দশকে ফুল ফোটে একবার
সাময়িকী

দশকে ফুল ফোটে একবার



দশকে ফুল ফোটে একবার। যুক্তরাষ্ট্রের একটি মরুময় অঞ্চল মোহাভি। দক্ষিণপূর্ব ক্যালিফোর্নিয়ার একটি বড় অংশ জুড়ে বির্স্তৃত মোহাভি মরুভূমির নামকরণ করা হয়েছে আমেরিকার আদিবাসী গোষ্ঠী মোহাভি’র নাম অনুসারে। মার্কিন প্রশাসনের পক্ষ থেকে দীর্ঘদিন ধরেই দেশটির বেশকিছু মরুপ্রবণ অঞ্চলের উপর বিশেষ নজর দেয়া হয়। সেসময় মরুভূমিতে লুপ্তপ্রায় অনেক বৃক্ষকে কৃত্তিম উপায়ে বর্ধনের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছিল।

সেই পরিকল্পনারই অংশ হিসেবে মোহাভি মরুভূমিতে গড়ে তোলা হয়েছিল একটি ন্যাশনাল রিজার্ভ পার্ক। মরুভূমির মধ্যে সীমানা নির্ধারণ করা হয় একটি বিশেষ প্রজাতির ফুল দ্বারা। সচরাচর মরুভূমিতে ফুল ফুটতে না দেখা গেলেও এই বিশেষ প্রজাতির ফুল মোহাভি মরুভূমিতেও ফুটতে দেখা যায়। যতদূর পর্যন্ত চোখ যায় হলুদ রঙ্গের এই ফুলগুলো পর্যটকদের নজর কাড়ে। তবে হলুদ ফুলের সীমানার বাইরে চলে গেলে আপনাকে বুঝতে হবে মোহাভি মরুভূমির সীমানা শেষ হয়ে গেছে।

স্থানীয়রা কাছে গাছগুলোকে জশুয়া নামেও পরিচিত। মরুভূমিটিতে প্রায় ১,৭৫০ থেকে ২,০০০ প্রজাতির জশুয়া বৃক্ষ পাওয়া যায়। সাধারণত মরুভূমিতে ফুল ফুটতে দেখা যায় না তবে মোহাভি মরুভূমির বছরে গড় বৃষ্টিপাতের পরিমাণ ঘন্টায় ২৫৪ মিলিমিটার হয় বলে এখানে এই গাছগুলো জন্মে। এই মরুঅঞ্চলের উচ্চতা সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে প্রায় ৩,০০০ থেকে ৬,০০০ ফুট।

সেই সঙ্গে এখানে রয়েছে ডেথ ভ্যালি বা মৃত্যু উপত্যকা। জুলাইয়ের শেষ থেকে আগস্টের শুরুর দিক পর্যন্ত ডেথ ভ্যালির সাধারণ তাপমাত্রা থাকে প্রায় ৪৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস। চারটি ঋতুতে মোহাভি মরুভূমিতে চার রকমের তাপমাত্রা বজায় থাকে। শীতকালে ভূ-সমতলে তাপমাত্রা থাকে ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াসের নিচে, আর উঁচু অংশের তাপমাত্রা থাকে ১৮ ডিগ্রি সেলসিয়াসের নিচে।



এই জায়গাটিকে ঘিরে প্রতিবছর লক্ষাধিক দেশি-বিদেশি পর্যটকদের সমাগম হয়। তবে তাদের মধ্যে অনেক মানুষই এখানে আসেন গবেষণার কাজের জন্য। যে সময়টাতে মরুভূমিতে ফুল ফোটে তখন স্থানটি আরও আকর্ষণীয় হয়ে ওঠে। ডেথ ভ্যালিতে তাপমাত্রা এতটাই বেশি থাকে যে সেখানে যাওয়া প্রায় অসম্ভব। বৃষ্টি সেখানে খুবই দুর্লভ।

ডেথ ভ্যালি উত্তর আমেরিকার এবং পৃথিবীর সবচেয়ে উত্তপ্ত জায়গা হিসেবে সবার কাছে পরিচিত। তবে মরুভূমিটির চিত্র একটু ভিন্ন, কখনো এখানে খুব গরম আবার কখনো খুব ঠাণ্ডা। কখনো প্রচন্ড বৃষ্টি আবার কখনো বৃষ্টি নেই বললেই চলে। যখন সেখানে বৃষ্টি হয় তখন ঈশ্বরের কৃপা হিসেবে বৃষ্টিকে বরণ করা হয়।

তবে এর মাঝেও রয়েছে কিছু প্রতিবন্ধকতা। মোহাভি মরুভূমিতে সবসময় অধিকমাত্রায় ফুল ফোটে না। সারাবছর ফুল ফুটলেও এর সংখ্যা হয় খুবই নূন্যতম। তবে যে বছর প্রচুর বৃষ্টিপাত হয় সেবছর ফুল দিয়ে মরুভূমি এতটাই সুসজ্জিত হয় যা দেখার মতো। কোন উপত্যকার উপরে উঠলে দেখা যাবে কেউ যেন মরুভূমিকে ফুলের হলুদ চাদরে ঢেকে দিয়েছে।

আর এমন অসাধারণ দৃশ্য দেখার জন্য আপনাকে অপেক্ষা করতে হবে কয়েক দশক। সর্বশেষ এমন ফুল ফোটার দৃশ্য দেখা গেছে ২০০৫ সালে, এর আগে ১৯৯৮ সালেও এমনটি হয়েছিল। সাধারণত অক্টোবর মাসে প্রচুর মাসে বৃষ্টিপাত হলে মাটি উর্বর হয় ফলে সেই মাসে ফুলের ফলন ভালো হয়। আর এই সময়টির জন্য অপেক্ষা করে থাকে লাখ লাখ পর্যটক।



শিরোনাম ডট কম
শিরোনাম ডট কম । অনলাইন নিউজ পোর্টাল Shironaam Dot Com । An Online News Portal
http://www.shironaam.com/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *