ আদেশ দেন বলেও তিনি জানান।

সালাহ উদ্দিন আহমেদের আইনজীবী জানান, আদালত সালাহ উদ্দিনকে প্রতি মাসে হাজিরা এবং শিলং না ছাড়ার শর্তে জামিন দিয়েছেন।

এর আগে গত ২২ মে উন্নত চিকিৎসার জন্য সালাহ উদ্দিনের পক্ষে জামিন আবেদন করেছিলেন তার স্ত্রী হাসিনা আহমেদ। তবে ইন্টারপোলের ঢাকা অফিসের রেড নোটিস থাকার কথা জানিয়ে ওই আবেদন নামঞ্জুর করেছিল আদালত।

গত ১০ মার্চ ঢাকার উত্তরা থেকে নিখোঁজের ৬৩ দিন পর ১১ মে ভারতের মেঘালয়ের শিলংয়ে খোঁজ মেলে সালাহ উদ্দিনের। ১২ মে সালাহ উদ্দিনকে শিলং সিভিল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এর আগের দিন তাকে উদ্ধার করে একটি মানসিক হাসপাতালে নেয়া হয়েছিল।

বৈধ কাগজপত্র ছাড়া ভারতে প্রবেশ করায় ফরেনার্স অ্যাক্ট অনুযায়ী সালাহ উদ্দিনকে গ্রেফতার দেখায় মেঘালয় পুলিশ। এরপর তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য শিলংয়ের নেগ্রিমস হাসপাতালে নেয়া হয়।

গত ১১ মে রাজ্যের রাজধানী শিলংয়ে গ্রেফতার হওয়ার পর ২৬ মে সালাহ উদ্দিনকে প্রথম আদালতে হাজির করা হলে বিচারক ১৪ দিনের পুলিশ হেফাজতে পাঠান।

বুকে ব্যথার অভিযোগ করায় আদালতের নির্দেশনায় সালাহ উদ্দিনের স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য কারাগার থেকে নেগ্রিমস হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানেই তার চিকিৎসা চলছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *